প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘বিজ্ঞাপনটি বন্ধ করা হবে চলচ্চিত্র উন্নয়নের একটা পদক্ষেপ’

বিনোদন প্রতিবেদক : সম্প্রতি বেসরকারি মোবাইল অপারেটর রবির একটি বিজ্ঞাপন নিয়ে সমালোচনার ঝড় বইছে। শুরুতে সামাজিক মাধ্যমে সমালোচনা হলে পরবর্তীতে এটি চলচ্চিত্রের সংশ্লিষ্ট মানুষের মধ্যে পৌঁছে যায়। অভিযোগ করা হচ্ছে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে সিনেমা হলে গিয়ে সিনেমা দেখতে নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে হলমুখী দর্শকদের। বিজ্ঞাপনটিতে ঢাকার আঞ্চলিক ভাষায় সোহেল ও স্বপ্না চরিত্রে হাজির হয়েছেন দেশের দুই জনপ্রিয় তারকা চঞ্চল চৌধুরী ও নুসরাত ইমরোজ তিশা।

বিজ্ঞাপনটিতে সহজভাবে বোঝানো হচ্ছে সিনেমা হলে গিয়ে সিনেমা দেখতে হয় না। মোবাইলে ডাউনলোড করে সিনেমা দেখা যায়।

এনিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নির্মাতা অপূর্ব রানা একটি পোস্ট করেন। তার ফেসবুকে পোস্টের পর সমালোচনার তৈরি হয়। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সবাই আমরা মানুষকে সিনেমা হলে যেয়ে সিনেমা দেখতে উৎসাহিত করি সেখানে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার পাওয়া একজন শিল্পী কি করে এমন একটা বিজ্ঞাপন করেন ? সাধারণ একজন শিল্পী থেকে নিশ্চয় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার পাওয়া শিল্পীর দায়বদ্ধতা আরো বেশি।

এবিষয়ে অপূর্ব রানা আমাদের সময় ডটকমকে বলেন, ‘চলচ্চিত্রের ক্ষতি বিভিন্নভাবে করার চেষ্টা করে যাচ্ছে অনেকে। আমরা সেটা বরাবরই মোকাবেলা করছি। আর ঠিক এমন সময়ে চলচ্চিত্র বিরোধী বিজ্ঞাপন নির্মাণ কাজ করা সত্যি দুঃখজনক। একজন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার পাওয়া শিল্পীর এধরণের কাজ গ্রহণযোগ্য হয় না। ’

তিনি আরও বলেন, আমরা চলচ্চিত্র বাঁচানোর জন্য সবধরণের চেষ্টা করে যাচ্ছি। দেশের ইন্ডাস্ট্রিকে সচল রাখতে অনেক পদক্ষেপ হাতে নিয়েছি। সেসময় এরকম বাধা আসলে কথা বলতেই হয়। বিজ্ঞাপনটির বিরুদ্ধে আমরা খুব শীঘ্রই আইনের ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। তবে এখন বিজ্ঞাপনটি বন্ধ করায় হবে চলচ্চিত্র উন্নয়নের একটা পদক্ষেপ।

সিনেমা সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সিনেমার সংকটময় সময় সময়ে এমন বিজ্ঞাপন নির্মাণ করা মোটেও উচিৎ হয়নি। কারণ নতুন প্রজন্ম যারা আসছে তারা এই বিজ্ঞাপনের দ্বারা হলে আসতে নিরুৎসাহিত হবে। একারণে এধরণের বিজ্ঞাপনকে তাদের বর্জন করা উচিৎ ছিল।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ