প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বন্ধ নৌ-রুট উদ্ধারে ৩৫টি ড্রেজারসহ ১৬০টি জলযান সংগ্রহ
জানুয়ারিতে বিআইডব্লিউটি এর আন্তর্জাতিক দরপত্র আহ্বান

তরিকুল ইসলাম সুমন : দেশের ১৭৮টি নদীকে নাব্যতা সংকট থেকে নৌ-রুট উদ্ধারে ৩৫টি ড্রেজারসহ ১৬০টি জলযান সংগ্রহ করছে অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহণ কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)। এতে সরকারের ব্যয় হবে চার হাজার ৪৮৯ কোটি টাকা। আসন্ন একাদশ সংসদ নির্বাচনের পরেই জানুয়ারিতেই এ সংক্রান্ত অন্তর্জাতিক দরপত্র আহ্বান করা হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানাগেছে। ইতোমধ্যেই প্রকল্প পরিচালক হিসেবে বিআইডব্লিউটিএর প্রধান প্রকৌশলী আব্দুল মতিনকে নিয়োগ দিয়েছে নৌ পরিবহণ মন্ত্রণালয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২৩ অক্টোবর জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় অনুমোদন দেওয়া হয়েছে ‘৩৫টি ড্রেজার ও সহায়ক জলযানসহ আনুষঙ্গিক সরঞ্জামাদি সংগ্রহ এবং প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণ’ প্রকল্প। ২০২৩ সালের জুনের মধ্যে ড্রেজারগুলো সংগ্রহ করার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রকল্পটির মাধ্যমে আট হাজার কিলোমিটার নৌপথে নাব্য উন্নয়নের মাধ্যমে নিরাপদ নৌপরিবহন নেটওয়ার্ক গড়ে তোলা হবে।

প্রকল্প পরিচালক আব্দুল মতিন জানান, আমরা আন্তর্জাতিক দরপত্রের জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট ও কার্যক্রম শুরু করেছি। আশা করছি নির্বাচনের পরেই আন্তর্জাতিক দরপত্র আহ্বান করতে পারবো।

প্রকল্প সূত্র আরো জানায়, ৩৫টি ড্রেজারের মধ্যে ২৮ ইঞ্চি ২টি, ২৪ ইঞ্চি ৮টি, ২০ ইঞ্চি ৮টি, ১৮ ইঞ্চি ৯টি ও ১২ ইঞ্চি ২টি সাকশন ড্রেজার, ২টি ট্রেইলিং সাকশন হপার ড্রেজার, ২টি ওয়াটার ইনজেকশন-জেটিং ড্রেজার এবং ২টি সেলফ প্রপেল্ড পন্টুন মউনটেড গ্রাব ড্রেজার। এছাড়াও ৩৫টি কাটার সাকশন ড্রেজার ক্রেনবোট, অফিসার ও ক্রু হাউজবোট ৩৫টি, পাইপ কেরিং ডার্ম্ব বার্জ ১৫টি, টাগবোট ১৭টি, ৫টি অয়েল বার্জ, ৫টি ওয়াটার বার্জ, ১০টি সার্ভে ওয়ার্কবোট, ২টি ইন্সপেকশন ভেসেল, ১টি কেবিন ক্রুজার, ৮৬ হাজার বর্গমিটার অফিসার ও স্টাফ কোয়ার্টার এবং ডরমেটরি নির্মাণ করা হবে।

বিআইডবিøউটিএ সূত্র জানায়, বর্তমানে ২৯ টি ড্রেজার রয়েছে। এছাড়াও আরো প্রায় ১৫ টি ড্রেজার নির্মাণাধীন। প্রকল্পভুক্ত ৩৫টি ড্রেজার যুক্ত হলে ২০২৩ সাল নাগাদ দেশে মোট ড্রেজার সংখ্যা হবে ৭৯টি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত