প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দুই শতাধিক আসনে মহাজোট বনাম বিএনপির যারা লড়াই করবেন

আবুল বাশার নূরু : পঞ্চগড়-১ আওয়ামী লীগের মাজহারুল হক প্রধানের প্রতিদ্বন্দ্বি  বিএনপির নওশদ জমির। পঞ্চগড়-২ আওয়ামী লীগের নুরুল ইসলাম সুজন বনাম বিএনপির ফরহাদ হোসেন আজাদ।

ঠাকুরগাঁও-১ আওয়ামী লীগের রমেশ চন্দ্র্র সেন, বিএনপির মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ঠাকুরগাঁও-৩ ওয়ার্কার্স পার্টির (মহাজোট) ইয়াসিন আলী বনাম বিএনপির জাহিদুর রহমান। দিনাজপুর-২ আওয়ামী লীগের খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বনাম বিএনপির সাদিক রিয়াজ পিনাক। দিনাজপুর-৪ আওয়ামী লীগের এইচ এম মাহমুদ আলী বনাম বিএনপির আকতারুজ্জামান মিয়া। দিনাজপুর-৫ আওয়ামী লীগের মোস্তাফিজুর রহমান বনাম বিএনপির এ জেড এম রেজওয়ানুল হক। নীলফামারী-১ আওয়ামী লীগের আফতাব উদ্দিন সরকার বনাম বিএনপির রফিকুল ইসলাম চৌধুরী। রংপুর-২ আওয়ামী লীগের আবুল কালাম মোহাম্মদ আহসানুল হক, বিএনপির মোহাম্মদ আলী সরকার। এখানে জাতীয় পার্টির প্রার্থীও রয়েছেন। রংপুর-৩ জাতীয় পার্টির হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ, বিএনপি শরিক রিটা রহমান (শরিক)। রংপুর-৪ আওয়ামী লীগের টিপু মুন্সি, বিএনপির এমদাদুল হক ভরসা। এখানে জাতীয় পার্টিও প্রার্থী রয়েছে। রংপুর-৬ আওয়ামী লীগের শিরীন শারমিন চৌধুরীর, বিএনপির সাইফুল ইসলাম। কুড়িগ্রাম-১ জাতীয় পার্টির মোস্তাফিজুর রহমান ও বিএনপির সাইফুর রহমান রানা। কুড়িগ্রাম-৩ জাতীয় পার্টির আক্কাস আলী সরকার বনাম বিএনপির তাজবিরুল ইসলাম। কুড়িগ্রাম-৪ জেপির রুহুল আমিন বনাম বিএনপির আজিজুর রহমান। লালমনিরহাট-১ আওয়ামী লীগের মোতাহার হোসেন বনাম বিএনপির রাজিব প্রধান। লালমনিরহাট-২ আওয়ামী লীগের নুরুজ্জামান মাহমুদ বনাম বিএনপির রোকনউদ্দিন বাবুল। লালমনিরহাট-৩ জাতীয় পার্টির জি এম কাদেও বনাম বিএনপির আসাদুল হাবিব দুলু। গাইবান্ধা-৪ আওয়ামী লীগের মনোয়ার হোসেন বনাম বিএনপির ফারুক কবির আহমেদ। গাইবান্ধা-৫ আওয়ামী লীগের ফজলে রাব্বী মিয়া বনাম বিএনপির ফারুক আলম সরকার। জয়পুরহাট-১ আওয়ামী লীগের শামসুল আলম দুদু বনাম বিএনপির ফজলুর রহমান। জয়পুরহাট-২ আওয়ামী লীগের আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন বনাম বিএনপি আবু ইউসুফ মো. খলিলুর রহমান। বগুড়া-১ আওয়ামী লীগের আবদুল মান্নান বনাম বিএনপির কাজী রফিকুল ইসলাম। বগুড়া-৪ জাসদের এ কে এম রেজাউল করিম তানসেন বনাম বিএনপির মোশাররফ হোসেন। বগুড়া-৫ আওয়ামী লীগের হাবিবুর রহমান বনাম বিএনপির জি এম সিরাজ। রাজশাহী-১ আওয়ামী লীগের ওমর ফারুক চৌধুরী বনাম বিএনপির আমিনুল হক। রাজশাহী-২ ওয়ার্কার্স পার্টির ফজলে হোসেন বাদশা বনাম বিএনপির মিজানুর রহমান মিনু। রাজশাহী-৩ আওয়ামী লীগের আয়েন উদ্দিন বনাম বিএনপির শফিকুল হক মিলন। রাজশাহী-৪ আওয়ামী লীগের এনামুল হক বনাম বিএনপির আবু হেনা। রাজশাহী-৫ আওয়ামী লীগের মনসুর রহমান বনাম বিএনপির নজরুল ইসলাম। রাজশাহী-৬ আওয়ামী লীগের শাহরিয়ার আলম বনাম বিএনপির আবু সাঈদ চাঁদ। চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ আওয়ামী লীগের সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল বনাম বিএনপির শাজাহান মিয়া। চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আওয়ামী লীগের জিয়াউর রহমান বনাম বিএনপির আমিনুল ইসলাম। চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আওয়ামী লীগের আবদুল ওদুদ বনাম বিএনপির হারুন অর রশিদ। এই আসনে জামায়াতেরও একজন প্রার্থী আছেন। নাটোর-১ আওয়ামী লীগের শহীদুল ইসলাম বকুল বনাম বিএনপির কামরুন্নাহার শিরীন। নাটোর-২ আওয়ামী লীগের শফিকুল ইসলাম শিমুল বনাম বিএনপির সাবিনা ইয়াসমিন ছবি। নাটোর-৩ আওয়ামী লীগের জুনাইদ আহমেদ পলক, বিএনপির দাউদার মাহমুদ। নাটোর-৪ আওয়ামী লীগের আবদুল কুদ্দুছ, বিএনপির আবদুল আজিজ। নওগাঁ-১ আওয়ামী লীগের সাধন চন্দ্র মজুমদার, বিএনপির মোস্তাফিজুর রহমান। নওগাঁ-২ আওয়ামী লীগের শহীদুজ্জামান সরকার, বিএনপির শামসোজ্জাহা খান। নওগাঁ-৩ আওয়ামী লীগের সলিমউদ্দিন তরফদার, বিএনপির পারভেজ আরেফিন সিদ্দিকী। নওগাঁ-৪ আওয়ামী লীগের ইমাজউদ্দিন প্রামাণিক, বিএনপির আবুল হায়াত মোহাম্মদ শামসুল আলম প্রামাণিক। নওগাঁ-৫ আওয়ামী লীগের নিজামউদ্দিন জলিল জন, বিএনপির জাহিদুল ইসলাম ধলু। নওগাঁ-৬ আওয়ামী লীগের ইসরাফিল আলম, বিএনপির আলমগীর কবির। সিরাজগঞ্জ-১ আওয়ামী লীগের মোহাম্মদ নাসিম, বিএনপির রোমানা মোর্শেদ কনক চাঁপা। সিরাজগঞ্জ-৩ আওয়ামী লীগের আবদুল আজিজ, বিএনপির আবদুল মান্নান তালুকদার। সিরাজগঞ্জ-৫ আওয়ামী লীগের আবদুল মোমিন, বিএনপির আমিরুল ইসলাম খান। সিরাজগঞ্জ-৬ আওয়ামী লীগের হাসিবুর রহমান স্বপন, বিএনপির কামরুদ্দিন ইয়াহিয়া মজলিস।

পাবনা-২ আওয়ামী লীগের আহমেদ ফিরোজ কবির, বিএনপির এ কে এম সেলিম রেজা হাবিব। পাবনা-৩ আওয়ামী লীগের মকবুল হোসেন, বিএনপির কে এম আনোয়ারুল ইসলাম। পাবনা-৪ আওয়ামী লীগের শামসুর রহমান শরিফ ডিলু, বিএনপির হাবিবুর রহমান হাবিব।

খুলনা-১ আওয়ামী লীগের পঞ্চানন বিশ্বাস, বিএনপির আমির এজাজ খান। খুলনা-২ আওয়ামী লীগের শেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল, বিএনপির নজরুল ইসলাম মঞ্জু। খুলনা-৩ আওয়ামী লীগের বেগম মুন্নুজান সুফিয়ান, বিএনপির রকিবুল ইসলাম বকুল। খুলনা-৪ আওয়ামী লীগের আবদুস সালাম মুর্শেদী, বিএনপির আজিজুল বারী হেলাল। বাগেরহাট-১ আওয়ামী লীগের শেখ হেলাল উদ্দিন, বিএনপির শেখ মাসুদ রানা। বাগেরহাট-২ আওয়ামী লীগের শেখ সারহান নাছের তন্ময়, বিএনপির এম এ সালাম। যশোর-১ আওয়ামী লীগের শেখ আফিল উদ্দিন, বিএনপির মফিকুল হাসান তৃপ্তি। যশোর-৩ আওয়ামী লীগের কাজী নাবিল আহমেদ, বিএনপির অনিন্দ্য ইসলাম অমিত। যশোর-৪ আওয়ামী লীগের রণজিৎ কুমার রায়, বিএনপির টি এস আইয়ুব। যশোর-৬ ইসমত আরা সাদেক, বিএনপির আবুল হোসেন আজাদ। চুয়াডাঙ্গা-১ আওয়ামী লীগের সোলায়মান হক জোয়ার্দার ছেলুন, বিএনপির শরিফুজ্জামান। চুয়াডাঙ্গা-২ আওয়ামী লীগের আলী আসগর টগর, বিএনপির মাহমুদ হাসান খান বাবু। মাগুরা-১ আওয়ামী লীগের সাইফুজ্জামান শিখর, বিএনপির মনোয়ার হোসেন খান। মাগুরা-২ আওয়ামী লীগের বীরেন শিকদার, বিএনপির নিতাই রায় চৌধুরী। মেহেরপুর-১ আওয়ামী লীগের ফরহাদ হোসেন, বিএনপির মাসুদ অরুণ। মেহেরপুর-২ আওয়ামী লীগের সহীদুজ্জামান খোকন, বিএনপির জাবেদ মাসুদ মিল্টন। নড়াইল-১ আওয়ামী লীগের কবিরুল হক মুক্তি, বিএনপির এস এম সাজ্জাদ হোসেন। নড়াইল -২ আওয়ামী লীগের মাশরাফি বিন মোর্তজা, আসনটি বিএনপি জোটের শরিক দলের জন্য রেখেছে। কুষ্টিয়া-১ আওয়ামী লীগের আ ক ম সারোয়ার জাহান, বিএনপির রেজা আহমেদ বাচ্চু মোল্লা। কুষ্টিয়া-৩ আওয়ামী লীগের মাহবুব উল আলম হানিফ, বিএনপির জাকির হোসেন সরকার। কুষ্টিয়া-৪ আওয়ামী লীগের সেলিম আলতাফ জর্জ, বিএনপির সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী। ঝিনাইদহ-২ আওয়ামী লীগের তাহজিব আলম সিদ্দিকী, বিএনপির আবদুল মজিদ। ঝিনাইদহ-৪ আওয়ামী লীগের আনোয়ারুল আজিম আনার, বিএনপির সাইফুল ইসলাম ফিরোজ।
বরিশাল-১ আওয়ামী লীগের আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ, বিএনপির জহির উদ্দিন স্বপন।

বরিশাল-২ আওয়ামী লীগের শাহে আলম, বিএনপির শরফুদ্দীন আহমেদ সান্টু। বরিশাল-৩ ওয়ার্কার্স পার্টির শেখ টিপু সুলতান, বিএনপির জয়নুল আবেদীন। বরিশাল-৪ আওয়ামী লীগের পংকজ দেবনাথ, বিএনপি মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ। বরিশাল-৫ আওয়ামী লীগের জাহিদ ফারুক শামীম, বিএনপির মজিবুর রহমান সরোয়ার। বরিশাল-৬ জাতীয় পার্টির নাসরিন জাহান, বিএনপির আবুল হোসেন খান। পটুয়াখালী-১ আওয়ামী লীগের শাহাজান মিয়া, বিএনপির আলতাফ হোসেন চৌধুরী। পটুয়াখালী-৩ আওয়ামী লীগের এস এম শাহজাদা, বিএনপির গোলাম মাওলা রনি। পটুয়াখালী-৪ আওয়ামী লীগের মহিবুর রহমান মুহিব, বিএনপির এবিএম মোশাররফ হোসেন। ভোলা-২ আওয়ামী লীগের আলী আজম মুকুল, বিএনপির হাফিজ ইব্রাহীম। ভোলা-৩ আওয়ামী লীগের নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন, বিএনপির হাফিজ উদ্দিন আহমেদ। ভোলা-৪ আওয়ামী লীগের আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব, বিএনপির নাজিম উদ্দিন আলম। ভোলা-১ আওয়ামী লীগের তোফায়েল আহমেদ, বিএনপির জোটের শরিক আন্দালিব রহমান পার্থ। ঝালকাঠি-১ আওয়ামী লীগের বজলুল হক হারুন, বিএনপির শাহজাহান ওমর। ঝালকাঠি-২ আওয়ামী লীগের আমির হোসেন আমু, বিএনপির জেবা আমিন খান। ঢাকা-২ আওয়ামী লীগের কামরুল ইসলাম, বিএনপির ইরফান ইবনে আমান। ঢাকা-৩ আওয়ামী লীগের নসরুল হামিদ বিপু, বিএনপি গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। ঢাকা-৪ জাতীয় পার্টিও সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, বিএনপির সালাহউদ্দিন আহমেদ। ঢাকা-৮ ওয়ার্কার্স পার্টির রাশেদ খান মেনন, বিএনপির মির্জা আব্বাস উদ্দিন আহমেদ। ঢাকা-১০ আওয়ামী লীগের শেখ ফজলে নূর তাপস, বিএনপির আবদুল মান্নান। ঢাকা-১১ আওয়ামী লীগের এ কে এম রহমতউল্লাহ, বিএনপির শামীম আরা বেগম। ঢাকা-১২ আওয়ামী লীগের আসাদুজ্জামান মিয়া, বিএনপির সাইফুল আলম নীরব। ঢাকা-১৩ আওয়ামী লীগের সাদেক খান, বিএনপির আবদুস সালাম। ঢাকা-১৬ আওয়ামী লীগের ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা, বিএনপির আহসানউল্লাহ হাসান। ঢাকা-১৯ আওয়ামী লীগের এনামুর রহমান, বিএনপির দেওয়ান মোহাম্মদ সালাহউদ্দিন বাবু। ঢাকা-২০ আওয়ামী লীগের বেনজীর আহমেদ, বিএনপির তমিজ উদ্দিন। নারায়ণগঞ্জ-২ আওয়ামী লীগের নজরুল ইসলাম বাবু, বিএনপির নজরু ইসলাম আজাদ। মুন্সীগঞ্জ-১ নৌকা প্রতীকে বিকল্পধারার মাহী বি চৌধুরী, বিএনপির শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন। মুন্সীগঞ্জ-২ আওয়ামী লীগের সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি, বিএনপির মিজানুর রহমান সিনহা। মুন্সিগঞ্জ-৩ আওয়ামী লীগের মৃণাল কান্তি দাস, বিএনপির আব্দুল হাই। গাজীপুর-১ আওয়ামী লীগের আ ক ম মোজাম্মেল হক, বিএনপির চৌধুরী তানভীর আহমেদ সিদ্দিকী। গাজীপুর-২ আওয়ামী লীগের জাহিদ আহসান রাসেল, বিএনপির সালাহউদ্দিন সরকার। গাজীপুর-৪ আওয়ামী লীগের সিমিন হোসেন রিমি, বিএনপির শাহ রিয়াজুল হান্নান। গাজীপুর-৫ আওয়ামী লীগের মেহের আফরোজ চুমকি, বিএনপির এ কে এম ফজলুল হক মিলন।

মানিকগঞ্জ-১ আওয়ামী লীগের এ এম নাইমুর রহমান দুর্জয়, বিএনপির এ কে জিন্নাহ কবির। মানিকগঞ্জ-২ আওয়ামী লীগের মমতাজ বেগম, বিএনপির মাইনুল ইসলাম খান শান্ত। টাঙ্গাইল-১ আওয়ামী লীগের আবদুর রাজ্জাক, বিএনপির সরকার শহীদুল ইসলাম। টাঙ্গাইল-২ আওয়ামী লীগের তানভীর হাসান ছোট মনির, বিএনপির সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু। টাঙ্গাইল-৫ আওয়ামী লীগের ছানোয়ার হোসেন, বিএনপির মাহমুদুল হাসান। টাঙ্গাইল-৬ আওয়ামী লীগের আহসানুল ইসলাম টিটো, বিএনপির গৌতম চক্রবর্তী। টাঙ্গাইল-৭ আওয়ামী লীগের একাব্বর হোসেন, বিএনপির আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী। নরসিংদী-১ আওয়ামী লীগের নজরুল ইসলাম হিরু, বিএনপির খায়রুল কবির খোকন। নরসিংদী-২ আওয়ামী লীগের আনোয়ারুল আশরাফ খান দিলীপ, বিএনপির আবদুল মঈন খান। নরসিংদী-৪ আওয়ামী লীগের নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন, বিএনপির সরদার সাখাওয়াত হোসেন বকুল।

কিশোরগঞ্জ-১ আওয়ামী লীগের সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, বিএনপির রেজাউল করিম খান চুন্নু। কিশোরগঞ্জ-২ আওয়ামী লীগের নুর মোহাম্মদ, বিএনপির আখতারুজ্জামান। কিশোরগঞ্জ-৪ আওয়ামী লীগের রেজওয়ান আহম্মেদ তৌফিক, বিএনপির ফজলুর রহমান। কিশোরগঞ্জ-৫ আওয়ামী লীগের আফজাল হোসেন, বিএনপির শেখ মুজিবুর রহমান ইকবাল। কিশোরগঞ্জ-৬ আওয়ামী লীগের নাজমুল হাসান পাপন, বিএনপি শরীফুল আলম।

গোপালগঞ্জ-১ আওয়ামী লীগের ফারুক খান, বিএনপির এফই শরফুজ্জামান জাহাঙ্গীর। গোপালগঞ্জ-২ আওয়ামী লীগের শেখ ফজলুল করিম সেলিম, বিএনপির সিরাজুল ইসলাম সিরাজ। গোপালগঞ্জ-৩ আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা, বিএনপির এস এম আফজাল হোসেন। মাদারীপুর-১ আওয়ামী লীগের নুর-ই আলম চৌধুরী লিটন, বিএনপির সাজ্জাদ হোসেন সিদ্দিকী। মাদারীপুর-২ আওয়ামী লীগের শাজাহান খান, বিএনপির মিল্টন বৈদ্য। মাদারীপুর-৩ আবদুস সোবহান গোলাপ, বিএনপির আনিসুর রহমান তালুকদার খোকন। শরীয়তপুর-২ এ কে এম এনামুল হক শামীম, বিএনপির শফিকুর রহমান কিরণ। শরীয়তপুর-৩ আওয়ামী লীগের নাহিম রাজ্জাক, বিএনপির মিয়া নরুদ্দিন অপু। ফরিদপুর-১ আওয়ামী লীগের মঞ্জুর হোসেন বুলবুল, বিএনপির শাহ মো. আবু জাফর। ফরিদপুর-৩ আওয়ামী লীগের খন্দকার মোশাররফ হোসেন, চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ। ফরিদপুর-৪ আওয়ামী লীগের কাজী জাফরউল্লাহ, বিএনপির ইকবাল হোসেন। রাজবাড়ী-১ আওয়ামী লীগের কাজী কেরামত আলী, বিএনপির আলী নেওয়াজ ওমর খৈয়াম। রাজবাড়ী-২ আসনে আওয়ামী লীগের জিল্লুল হাকিম, বিএনপির নাসিরুল হক সাবু।

ময়মনসিংহ-২ আওয়ামী লীগের শরীফ আহম্মেদ, বিএনপির শাহ শহীদ সরোয়ার। ময়মনসিংহ-৩ আওয়ামী লীগের নাজিমউদ্দিন আহমেদ, বিএনপির আহমদ তায়েবুর রহমান হিরণ। ময়মনসিংহ-৫ আওয়ামী লীগের কে এম খালিদ বাবু, বিএনপির জাকির হোসেন বাবলু। ময়মনসিংহ-৬ আওয়ামী লীগের মোসলেম উদ্দিন, বিএনপির শামসুদ্দিন আহমেদ। ময়মনসিংহ-৭ আওয়ামী লীগের রুহুল আমিন মাদানী, বিএনপির জয়নুল আবেদীন। ময়মনসিংহ-৯ আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিন, বিএনপির খুররম খান চৌধুরী। ময়মনসিংহ-১১ আওয়ামী লীগের তাজিমউদ্দিন আহমেদ ধনু, বিএনপির ফখরুদ্দিন আহমেদ বাচ্চু। শেরপুর-১ আওয়ামী লীগের আতিউর রহমান আতিক, বিএনপির সানজিলা জেবরিন। শেরপুর-২ আওয়ামী লীগের মতিয়া চৌধুরী, বিএনপির মোখলেছুর রহমান রিপন। শেরপুর-৩ আওয়ামী লীগের এ কে এম ফজলুল হক, বিএনপির মাহমুদুল হক রুবেল। নেত্রকোণা-১ আওয়ামী লীগের মানু মজুমদার, বিএনপির কায়সার কামাল। নেত্রকোণা-২ আওয়ামী লীগের আশরাফ আলী খান খসরু, বিএনপির আনোয়ারুল হক। নেত্রকোণা-৩ আওয়ামী লীগের অসীম কুমার উকিল, বিএনপির রফিকুল ইসলাম হিলালী। নেত্রকোণা-৪ আওয়ামী লীগের রেবেকা মমিন, বিএনপির তাহমিনা জামান। জামালপুর-২ আওয়ামী লীগের ফরিদুল হক খান, বিএনপির সুলতান মাহমুদ বাবু। জামালপুর-৩ আওয়ামী লীগের মির্জা আজম, বিএনপির মোস্তাাফিজুর রহমান বাবুল। জামালপুর-৪ মুরাদ হাসান, বিএনপির ফরিদুল কবির তালুকদার শামীম। জামালপুর-৫ আওয়ামী লীগের মোজাফফর হোসেন, বিএনপির শাহ মো. ওয়ারেস আলী মামুন।

সিলেট-৩ আওয়ামী লীগের মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী কয়েস, বিএনপির শফি আহমেদ চৌধুরী। সিলেট-৪ আওয়ামী লীগের ইমরান আহমদ, বিএনপির দিলদার হোসেন সেলিম। সুনামগঞ্জ-১ আওয়ামী লীগের মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, বিএনপির নজির হোসেন। সুনামগঞ্জ-২ আওয়ামী লীগের জয়া সেনগুপ্তা, বিএনপির নাসিরউদ্দিন চৌধুরী।

সুনামগঞ্জ-৪ জাতীয় পার্টির পীর ফজলুর রহমান মেসবাহ, বিএনপির ফজলুল হক আসপিয়া। সুনামগঞ্জ-৫ আওয়ামী লীগের মহিবুর রহমান মানিক, বিএনপির মিজানুর রহমান চৌধুরী। মৌলভীবাজার-১ আওয়ামী লীগের শাহাব উদ্দিন, বিএনপির নাসিরউদ্দিন আহমেদ। মৌলভীবাজার-৩ আওয়ামী লীগের নেছার আহম্মেদ, বিএনপির নাসের রহমান। মৌলভীবাজার-৪ আওয়ামী লীগের আবদুস শহীদ, বিএনপির মুজিবুর রহমান চৌধুরী।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ আওয়ামী লীগের বদরুদ্দোজা ফরহাদ হোসেন, বিএনপির সৈয়দ এ কে একরামুজ্জামান। ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আওয়ামী লীগের র আ ম উবায়দুল মুক্তাদির চৌধুরী, বিএনপির খালেদ হোসেন মাহবুব। কুমিল্লা-১ আওয়ামী লীগের সুবিদ আলী ভুঁইয়া, বিএনপির ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। কুমিল্লা-২ আওয়ামী লীগের সেলিমা আহমদ মেরী, বিএনপির খন্দকার মোশাররফ হোসেন। কুমিল্লা-৩ আওয়ামী লীগের ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন, বিএনপির মুজিবুল হক। কুমিল্লা-৮ জাতীয় পার্টির নুরুল ইসলাম মিলন, বিএনপির জাকারিয়া তাহের সুমন। কুমিল্লা-৯ আওয়ামী লীগের তাজুল ইসলাম, বিএনপির এম আনোয়ারুল আজিম।

চাঁদপুর-১ আওয়ামী লীগের মহীউদ্দীন খান আলমগীর, বিএনপির মোশাররফ হোসেন। চাঁদপুর-২ আওয়ামী লীগের নুরুল আমিন রুহুল, বিএনপির জালালউদ্দিন আহমেদ। চাঁদপুর-৪ আওয়ামী লীগের শফিকুর রহমান, বিএনপির আবদুল হান্নান। নোয়াখালী-১ আওয়ামী লীগের এইচ এম ইব্রাহীম, বিএনপির মাহবুব উদ্দিন খোকন। নোয়াখালী-২ আওয়ামী লীগের মোর্শেদ আলম, বিএনপির জয়নুল আবদিন ফারুক। নোয়াখালী-৩ আওয়ামী লীগের মামুনুর রশিদ কিরণ, বিএনপির বরকত উল্লাহ বুলু। নোয়াখালী-৪ আওয়ামী লীগের একরামুল করিম চৌধুরী, বিএনপির মো. শাহজাহান। নোয়াখালী-৫ আওয়ামী লীগের ওবায়দুল কাদেও, বিএনপির ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। নোয়াখালী-৬ আওয়ামী লীগের আয়েশা ফেরদৌস, বিএনপির ফজলুল আজিম।
ল²ীপুর-২ জাতীয় পার্টির এম এ নোমান, বিএনপির আবুল খায়ের ভুঁইয়া। ল²ীপুর-৩ আওয়ামী লীগের এ কে এম শাহজাহান কামাল, বিএনপির শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী। ফেনী-২ আওয়ামী লীগের নিজামউদ্দিন হাজারী, বিএনপির জয়নাল আবেদীন। ফেনী-৩ জাতীয় পার্টির মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী, বিএনপির আকবর হোসেন।

চট্টগ্রাম-১ আওয়ামী লীগের মোশাররফ হোসেন, বিএনপির নুরুল আমিন। চট্টগ্রাম-২ তরীকত ফেডারেশনের নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী, বিএনপির আজিমউল্লাহ বাহার। চট্টগ্রাম-৪ আওয়ামী লীগের দিদারুল আলম, বিএনপির ইসহাক চৌধুরী। চট্টগ্রাম-৬ আওয়ামী লীগের এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী, বিএনপির জসিম উদ্দিন শিকদার। চট্টগ্রাম-৭ আওয়ামী লীগের হাছান মাহমুদ, বিএনপির কুতুবউদ্দিন বাহার। চট্টগ্রাম-৯ আওয়ামী লীগের মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, বিএনপির শাহাদাৎ হোসেন। চট্টগ্রাম-১০ আওয়ামী লীগের আফসারুল আমিন, বিএনপির আবদুল্লাহ আল নোমান। চট্টগ্রাম-১১ আওয়ামী লীগের এম আবদুল লতিফ, বিএনপির আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। চট্টগ্রাম-১২ আওয়ামী লীগের শামসুল হক চৌধুরী, বিএনপির এনামুল হক। চট্টগ্রাম-১৩ আওয়ামী লীগের সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, বিএনপির সারোয়ার জামাল নিজাম।

কক্সবাজার-১ আওয়ামী লীগের জাফর আলম, বিএনপির হাসিনা আহমেদ। কক্সবাজার-৩ আওয়ামী লীগের সাইমুম সরোয়ার কমল, বিএনপির লুৎফর রহমান কাজল। কক্সবাজার-৪ আওয়ামী লীগের শাহীনা আক্তার চৌধুরী, বিএনপির শাহজাহান চৌধুরী।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ