প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জাতীয় পার্টি নির্বাচনের আগে দোদুল্যমানতায় ভোগে : মে. জে. (অব.) আব্দুর রশিদ

ফাহিম বিজয় : নিরাপত্তা ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব.) আবদুর রশিদ বলেছেন, জোট করার পরেও যদি জোটের সিদ্ধান্তের বাইরে কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয় তাহলে সেটি সুখকর কোনো বিষয় নয়। জোট গঠনের পরেও যদি এককভাবে কেউ প্রার্থী দেন তাহলে সমাজে বা এলাকায় ভাবমূর্তি ক্ষুণœ হয়। সব সময় দেখা যায় যে, জাতীয় পার্টি নির্বাচনের আগে দোদুল্যমানতায় ভোগে এবং নির্বাচনে বেশি সুযোগ পাওয়ার চেষ্টা করে।  সে ক্ষেত্রে এখনো নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না যে, জাতীয় পার্টি আসলে কী চাচ্ছে।

এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকারের শাসনামলে বাংলাদেশ সবদিক থেকেই ভালো ছিলো। জঙ্গিবাদ, নিরাপত্তা ব্যবস্থাও অনেক ভালো। দুনিয়ার অনেক রাষ্ট্রই জঙ্গিবাদ আছে, কিন্তু আমাদের এখানে জঙ্গিরা মাথা তুলে দাঁড়াতে পারে না। সরকার জঙ্গিদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের ফলে স্বস্তি আছে এখন বাংলাদেশ। অথচ আমরা একটু পেছনে ফিরে গেলেই দেখি বিএনপি- জোট শাসনামলের দুঃসহ স্মৃতি। সেই দুঃসহ স্মৃতিতে ফিরে যেতে চায় কে? মানুষ বিএনপি-জামায়াত জোট আমলের শাসন সম্পর্কে জানে এবং বর্তমান সরকারের শাসনামলের অগ্রগতির বাংলাদেশকে জানেÑ দুটি পাশাপাশি রেখে মূল্যায়ন করলে তারা সঠিক সিদ্ধান্তটি নিতে পারবে বলে মনে হয়।

এক প্রশ্নের জবাবে মেজর জেনারেল আবদুর রশিদ বলেন, নির্বাচনকে আমি নির্বাচনের মতো করেই দেখছি। যদিও দুয়েকটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটেছে তার বাইরে আর কিছুই হয়নি। আমি মনে করি, নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে গেলে কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটবেই। বর্তমানে অস্বাভাবিক কিছুই দেখছি না। নির্বাচনের স্বাভাবিক পরিবেশ নেই এই প্রচারটির নামে জনগণকে ক্ষিপ্ত করে তোলাটাই একটি নির্বাচনী কৌশল। ভোটের কৌশল হিসেবেই বিরোধীপক্ষ এটি বেশি প্রচার করছে বলে মনে হচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত