প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ফাঁস হওয়া ফোনালাপে যা বললেন রনি…..

ডেস্ক রিপোর্ট: পটুয়াখালীর-৩ আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী গোলাম মাওলা রনির স্ত্রী কামরুন্নাহার রুনুর গাড়িতে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় তার স্ত্রী এবং বোনের স্বর্ণালংকারও লুট হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন রনি।

শনিবার (১৫ ডিসেম্বর) নেতাকর্মীদের নিয়ে পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবু তালেব মিয়ার বাড়ি থেকে ফেরার পথে রুনুর গাড়িতে এ হামলা হয়। সূত্র: বিডি পলিটিকস

সম্প্রতি আওয়ামী লীগ থেকে বিএনপিতে যোগ দিয়েই মনোনয়ন পাওয়া রনি সাংবাদিকদের বলেন, আমার স্ত্রী কামরুন্নাহার রুনু নেতা-কর্মীদের নিয়ে গলাচিপা উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবু তালেব মিয়ার বাড়িতে যান। সেখান থেকে ফেরার পথে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা লোহার রড ও রাম দা নিয়ে অতর্কিতভাবে হামলা চালায়। ভাঙচুর করে গাড়িটি। এতে গাড়ির উভয় পাশের কাচ ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে যায়। পরে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

গলাচিপা থানার পুলিশ পরিদর্শক আখতার মোর্শেদ এ বিষয়ে বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমরা তদন্ত করেছি। তদন্ত রিপোর্টে অনুসারে জানা যায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি দলীয় ধানের শীষ মার্কার প্রার্থী গোলাম মাওলা রনির স্ত্রী কামরুন নাহার রুমুসহ ৫-৬ জন মহিলা কর্মী, ‌’ঢাকা মেট্রো : চ-১৫৬০২ রেজিস্ট্রেশন নাম্বারে’র মাইক্রোবাসে নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর সময়ে গলাচিপা পৌরসভাধীন টিএনটি মোড়ে পৌঁছালে অজ্ঞাতনামা ১৫-২০ জন মাইক্রোবাসে ইটপাটকেল মেরে ও গাড়ি ভাংচুর করে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

এদিকে গোলাম মাওলার রনির গাড়িতে হামলার ঘটনার দিন ১৫ই ডিসেম্বর অজ্ঞাত কোনো এক ব্যক্তির সাথে ফোনে কথা বলেন রনি। ফোনে রনি সেই ব্যক্তিকে বলেন, হাজার হাজার কর্মী নিয়ে গলাচিপা থানায় তার আক্রান্ত গাড়িটিসহ উপস্থিত হতে। আর হাসপাতাল থেকে তার স্ত্রীকে নিয়ে এসে থানায় মামলা করার জন্য বলেন নব্য বিএনপিতে যোগ দেয়া এই নেতা। মামলা না নেয়া পর্যন্ত থানা থেকে না সরার নির্দেশ দেন তিনি।

উক্ত কল রেকর্ডটি আমাদেরসময় ডট পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত