Skip to main content

এই প্রতিবাদ প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে নয়, স্থানীয় সাংসদের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে : লতিফ সিদ্দিকী

অলক কুমার : টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীর নির্বাচনী প্রচারের গাড়িবহরে হামলার প্রতিবাদে অনশন ও অবস্থান ধর্মঘট চলছে।\\ সোমবার  টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও টাঙ্গাইল পৌরসভার মেয়র জামিলুর রহমান মিরন ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান খোরশেদ আলম দেখা করতে এলে লতিফ সিদ্দিকী বলেন, আমার অনশন প্রতিবাদ প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে নয়, সরকারের বিরুদ্ধে নয়, স্থানীয় সাংসদের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে।\ \ এসময় তিনি আরো বলেন, আমি শেখ হাসিনাকে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলতে চাই না, আমি সরকারকে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলতে চাই না। আমি চাই সুষ্ঠু সুন্দর পরিবেশে নির্বাচন। আমি যদি শেখ হাসিনাকে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলতে চাইতাম, তাহলে আমি এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ডে এই অবস্থান ধর্মঘট করতাম। তাহলে কি হত? যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যেত। আমি তা চাই নাই। আমি জনগণের জন্য রাজনীতি করি। আমি জনগণকে ভোগান্তিতে ফেলতে চাই না। সুষ্ঠু নির্বাচন হবে, প্রধানমন্ত্রীর এ আশ্বাসে তিনি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। কিন্তু নির্বাচনের পরিবেশ সুষ্ঠু নয়, ভয়াবহ। যতক্ষণ পর্যন্ত এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার ও পরিবেশ সুষ্ঠু না হবে ততক্ষণ  আমরণ অনশনে থাকব। এতে যদি মৃত্যু হয়, হবে।\ \ অভিযোগে জানা যায়, রোববার টাঙ্গাইলের কালিহাতীর ভল্লববাড়ি এলাকায় টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলা ও গাড়ি ভাঙচুর চালায় বর্তমান সাংসদ সোহেল হাজারী বাহিনী। এর প্রতিবাদে বর্তমান ওসির অপসারণ,  দোষীদের গ্রেফতার ও সরকার দলীয় প্রার্থীর নির্বাচন পর্যন্ত আর কোনো সহিংসতামূলক কার্যকলাপ করবে না মর্মে মুচলেকা প্রদান - এই তিন দফা দাবিতে লতিফ সিদ্দিকীর আমরণ অনশন ধর্মঘট চলছে। সম্পাদনা : মুরাদ হাসান\ \