Skip to main content

ইশতেহারে কর্মসংস্থানের নিশ্চয়তা চান ভোটাররা

সাজিয়া আক্তার : আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ইশতেহার ঘোষণার প্রস্তুতি নিচ্ছে রাজনৈতিক সকল দল। আর এই ইশতেহারে কর্মসংস্থান, অর্থনৈতিক উন্নয়ন, বেকারত্ব কমানোর মতো বিষয়গুলোকে গুরুত্ব দেবে রাজনৈতিক দলগুলো, এমন প্রত্যাশা ভোটারদের। সুত্র : ডিবিসি টেলিভিশন দেশে অনেক তরুণ উচ্চশিক্ষিত হয়েও পড়েছেন বেকারত্বের কবলে। নির্বাচনে যেই দলই জয়ী হোক, তরুণরা চান বেকারত্বের হাত থেকে রেহাই পেতে। তারা জানান, রাজনৈতিক দলগুলোর উচিত নির্বাচনী ইশতেহারে এমন সুযোগ করে দেয়া যাতে বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানের সুযোগ হয়। সরকারী চাকরিতে এমন সুযোগ করে দেয়া উচিত যাতে দক্ষ ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা সেখানে কাজ করার সুযোগ পায়। আমরা চাই প্রত্যেক রাজনৈতিক দলের ইশতেহারে যেন মাদক, সন্ত্রাস ও বেকারত্ব দূরীকরণে বাস্তবসম্মত দিকনির্দেশনা থাকে। সমাজকর্মী আলী ইউসুফ বলেন, একটি সুন্দর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে প্রত্যেক রাজনৈতিক দলের উচিত তাদের ইশতেহারে দুর্নীতি বন্ধে যথেষ্ট গুরুত্ব দেয়া। একটি সুশীল সমাজ চায় দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশের নিশ্চয়তা। নির্বাচনী ইশতেহারে জাতীয় উন্নয়নের সঙ্গে থাকে আঞ্চলিক উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি। সে কারণে দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নে রাজনৈতিক দলের প্রতিশ্রুতি নয়, বিগত নির্বাচনে দেয়া প্রতিশ্রুতি ও বাস্তবায়নকে মূল্যায়ন করবেন ভোটাররা, এমনটাই মনে করেন বিশ্লেষকরা। সুজনের আঞ্চলিক কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান রঞ্জু বলেছেন, সমস্যা ও সম্ভাবনার পাশাপাশি ইশতেহারে দেয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করবেন নির্বাচিত প্রার্থীরা এমন প্রত্যাশা ভোটারদের। কাজেই প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন না করলে আগামীতে প্রার্থীদের ওপর আস্থা হারাবেন ভোটাররা।