প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইস্ট-নর্থের ড্র’র দিনে মুমিনুলের আক্ষেপ

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) চতুর্থ রাউন্ডে রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয় ইস্ট জোন এবং নর্থ জোন। চার দিনের ম্যাচটি নিষ্প্রাণ ড্র হলেও ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে ইস্ট জোনের রনি তালুকদার, মোহাম্মদ আশরাফুল, আবু জায়েদ রাহি, নর্থ জোনের সানজামুল ইসলাম, নাঈম ইসলাম আর মুমিনুল হকরা।

নিজেদের প্রথম ইনিংসে ইস্ট জোন সবকটি উইকেট হারিয়ে তোলে ৪৬৬ রান। জবাবে, নর্থ জোন নিজেদের প্রথম ইনিংসে সবকটি উইকেট হারিয়ে তোলে ৩৭৭ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে ৪ উইকেট হারিয়ে ৩৬২ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে ইস্ট জোন। তাতে নর্থ জোনের সামনে টার্গেট দাঁড়ায় ৪৫২। ১৬ ওভারে এক উইকেট হারিয়ে ১১৬ রান তোলে নর্থ জোন। এরপর ম্যাচটি ড্র বলে মেনে নেয় দুই দল।

প্রথম ইনিংসে ইস্ট জোনের ওপেনার সাদিকুর রহমান রান না করেই বিদায় নেন। আরেক ওপেনার রনি তালুকদার ডাবল সেঞ্চুরির পথে থাকলেও দ্বিতীয় দিন ব্যাটিংয়ে নেমে ২৪৫ বলে ১৯টি চার আর ৫টি ছক্কায় ১৮৫ রান করে আউট হন। তিন নম্বরে নামা মুমিনুল হক ২৬ রান করে সাজঘরে ফেরেন।

মাঝে মাহমুদুল হাসান করেন ২৯ রান। বিসিএলে প্রথম দিকে দল না পাওয়া মোহাম্মদ আশরাফুল ২৫১ বলে ১৫টি চারের সাহায্যে করেন দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৩৬ রান। তাসামুল হক ১৯, তাইজুল ইসলাম ৩৭ রান করেন। নর্থ জোনের স্পিনার সানজামুল ইসলাম ৫টি, সোহাগ গাজী ও পেসার এবাদত হোসেন দুটি এবং ইমরান আলি একটি করে উইকেট পান।

নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে নর্থ জোনের ওপেনার জহুরুল ইসলাম ১২৪ বলে করেন ৬৫ রান। আরেক ওপেনার জুনায়েদ সিদ্দীকি ৭৮ বলে করেন ৫১ রান। ফরহাদ হোসেন ৬৪ রানে বিদায় নিলেও নাঈম ইসলাম ২৪৩ বলে করেন ১০০ রান। ধীমান ঘোষের ব্যাট থেকে আসে ৬৮ রান। ইস্ট জোনের হয়ে পেসার আবু জায়েদ রাহি তুলে নেন ছয়টি উইকেট। এছাড়া, এনামুল হক জুনিয়র দুটি তাইজুল ও হাসান মাহমুদ একটি করে উইকেট পান।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে ইস্ট জোনের ওপেনার রনি তালুকদার ১৬ এবং সাদিকুর রহমান ৩৬ রান করে বিদায় নেন। মাঝে মাহমুদুল হাসান ৮৩ রানের দারুণ ইনিংস খেলে সাজঘরে ফেরেন। ১৯০ বলে ২৩টি চার আর তিনটি ছক্কায় ১৯৪ রান করে বিদায় নেন ১৭তম সেঞ্চুরি করা মুমিনুল হক। ১০২.১০ স্ট্রাইকরেটে ব্যাট চালানো মুমিনুলের ৬ রানের জন্য আরেকটি ডাবল সেঞ্চুরি মিসের আক্ষেপ থেকে যেতেই পারে। মোহাম্মদ আশরাফুল ৫২ বলে ১৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।

নর্থ জোনের সানজামুল ইসলাম তিনটি, তানভীর হায়দার একটি করে উইকেট তুলে নেন। ৪৫২ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে নর্থ জোনের ওপেনার ও দলপতি জহুরুল ইসলাম ব্যক্তিগত ১৫ রানে বিদায় নেন। তাইজুলের বলে আশরাফুলের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। আর কোনো উইকেট হারায়নি নর্থ জোন। আরেক ওপেনার জুনায়েদ সিদ্দিকী ৫১ এবং ফরহাদ হোসেন ৫০ রান করে অপরাজিত থাকেন। এরপরই ম্যাচটি ড্র বলে ঘোষণা করা হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত