প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘রাজনীতি বারবার হোঁচট খাচ্ছে স্বাধীনতা বিরোধীদের কাছে’

সাজিয়া আক্তার : যুদ্ধাপরাধী বা তাদের স্বজনদের নির্বাচনে অংশ নিতে দেখে ক্ষুদ্ধ সাধারণ মানুষ। এদেরকে নির্বাচনে প্রত্যাখান করতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তারা। রাষ্ট্র, সরকার কিংবা গুরুত্বপূর্ণ পদে স্বাধীনতা বিরোধীরা আর নয়, এমন দাবি উঠে আসে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের শ্রদ্ধা জানাতে আসা মানুষের কণ্ঠে। ৭১ জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান শহীদের শ্রদ্ধা জানাতে এসে এরকমই ছিলো তাদের অভিব্যক্তি। ফুলেল শ্রদ্ধা আর নানা আনুষ্ঠানিকতায় তারা স্বরণ করলো ৭১ শহীদ বুদ্ধিজীবীদের। সূত্র : এটিএন নিউজ

চুপি চুপি নয়, সগৌরবেই জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানরা যেনো ফিরে আসে বার বার। সুখে দুঃখে জাতি অকুণ্ঠ চিত্তে ফিরে যায় তাদের কাছেই। নানাভাবে নানা সময়ে স্বরণ করে তাদেরকে। যারা দেশকে ভালোবেসে প্রাণ দিয়ে গেছেন। ভোরের আলো ফোটার আগে থেকেই বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক-সাং¯ৃ‹তিক, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ছোট বড় সব শ্রেণির, সব বয়সের মানুষ আসতে থাকে শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে।

যাদের পরিকল্পনায় হত্যা করা হয়েছিলো জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের, সেই নাটের গুরুদের সঙ্গে নিয়ে নির্বাচনী ঐক্যের পাশাপাশি যুদ্ধাপরাধী জামায়াতী ইসলামী নেতাদের রাজনীতি পূর্নবাসনের চেষ্টা কেনো? এমন প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল হোসেন বলেন, কতো পয়সা পেয়েছো এই প্রশ্নগুলো করতে? কার কাছ থেকে পয়সা পেয়েছো? পয়সা পেয়ে শহীদ মিনারকে অশ্রদ্ধা করো তোমরা। চুপ করো, খামোশ।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আর শহীদ বেদিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ কতোটা মন থেকে আর কতোটা লোক দেখানো, এমন প্রশ্ন এখন সাধারণ মানুষের।

শহীদ বুদ্ধিজীবীদের শ্রদ্ধা জানাতে আসা মানুষেরা বলেছেন, স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি এখন পর্যন্ত সক্রিয়, সেই জায়গায় রাজনীতি বারবার হোঁচট খাচ্ছে। ৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ, শহীদ বুদ্ধিজীবীদের ছাড়া বাংলাদেশ হয় না। যুদ্ধাপরাধী তাদের মুখোশ পাল্টায়, তবে তাদের আদর্শ পাল্টায় না। জামায়াতে ইসলাম ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচন করছে এটা বাঙালি হিসেবে আমাদের জন্য দুঃখজনক। আমরা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের কথা বলে এই দেশটাকে যারা ছারখার করতে চাইছে তাদেরকেই আবার নির্বাচনে দাঁড় করাই, এটাই আমাদের সবচেয়ে বড় ভুল।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত