প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নির্বাচনী হাওয়া সারা দেশে
জটিল সমীকরণে জোট-মহাজোট

বিডি-প্রতিদিন : খুলনায় জটিল সমীকরণে আটকে গেছে মহাজোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীরা। ভোটের মাঠে শরিক জাতীয় পার্টি মাথাব্যথার কারণ হয়েছে মহাজোটের। সেই সঙ্গে খুলনা-৪ ও ৬ আসনে আওয়ামী লীগে রয়েছে দলীয় বিভেদ। অপরদিকে খুলনা-৫ ও ৬ আসনে জামায়াতকে নিয়ে অস্বস্তি থাকায় প্রচার-প্রচারণায় ‘ধীরে চলো’ নীতি গ্রহণ করেছে বিএনপি। বড় শোডাউন, গণজমায়েত কর্মসূচি বাতিল করে এলাকাভিত্তিক প্রচারণায় জোর দিয়েছে দলটি।

খুলনা-২ আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেন, ‘আমরা এখনই বড় কর্মসূচির দিকে যাচ্ছি না। নেতা-কর্মীদের মধ্যে গ্রেফতার আতঙ্ক রয়েছে। মিথ্যা মামলায় শ্যোন এরেস্ট দেখিয়ে অনেককে কারাগারে আটক রাখা হয়েছে। প্রশাসনের অবস্থান বুঝে পদক্ষেপ নেবে বিএনপি।’  আর প্রচারণায় দলের কৌশলী অবস্থান নিয়ে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এসএম কামাল হোসেন বলেন, খুলনার দাকোপ, বটিয়াঘাটা ও তেরখাদায় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের মধ্যে যে দূরত্ব ছিল তা কমিয়ে আনা হয়েছে। নৌকার পক্ষে ভোট চেয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে তারা মাঠে থাকবেন।

জানা যায়, সর্বশেষ ২০০৮ সালে খুলনায় সংসদ নির্বাচনে বড় দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি মুখোমুখি হয়েছিল। ওই নির্বাচনে খুলনার ছয়টি আসনের মধ্যে আওয়ামী লীগ ৫টি ও বিএনপি ১টি আসন পায়। আর ২০১৪ সালের সংসদ নির্বাচনে সবকটি আসনেই জয় পায় আওয়ামী লীগ। তবে এবার খুলনা-১, ৫ ও ৬ আসনে মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টি (জাপা) পাল্টা প্রার্থী দেওয়ায় নেতা-কর্মীদের মধ্যে অস্বস্তি রয়েছে।  আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় নেতা এসএম কামাল হোসেন বলেন, জাতীয় পার্টি নির্বাচনে অন্তরায় হবে না। তারা একটা পর্যায়ে হয়তো নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াবে। এদিকে ধানের শীষকে বিজয়ী করতে খুলনা-৫ ও ৬ আসনে জামায়াতকে নিয়ে অস্বস্তি দূর হয়েছে দাবি করেছেন জেলা বিএনপির সভাপতি শফিকুল আলম মনা। তিনি বলেন, তৃণমূলে কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ করতে ডুমুরিয়া, ফুলতলা ও পাইকগাছায় সমন্বয় বৈঠকের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত