প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছর ৫শ জেলে নেবে চীন

তরিকুল ইসলাম সুমন:বাংলাদেশ থেকে সমুদ্রে মাছ ধরার জন্য প্রতি বছর ৫শ জন জেলে নিতে চীনের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে নৌ পরিবহণ মন্ত্রণালয়। বেতন ৪শ ডলাবের প্রস্তাব বাংলাদেশের দাবি ৫শ এরই ধারাবাহীকতায় প্রয়োজনীয় কার্যক্রম শুরু করেছে নৌ পরিবহণ অধিদপ্তর। গত মঙ্গলবার চার সদস্যের প্রতিনিধি দল অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কমডোর সৈয়দ আরিফুল ইসলাম এর সঙ্গে দেখা করে একটি প্রস্তাব জমা দিয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রের দাবি।

এ বিষয়ে নৌ পরিবহণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কমডোর সৈয়দ আরিফুল ইসলাম এই প্রতিবেদককে জানান, চীনের সংশ্লিষ্ট রিক্রুটিং এজেন্সি বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছর জেলে নেবে। যার সকল খরচ তারাই বহণ করবে। এছাড়াও বাংলাদেশে তাদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ, মেডিকেলসহ যাতীয় খরচও রিক্রুটিং এজেন্সি দেবে।

তিনি আরো জানান, বাংলাদেশ থেকে যারা জেলে হিসেবে চীন যাবে তাদের প্রতি মাসে বেতন প্রস্তাব করা হয়েছে ৪শ মার্কিন ডলার এবং এদের মধ্যে একজন থাকবেন দল নেতা যার বেতন ধারা হয়েছে ৪৫০ ডলার। কিন্তু বাংলাদেশের পক্ষ থেকে প্রতিজন জেলের জন্য ৫শ বা ৪১ হাজার ৫শ টাকা (প্রতি ডলার ৮৩ টাকা হিসেবে) এবং দলনেতার বেতন ৬শ (৪৯ হাজার ৮শ টাকা) মার্কিন ডলার করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে।

অপরদিকে চীনের পক্ষ থেকে আরো বলা হয়েছে, মাছ ধরার জন্য ২ বছরের চুক্তি করা হবে। মেয়াদ শেষে আবারো যারা চীনে যাবে তাদের জন্য ১শ ডলার বেশি বেতন দেওয়া হবে। এক্ষেত্রেও বাংলাদেশের পক্ষ থেকে বেতন বাড়ানোর প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এছাড়াও জীবনবীমার ক্ষেত্রে চীন ১৫ হাজার ডলার প্রস্তাব দিলেও বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ৫০ হাজার ডলার করার কথা বলা হয়েছে।

নৌ পরিবহণ অধিদপ্তর মহাপরিচালক আরো বলেন, বাংলাদেশ থেকে জেলেদের সীম্যান বুক দিতে হবে। সঙ্গে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ। যেসব জেলে সীম্যান বুক পাবে তাদের নেওয়ার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা হবে চীনের পক্ষ থেকে। যেহেতু ঝুঁকিপূর্ণ কাজ করতে হবে একারণে তাদের কাজের মেয়াদ শেষে দেশে ফেরার ব্যয়ও বহণ করবে সংশ্লিষ্ট রিক্রুটিং এজেন্সি।