Skip to main content

ঠাকুরগাঁওয়ে শেষ হলো ভারত-বাংলাদেশের মিলনমেলা

জাকির হোসেন, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : গত শুক্রবার ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল ও হরিপুর উপজেলায় শেষ হলো ভারত বাংলাদেশের পাথরকালির মিলন মেলা। অর্থাৎ দুই দেশের মধ্যে থাকা বিভিন্ন আত্বীয়স্বজনকে ছুঁতে না পারলেও এক নজর দেখার জন্য জড়ো হয়ে ভারত-বাংলাদেশের ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল কোচল ও হরিপুর চাপসা সীমান্তে জমায়েত হয় দুই দেশের লাখো লাখো মানুষ। ভারত ও বাংলাদেশের ৪ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে মানুষের মিলন মেলায় পরিণত হয়। এ মিলনে শুধু বাধা হয়ে দাঁড়ায় তার কাটার বেড়াটা। প্রতি বছর পাথর কালীর মেলা বিজিবি ও বিএসএফের সম্মতিতে পাসপোর্ট ভিসা ছাড়াই এই সাক্ষাতের সুযোগ হয়। কাঁটাতারের বেড়া তাদের আলাদা করে রাখলেও আবেগ পৌঁছে যায় সীমানা ডিঙ্গিয়ে। কথা হয় বাংলাদেশের ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়, দিনাজপুর, রংপুর এবং ভারতে কোচবিহার, আসাম, দার্জিলিং, শিলিগুড়ি, জলপাইগুড়ি, কলকাতা সহ বিভিন্ন এলাকা থেকে বাই সাইকেল, অটোরিক্সা, মাইক্রোবাস, মিনিবাস যোগে মেলাস্থলে হাজির হন দুই দেশের মানুষেরা। এর পর চলে প্রতীক্ষার প্রহর। শুক্রবার বিজিবি ও বিএসএফের সম্মতিতে সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলে এ মিলন মেলা। তাই সারা বছর কেউ কারো সাথে দেখা সাক্ষাত করতে পারেন না। অপেক্ষা করে থাকে এই দিনটির জন্য।

অন্যান্য সংবাদ