প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পোস্টাল ভোটে আগ্রহ নেই প্রবাসীদের; ভোট দিতে দেশে যাচ্ছেন অনেকে

সাইদুল ইসলাম, লন্ডন: আগামী ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পোষ্টাল ব্যালটের মাধ্যমে ভোট প্রদানের আগ্রহ নেই প্রবাসীদের। সিলেট বিভাগের ৪ টি জেলায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এখন পর্যন্ত মাত্র দু’জন প্রবাসী পোস্টাল ভোটের আগ্রহ দেখিয়েছেন। নির্বাচন কমিশনের নিয়ম অনুযায়ী প্রবাসে থাকা কোন ভোটার ভোট দিতে চাইলে পোস্টাল ভোটের মাধ্যমে তিনি তার ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে তাকে নিজ জেলার রিটার্নিং অফিসারের নিকট ডাকযোগে পোস্টাল ব্যালটের জন্য নির্বাচনের ১৫ দিন আগে আবেদন করতে হবে।

বাংলাদেশের প্রবাসী অধ্যুষিত সিলেট বিভাগের সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জ জেলার জেলা প্রশাসক তথা রিটার্নিং অফিসারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, শুধুমাত্র সিলেট ও মৌলভীবাজার জেলায় ১ জন করে মোট দু’জন প্রবাসী ভোটার পোস্টাল ব্যালটের জন্য আবেদন করেছেন।

দীর্ঘদিন থেকে প্রবাসীরা ভোটাধিকারের দাবী জানিয়ে আসলেও অজানা কারণে বিগত ৪৭ বছরে তাদেরকে এই নাগরিক ও সাংবিধানিক অধিকারটি দেওয়া হয়নি। গত ১৩ই ডিসেম্বর ভোটাধিকার সহ ৯ দফা দাবীতে ইশতেহারও ঘোষণা করেছে সামাজিক সংগঠন ফ্রেন্ডস হেল্পিং সোসাইটি। পোস্টাল ভোটের ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে তেমন প্রচার প্রচারণা না থাকায় ও চিঠি চালাচালি জটিল মনে করায় কেউই আগ্রহ দেখাচ্ছেন না তাতে। অনেক প্রবাসী নির্বাচন কমিশনের প্রতি আস্থার সংকটের কথাটিও বলেছেন অকপটে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রবাসী জানিয়েছেন, পোস্টাল ব্যালটে দেওয়া আমার ভোট ছিড়ে ফেলা হবে না বা মোট ভোটের সাথে যে গণনা করা হবে তার নিশ্চয়তা কি? কেন এমনটি মনে করছেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন যেভাবে পক্ষপাতিত্ব আচরণ করছে তাতে আমার এমনটি মনে করাই সঙ্গত।

তবে এবারের নির্বাচন বিভিন্ন কারণে অধিক গুরুত্বপূর্ণ হওয়ায় এবং ভোটের আমেজ উপভোগ করতে অনেক প্রবাসী ভোট দিতে দেশে যাচ্ছেন। অনেকেই ইতোমধ্যে দেশে পৌঁছে প্রচারণা চালাচ্ছেন পছন্দের দল ও প্রার্থীর পক্ষে।

যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেক জানিয়েছেন, তাঁদের প্রায় ৩০০ নেতাকর্মী ভোট দিতে ও দলের প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালাতে দেশে যাচ্ছেন। অন্যদিকে যুক্তরাজ্য যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জামাল খান জানিয়েছেন, ইতোমধ্যেই তাদের অনেক নেতাকর্মী দেশে অবস্থান করছেন এবং আরো অনেকেই দেশের পথে আছেন। তবে আরো বহু সংখ্যক প্রবাসী ভোট দেওয়ার আগ্রহেই দেশে যাচ্ছেন।

ইস্ট লন্ডনের সুরমা ট্রাভেলস্ এর সাথে কথা বলে জানা যায়, আগামী ৩০ ডিসেম্বরের আগ পর্যন্ত বাংলাদেশ বিমানসহ বাংলাদেশ রুটের প্রায় সবগুলো এয়ারলাইন্সের টিকেট শেষ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত