প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নারায়ণগঞ্জে চলতি বছরে দেড় শতাধিক খুন, ধর্ষণের শিকার ৭২

জান্নাতুল ফেরদৌসী: রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক দিক দিয়ে সমৃদ্ধ হলেও, নারায়ণগঞ্জের পরিচিতি এখন খুন, গুম ও আতঙ্কের নগরী হিসেবে। চলতি বছর এ জেলায় খুন হয়েছেন দেড় শতাধিক মানুষ। ধর্ষণ ও গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন অন্তত ৭২ জন। জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে অপরাধ প্রবণতা যাতে না বাড়ে, সেজন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে তৎপর হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন স্থানীয়রা। পুলিশ বলছে, অপরাধীরা অনেক সময় নারায়ণগঞ্জকে মরদেহ ডাম্পিং করার ক্ষেত্র হিসেবে ব্যবহার করে। সূত্র: চ্যানেল টোয়েন্টিফোর

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতায় পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতি হলেও বছর শেষের হিসাব বলছে, খুনের ঘটনা আছে ১৬৫টি। হত্যা মামলা হয়েছে ১২২টি।

এদিকে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ সূত্রে জানা যায়, এক বছরে নারায়ণগঞ্জে ধর্ষণ ও গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন অন্তত ৭২ জন নারী ও শিশু।

এলাকাবাসী জানায়, নারায়ণগঞ্জের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি হওয়ায় সাধারণ জনগণ খুবই উদ্বেগে রয়েছে। অপরাধীদের রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতার কারণে এ জাতীয় ঘটনা বাড়ছে। গুম, খুন ও হত্যাকাণ্ডের বিচার হলে এই ধারাবাহিকতা কিছুটা রোধ হতো।

এবিষয়ে বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন নারায়ণগঞ্জ শাখার আহ্বায়ক মাহবুবুর রহমান মাসুম বলেন, জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিতের দায়িত্ব আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর। সেই সঙ্গে প্রয়োজন রাজনৈতিক স্বদিচ্ছা। রাজনৈতিক দুর্বৃত্তায়ন যখন মানুষকে জিম্মি করে রাখে। তখন অশুভ শক্তি মাথা চাড়া দিয়ে ওঠে। সেটা সরকারি বাহিনীর মধ্যেই হতে পারে।

নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান বলেন, যে কারণে গুম, খুন হচ্ছে, সেই কারণগুলো সরকার অবশ্যই চিহ্নিত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম বলেন, নারায়ণগঞ্জ বিশাল এলাকা, শুধুমাত্র পুলিশ দিয়ে নিরাপত্তা দেয়া সম্ভব না। বিভিন্ন জায়গায় নিরাপত্তার জন্য সিসি টিভি, চেক পোস্ট বসানো হয়েছে। জনগণের সহযোগিতা পেলে এটা অনেক ক্ষেত্রে সম্ভব হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত