Skip to main content

ওরা আমাদের হারিয়েছে, আমরা ওদের হারাব: রোভম্যান পাওয়েল

নিজস্ব প্রতিবেদক: টেস্ট সিরিজে ফল কী হয়েছিল তা নাকি এরই মধ্যে ভুলে গেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ! দলের ওয়ানডে অধিনায়ক রোভম্যান পাওয়েল কথাবার্তার বেশ ইতিবাচক। দারুণ একটা সিরিজ উপহার দেবে দুই দল, এটাই তার পূর্বাভাসমাত্র কদিন আগে শারজায় টি-টেন টুর্নামেন্ট জিতে এলেন। নর্দান ওয়ারিয়সের হয়ে ২৫ বলে ৬১ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলে ম্যান অব দ্য ফাইনালের পুরস্কারও জিতেছেন। রোভম্যান পাওয়েলকে তাই খোশমেজাজে পাওয়া গেল। ক্যারিবীয় অধিনায়ক আজ সংবাদ সম্মেলনে হাজির হয়েছিলেন, ‘ব্যাপার না’ মুড নিয়ে। যে প্রশ্নই করা হয়, পাওয়েল নির্বিকার উত্তর দেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ তো টেস্ট সিরিজে অসহায় হার হারল। পাওয়েলের জবাবের সারমর্ম: ব্যাপার না। ওয়েস্ট ইন্ডিজ তো কয় মাস আগে নিজেদের মাটিতেই ওয়ানডে সিরিজে হেরেছে। পাওয়েলের জবাব: ব্যাপার না। ওয়েস্ট ইন্ডিজ এ বছর একটাও ওয়ানডে সিরিজ জেতেনি। পাওয়েল: ব্যাপার না! এই আত্মবিশ্বাসের পেছনে পাওয়েল মনে করেন, ওয়ানডেতে দুই দল শক্তির বিচারে কাছাকাছি। শুধু তাই নয়, বাংলাদেশ যেমন ওয়েস্ট ইন্ডিজে গিয়ে জিতে এসেছে, এবার বাংলাদেশকে বাংলাদেশের মাটিতে হারিয়ে তার শোধও নিতে চান পাওয়েল, ‘এই সিরিজটা অবশ্যই চ্যালেঞ্জিং হবে। তা ছাড়া যেকোনো দলই যখন নিজেদের মাটিতে খেলে, তাদের মুখোমুখি হওয়া কঠিন। আর বাংলাদেশ তো ঘরের মাটিতে বরাবরই দুর্দান্ত। সেটা আমরা দল হিসেবে জানি। ওরা আমাদের ক্যারিবীয়তে হারিয়েছে, আমরা এখানে একই রকম কিছু করার জন্য মুখিয়ে আছি।’ তামিম-সাকিব ওয়ানডে একাদশে ফিরে এলেও শক্তির বিচারে বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ একই রকম থাকবে বলেও মত পাওয়েলের, ‘আমি মনে করি বাংলাদেশকে বাংলাদেশে হারানোর মতো যথেষ্ট ভালো দল আমাদের আছে। হ্যাঁ, ওরা পূর্ণ শক্তির দল ফিরে পাচ্ছে, সে তো আমরাও পাচ্ছি। ফলে এই সিরিজটা দারুণ রোমাঞ্চকর হবে। তা ছাড়া আমরা দলে এমন দুজনকে পাচ্ছি যারা স্পিন খুব ভালো সামলায়। তাদের এই অভিজ্ঞতার সঙ্গে আমার, হেটমেয়ার আর শাই হোপের তারুণ্য যোগ হবে।’ এ কারণেই পাওয়েল দুই দলকে একই পাল্লায় মাপছেন, ‘আমি মনে করি এটা সমান শক্তির সিরিজ হবে। দুই দলেই ভালো স্পিনার, ভালো ফাস্ট বোলার আর ব্যাটসম্যান আছে। ফলে এটা দারুণ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ একটা সিরিজ হতে যাচ্ছে। প্রত্যেক ম্যাচে গুরুত্বপূর্ণ বাঁকগুলোয় কে ভালো করে, তার ওপর নির্ভর করবে ম্যাচের ফল।’ শিশিরও একটা বড় প্রভাবক হবে বলে মনে করেন পাওয়েল, ‘এখানে এটা বড় একটা প্রভাবক। আমি বিপিএলে এখানে খেলেছি। তখন ডিউ ফ্যাক্টর কীভাবে প্রভাব ফেলে দেখেছি। আজ রাতে বা কাল সকালে দল নিয়ে নির্বাচনের সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় এটিও আমরা মাথায় রাখব।’ ২০১৮ সালটা মাথা উঁচু করে শেষ করতে চান। এটাও পাওয়েলদের বাড়তি অনুপ্রেরণা দেবে, 'অনেক দিন হয়ে গেল আমরা ওয়ানডে সিরিজ জিতি না। দলের খেলোয়াড়রা তাই মুখিয়ে আছে। আমাদের এই পরাজয়ের ধারা বদলানোর জন্য বাংলাদেশে সেরা সুযোগ আমরা পেয়েছি। ভারতে কিন্তু আমরা কিছু দারুণ ক্রিকেট খেলেছি, যদিও ফলটা আমাদের পক্ষে আসেনি। বিশ্বকাপের আগে আর খুব বেশি সিরিজও বাকি নেই। তাই কিছু সিরিজ জিতে সেখানে যেতে পারাটা দারুণ হবে। এটা আমাদের বাড়তি আত্মবিশ্বাসও জোগাবে। প্রথমআলো