Skip to main content

এক কোটি প্রবাসী এবারও ভোট দিতে পারছেন না

সারাবাংলা : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রায় ১ কোটি প্রবাসী ভোট দিতে পারবেন না। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, এই প্রবাসীরা বিশ্বের ১৫৭টি দেশে অবস্থান করছেন। নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, প্রবাসীদের ভোটাধিকার নিশ্চিত করতে নির্বাচন কমিশন সর্বশেষ গত জুলাই মাসে একটি উদ্যোগ নিয়েছিল। প্রবাসীদের ভোটাধিকার নিশ্চিতে তখন ৫টি কমিটি গঠন করে কমিশন। প্রয়োজনীয় অর্থ এবং অন্য সুযোগ-সুবিধার অভাবে ওই উদ্যোগ বেশিদূর এগুতে পারেনি। ফলে এবারও ভোট দিতে পারছেন না প্রবাসীরা। প্রায় ২০ বছর আগে ১৯৯৮ সালে উচ্চ আদালত ঘোষণা দিয়েছিলেন যে প্রবাসীদের ভোট দেওয়ার অধিকার সংবিধান সংরক্ষিত। এরপর ২০০৮ এবং ২০১৪ সালে প্রবাসীদের ভোটাধিকার নিশ্চিত করার উদ্যোগ নিলেও তা বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়নি। নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ জানান, নানা জটিলতার কারণে এবারের নির্বাচনেও প্রবাসীরা ভোট দিতে পারছেন না। তবে নির্বাচন শেষে প্রবাসীদের ভোটাধিকার নিয়ে কাজ করবে কমিশন, যাতে পরের বার প্রবাসীরা ভোট দিতে পারেন। তিনি জানান, প্রবাসীদের ভোটাধিকারের বিষয়টি সংবিধান কর্তৃক সংরক্ষিত অধিকার। কিন্তু আমাদের এখানে একযোগে ৩০০ আসনে ভোট হয়, তাই এবার সম্ভব হচ্ছে না।হেলালুদ্দীন আহমদ আরও জানান, প্রবাসীদের ভোট ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) নেওয়া সম্ভব হলেও এবারের জন্য তা সম্ভব নয়। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে, বিশ্বের ১৫৭টি দেশে প্রায় ১ কোটি ৫০ লাখ বাংলাদেশি বসবাস করছেন। এদের মধ্যে প্রায় ৫০ লাখ বাংলাদেশির দ্বৈত নাগরিকত্ব রয়েছে। লন্ডনে বসবাসরত প্রবাসী শাম্মী হুদা সারাবাংলা’কে বলেন, যতোটুকু জানতে পেরেছি বাংলাদেশের জিডিপিতে প্রবাসীদের অবদান ৮ শতাংশ। গত অর্থ বছরে প্রবাসীরা ১৫ বিলিয়ন ডলারের রেমিট্যান্স দেশে পাঠিয়েছে। অথচ এই প্রবাসীরাই ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাচ্ছে না। সৌদি আরবের রিয়াদে কর্মরত প্রবাসী মিজানুর রহমান সারাবাংলা’কে বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতি শক্তিশালী করতে প্রবাসীরা ঘাম ঝড়াচ্ছে। অথচ এই প্রবাসীদের ভোট দেওয়ার অধিকার নেই। এই ১ কোটি প্রবাসী যদি ভোট দিতে না পারে তবে অন্তর্ভুক্তিমূলক নির্বাচন নিশ্চিত হয় কীভাবে- প্রশ্ন রাখেন তিনি।