Skip to main content

রোনালদো-এমবাপেকে ছাড়িয়ে সেরা ফরোয়ার্ড মেসি

স্পোর্টস ডেস্ক: ফুটবলের জনপ্রিয় মাধ্যম ‘ইএসপিএন এফসি’র বিশেষজ্ঞ প্যানেলের মতে বছরের সেরা ফরোয়ার্ড নির্বাচিত হয়েছেন আর্জেন্টিনার বার্সেলোনা তারকা লিওনেল মেসি। যিনি সদ্যই প্রকাশিত হওয়া ব্যালন ডি অরের শীর্ষ তিনে ছিলেন না। সর্বোচ্চ পাঁচবার করে ব্যালন ডি অর জেতা মেসি কিংবা রোনালদোর হাতে এবারের পুরস্কার ওঠেনি। ব্যালন ডি অর জিতেছেন ক্রোয়েশিয়ার রিয়াল মাদ্রিদ তারকা লুকা মদ্রিচ। তবে, ইএসপিএনের সেরা ফরোয়ার্ড নির্বাচিত হয়েছেন মেসি। ১০টি ভিন্ন ক্যাটাগরিতে সেরা ফুটবলার নির্বাচিত করেছে ইএসপিএন। বিশ্বেসেরা ১০০ খেলোয়াড়ের তালিকা থেকে তিনজন করে ফুটবলার নির্বাচিত করে সংবাদমাধ্যমটি। এরপর সেরা একজন করে ১০ ক্যাটাগরিতে নির্বাচিত হয় ৯ ফুটবলার এবং একজন কোচ। ক্লাব কোচদের তালিকাতেও ছিলেন ১০০ জন। সেখান থেকে সেরা নির্বাচিত হন ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটির কোচ পেপ গার্দিওলা। যার হাতে ধরে গতবার ইংলিশ লিগের শিরোপা জিতেছিল সিটিজেনরা। এবারো লিগের শীর্ষে রয়েছে তার শিষ্যরা। ফরোয়ার্ডের তালিকায় সেরা নির্বাচিত হয়েছেন মেসি। টপকেছেন ব্যালন ডি অর মিস করা রোনালদোকে। পর্তুগিজ তারকা মেসির পরে জায়গা পেয়েছেন। এছাড়া, এই তালিকায় তিনে আছেন পিএসজির ফরাসি তারকা এবং এবারের সেরা উদীয়মান খেলোয়াড় কাইলিয়ান এমবাপে। ফুটবলারদের ৯ ক্যাটাগরিতে চারজনই জায়গায় পেয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদ থেকে। রাইট ব্যাকে আছেন দানি কারভাহাল, সেন্টার ব্যাকে সার্জিও রামোস, লেফট ব্যাকে মার্সেলো এবং সেন্ট্রাল মিডফিল্ডে লুকা মদ্রিচ। ১০ ক্যাটাগরির নির্বাচিতরা: গোলরক্ষক: ডেভিড ডি গিয়া (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড), জন ওবালক (অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ) এবং থিবাউট কোরতোয়া (রিয়াল মাদ্রিদ)। রাইট ব্যাক: দানি কারভাহাল (রিয়াল মাদ্রিদ), জোশুয়া কিমমিচ (বায়ার্ন মিউনিখ) এবং কাইল ওয়াকার (ম্যানচেস্টার সিটি)। সেন্টার ব্যাক: সার্জিও রামোস (রিয়াল মাদ্রিদ), রাফায়েল ভারানে (রিয়াল মাদ্রিদ) এবং ডিয়েগো গডিন (অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ)। লেফট ব্যাক: মার্সেলো (রিয়াল মাদ্রিদ), ডেভিড আলবা (বায়ার্ন মিউনিখ) এবং জর্দি আলবা (বার্সেলোনা)। সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার: লুকা মদ্রিচ (রিয়াল মাদ্রিদ), এনগোলো কান্তে (চেলসি) এবং টনি ক্রুস (রিয়াল মাদ্রিদ)। অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার: কেভিন ডি ব্রুইন (ম্যানচেস্টার সিটি), ইসকো (রিয়াল মাদ্রিদ) এবং ডেভিড সিলভা (ম্যানচেস্টার সিটি)। উইঙ্গার: সাদিও মানে (লিভারপুল), লেরয় সান (ম্যানচেস্টার সিটি) এবং রাহিম স্টার্লিং (ম্যানচেস্টার সিটি)। ফরোয়ার্ড: লিওনেল মেসি (বার্সেলোনা), ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো (জুভেন্টাস) এবং কাইলিয়ান এমবাপে (পিএসজি)। স্ট্রাইকার: হ্যারি কেইন (টটেনহ্যাম), সার্জিও আগুয়েরো (ম্যানচেস্টার সিটি) এবং এডিনসন কাভানি (পিএসজি)। কোচ: পেপ গার্দিওলা (ম্যানচেস্টার সিটি), জার্গেন ক্লপ (লিভারপুল) এবং দিয়েগো সিমিওনে (অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ)।