প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জীবননগরে ইউপি সদস্যর ভাইয়ের বিরুদ্ধে শিশু ধর্ষণের অভিযোগ

জামাল হোসেন খোকন, চুয়াডাঙ্গা : চুয়াডাঙ্গা জীবননগর উপজেলার নিশ্চিন্তপুর গ্রামে এক হতদরিদ্র পরিবারের শিশু কন্যাকে সাবেক মেম্বার জুলফিক্কারের ভাই ইসলাম ডান্টা শনিবার বিকালে ফুঁসলিয়ে মাঠের ভিতরে একটি ভুট্টা ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। জুলফিক্কার মেম্বারের বিরুদ্ধেও একই গ্রামের এক হতদরিদ্র নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছিল। এ ঘটনায় জীবননগর থানায় ধর্ষকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

এলাকাবাসী সুত্র জানান, জীবননগর উপজেলার আন্দুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর মাঝেরপাড়ার হতদরিদ্র শুকুর আলী ওরফে খোকনের কন্যা আরিফা খাতুন(১২) প্রায়ই ছাগলের জন্য ঘাস সংগ্রহ করতে বাড়ীর পার্শ্ববর্তী মাঠে যায়। আরিফা খাতুন প্রতিদিনের মত গত শনিবারও বিকাল সাড়ে চারটার দিকে বাড়ীর অদুরে কামারী জোল মাঠে ঘাস কাটতে মাঠে যাওয়ার সময় একই গ্রামের মৃত ইউসুফ আলী ডান্টার ছেলে ইসলাম ডান্টার(৪৮) নজরে আসে।

ইসলাম ডান্টা তার যৌন কামনা চরিতার্থ করতে শিশু আরিফা খাতুনকে প্রলোভন দিয়ে বলে ঘাস কাটা লাগবে না, আমার সাথে চল আমি তোকে পাতা পেড়ে দেব। সরল বিশ্বাস পাতা পাওয়ার আশায় লম্পট ইসলাম ডান্টার সাথে যেতে থাকে। কিন্তু ইসলাম ডান্টা নির্দিষ্ট গন্তব্যস্থলের বাইরে আরো কিছু দুরে একটি ভুট্টা ক্ষেতের মধ্যে নিয়ে যায় এবং তার ইচ্ছা বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে এবং তার হাতে ২০ টাকা দিয়ে তাকে নানা ভাবে হুমকি ধামকী দেয় ঘটনাটি অন্য কাউকে না বলার জন্য।

কিন্তু তাদের দু’জনকে মাঠের ভিতরে একটি ভুট্টা ক্ষেত থেকে বের হতে দেখে ঘটনাস্থলের অদুরে থাকা অন্য এক নারী। ঘটনাটি প্রত্যক্ষদর্শী ওই নারী এলাকায় প্রকাশ করলে আলোচনায় উঠে আসে।

পরবর্তীতে ধর্ষিতার পরিবার ব্যাপারটি নিশ্চিত হয়ে বুধবার দুপুরে ঘটনার ব্যাপারে একটি মামলা করা হয়েছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ ধর্ষক ইসলাম ডান্টার বড় ভাই সাবেক মেম্বার জুলফিক্কারও একই গ্রামের এক হতদরিদ্র নারীকে ফুঁসলিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে জেল খেটেছিল।

আন্দুলবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বার মাফিজুল ইসলাম মাফি ঘটনার কথা স্বীকার করে বলেন, ইসলাম ডান্টা ও তার পরিবারের লোকজন আমার নিকট এসেছিল ঘটনাটি গোপনে মিটিয়ে দেয়ার জন্য। কিন্তু আমি তাদেরকে বলেছি ঘটনাটি শিশু ধর্ষণ, আমি মিটিয়ে দিলে পরে আমাকেই বিপদে পড়তে হবে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাটি তদন্ত করে গেছেন। তবে ঘটনাটি ন্যাক্কারজনক।

জীবননগর থানার সাব-ইন্সপেক্টর জাহিদুল ইসলাম জাহিদ বলেন, ঘটনার ব্যাপারে থানায় একটি মামলা হয়েছে। আমি মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা। ঘটনাটি তাৎক্ষণিক ভাবে তদন্ত শেষে লম্পট ইসলাম ডান্টাকে গ্রেফতারের চেষ্টা করি। কিন্তু পলাতক থাকায় গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। তবে ভিকটিম আরিফা খাতুনের আজ বৃহস্পতিবার সকালে ডাক্তারি পরিক্ষা ও আদালতে তার জবানবন্দী রেকর্ড করা হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত