প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কুলাউড়ায় ছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টায় ২জন আটক

স্বপন দেব, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি : মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় সকালে প্রাইভেট পড়ে সিএনজি অটোরিকশায় করে বাড়ি ফিরছিলেন কুলাউড়ার জনতাবাজার এক কলেজ ছাত্রী (১৯)। সেসময় ওই অটোরিকশায় ওঠে চালকের এক সহযোগী। একপর্যায়ে চালক গাড়িটি নিয়ে ছাত্রীর নির্দিষ্ট গন্তব্য এড়িয়ে মৌলভীবাজার সড়কের দিকে চলে যেতে থাকেন। এ অবস্থায় ওই ছাত্রী এর কারণ জানতে চাইলে সিএনজি চালক কিছু না বলে একই পথে চলতে থাকে। এঅবস্থায় ছাত্রীর সন্দেহ হলে সে চলন্ত গাড়ি থেকে লাফ দিয়ে রাস্তার পাশে পড়ে যায়।

মঙ্গলবার মৌলভীবাজারের কুলাউড়া পৌর শহরের নবীন চন্দ্র সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর ভাই বাদী হয়ে কুলাউড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

আহত ছাত্রী কুলাউড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। ঘটনাটি দেখে এলাকাবাসী গাড়িসহ ওই চালক আমির উদ্দিন (১৯) ও তার সহযোগী সুফিয়ান (১৮)-কে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছেন। তারা দুজনই পাশ্ববর্তী বড়লেখা উপজেলার বাসিন্দা। বর্তমানে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

স্থানীয় লোকজন ও ছাত্রীর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে জানা যায়, মেয়েটির বাড়ি উপজেলার সদর ইউনিয়নের জনতা বাজার গ্রামে। তিনি কুলাউড়া ডিগ্রি কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণির প্রথম বর্ষের বিজ্ঞান বিভাগে পড়েন। মঙ্গলবার সকালে সে কুলাউড়া পৌর শহরে এক কলেজ শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়তে যান। সকাল ১০টার দিকে জনতাবাজারে ফেরার সময় নির্ধারিত স্ট্যান্ডে গিয়ে একটি সিএনজি অটোরিকশায় ওঠেন। একপর্যায়ে আর কোন যাত্রী না নিয়ে চালক আমির উদ্দিন (১৯) গাড়ি ছেড়ে দেন। কিছু সামনে যাওয়ার পর চালকের সহযোগী সুফিয়ান (১৮) গাড়ির পেছনে ওঠেন। নবীন চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় চৌমুহনা মোড়ে গিয়ে গাড়িটি মৌলভীবাজার সড়কের দিকে রওনা দেয়। এসময় ছাত্রী কারণ জানতে চাইলে চালক সদুত্তর দিতে পারেননি। এতে ছাত্রীর সন্দেহের সৃষ্টি হয়। পরে ওই ছাত্রী চলন্ত গাড়ি থেকে লাফ দেন। আশেপাশের লোকজন ছুটে গিয়ে তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে পাঠান। আমির ও সুফিয়ানকে ধাওয়া করে গাড়িসহ আটক করা হয়। তাদের বাড়ি পাশ্ববর্তী বড়লেখা উপজেলায়।

কুলাউড়া থানার এসআই ইয়াছিন মিয়া বলেন, স্থানীয় লোকজন অটোরিকশাসহ দুইজনকে পুলিশে সোপর্দ করেছেন। এ ঘটনায় ছাত্রীর ভাই অপহরণের একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত