প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কুড়িগ্রাম-৪ আসন
ইমরান এইচ সরকারের গণসংযোগ ও নির্বাচনী ইশতেহার

সৌরভ কুমার ঘোষ, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: মোটরগাড়ি প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন গণজাগণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার। প্রতীক পাওয়ার পর থেকেই নিজের গ্রাম বালিয়ামারী বাজার, মাস্তান মোড় ও রাজীবপুর বাজার, চরশৌলমারী, কর্ত্তীমারীর চর, দাতভাংগার চর সহ ব্রহ্মপুত্রের বিভিন্ন চরে পর্যায়ক্রমে যাচ্ছেন তিনি। এসময় মানুষের সাথে কুশল বিনিময় এবং তাঁর নির্বাচনী ইশতেহার সংবলিত লিফলেট বিতরণ করছেন।

কুড়িগ্রাম-৪ আসনে (রৌমারী, রাজীবপুর ও চিলমারী) স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে গণসংযোগের সময় ইমরান এইচ সরকার ভোটারদের মতামত গ্রহণ করছেন। গণসংযোগ কালে তাঁর নির্বাচনে আসার কারন তিনি ভোটারদের কাছে তুলে ধরেন এবং নির্বাচিত হলে তিনি এলাকার জন্য কী উদ্যোগ গ্রহণ করবেন তার এক লিফলেট ভোটারদের হাতে তুলে দেন।

ইমরান এইচ সরকার- এর নির্বাচনী ইশতেহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ব্রহ্মপুত্র ও সোনাভরি নদের অব্যাহত ভাঙ্গন প্রতিরোধে এবং রৌমারী রাজীবপুর উপজেলাকে রক্ষা করতে ব্রহ্মপুত্র নদের বাম তীরে বাঁধ নির্মাণসহ নদে ড্রেজিংয়ের উদ্যোগ নেয়া হবে। রৌমারী, রাজীবপুর ও চিলমারী উপজেলায় দুটি আলাদা বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলে বেকার নারী ও যুবকদের ব্যাপক কর্মসংস্থান নিশ্চিত করা হবে। চিলমারী নৌ বন্দর এবং রৌমারী সীমান্তে স্থল বন্দরকে কার্যকর এবং আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করা হবে। নির্বাচনী এলাকায় বিদ্যুৎ সমস্যা চিরতরে নিরসন করা হবে। নিজ জেলার সঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ করার ক্ষেত্রে সুবিধাজনক স্থানে ফেরি সার্ভিস চালু এবং পরবর্তীতে সেতু নির্মাণ করা।

রাজধানীর সঙ্গে রৌমারী রাজীবপুরে সরাসরি রেল যোগাযোগ স্থাপন করা। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলো আধুনিক ও চিকিৎসা ব্যবস্থা উন্নত করা হবে। এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আধুনিক ও উন্নত শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করাসহ নন এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহকে এমপিও ভুক্তির উদ্যোগ নেওয়া হবে। সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পর্যাপ্ত ভবন ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করা হবে। দুর্গম চর গুলোতে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুতের ব্যবস্থাসহ জীবনমান উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনীয় সব ধরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তরুণদের দক্ষ জনশক্তি হিসেবে গড়ে তুলতে পর্যাপ্ত কম্পিউটার ও কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। সরকারি খরচে বিদেশে জনশক্তি রপ্তানির মাধ্যমে এলাকার বেকারত্ব নিরসন ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের সব রকম উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।

গণসংযোগ কালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ইমরান এইচ সরকার বলেন, আমার নির্বাচনী কার্যক্রম আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু করেছি নিজের গ্রাম থেকেই। মুক্তিযুদ্ধের মুক্তাঞ্চল হিসাবে খ্যাত পশ্চাৎপদ অবহেলিত এ এলাকার উন্নয়নে নিজেকে নিয়োজিত করতে চাই। আর এটাই হলো আমার সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়ার অন্যতম কারণ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত