প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আমরা কি শিক্ষার উদ্দেশ্য বুঝি?

ব্যারিস্টার আল আমিন রহমান: চাপমুক্ত ও গুণগত মানসম্পন্ন শিক্ষা এখন সময়ের দাবি। আমাদের অর্জিত জ্ঞানের সঠিক মূল্যায়ন ও পরিচালনার দক্ষতা আসলেই আমাদের রয়েছে কিনা, এটি দেখা খুবই জরুরি। এ কারণে আমাদেরকে প্রথমেই শিক্ষার অর্থটা বোঝা দরকার। শিক্ষার ইংরেজি বফঁপধঃরড়হ শব্দটি এসেছে ল্যাটিন শব্দ ঊফঁপবৎব থেকে, যার অর্থ ‘বেরিয়ে আসুন, এগিয়ে যান’। তবে এর মানে একটি শিশুর খালি বাক্স পূরণ করা নয়। এর অর্থ, বাবা-মা ও শিক্ষক মিলে একটি শিশুর জন্য সবচে’ ভালো কিছু বহন করে নিয়ে আসা। একটি শিশুর শারীরিক, মানসিক, সামাজিক, আবেগীয়, প্রযুক্তিগত, আধ্যাত্মিক থেকে শুরু করে মিলেমিশে থাকার ক্ষমতা গঠিত হয় শিক্ষার মাধ্যমে।

বর্তমানে প্রথাগত শিক্ষায় মূল্যায়ন ও পরিমাপণের ফলে পড়াশুনার বিষয়টি এমন হতাশাব্যাঞ্জক ও অপরিচ্ছন্ন হয়ে উঠেছে যে, শিশুদের মনে ভয় ঢুকে গেছে। শিক্ষার্থীরা এক উন্মত্ত প্রতিযোগিতায় মেতে উঠেছে। বাবা-মা ও শিক্ষার্থী উভয়ের মনেই ঢুকে গেছে ব্যর্থতার ভয়। ফলে আমরা ভুলে গেছি যে, সফলতা এক ধরনের যাত্রা, মূল গন্তব্যস্থল নয়।

পেশাগত জীবনে আমি একজন আইনজীবী। দীর্ঘদিন ধরেই আমি সুপ্রিম কোর্টে আইন ব্যবসায় লিপ্ত। বাল্যকালে স্কুলজীবনে আমার বাবা আমাকে গাইড করতেন। তিনি আমাকে প্রতিদিন একটু একটু করে ভালো করতে উৎসাহ দিতেন। মাঝে মাঝে আমার শিক্ষকরা আমার উপর বিরক্ত হলেও, বাবাই আমাকে সফল হতে সাহায্য করেছেন ও সঠিক পথ দেখিয়েছেন।

সম্প্রতি ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির এক ছাত্রী অরিত্রী শিক্ষকদের অপমান সইতে না পেরে নিজ বাসায় আত্মহত্যা করেছেন। সে মাত্রই কৈশোরে পা দিয়েছে। এটা তার এমন একটা বয়স, যখন সে তার নিজের কাজের জন্য বাবা-মায়ের অপমান সহ্য করতে পারেনি। অরিত্রী আমাদের যে কারো সন্তান হতে পারে। এ ধরনের ঘটনা আমাদের যে কারো সন্তানের সাথেই হতে পারে। কিন্তু যদি আমরা এই শিক্ষা পদ্ধতি পরিবর্তন না করি, তাহলে এ ধরনের ঘটনা বারবার ঘটতে থাকবে।

আমরা যদি ফিনল্যান্ডের দিকে তাকাই, দেখতে পাই যে, শিক্ষা ব্যবস্থার কারণেই তারা তাদের দরিদ্রকে অতিক্রম করতে পেরেছে। ফিনল্যান্ডের সব স্কুলে একই ধরনের শিক্ষা পদ্ধতি। উচ্চ শিক্ষা ও বিজ্ঞান-ভিত্তিক প্রশিক্ষণ নিয়েই শিক্ষকরা শিক্ষকতা পেশায় যোগ দেন। আর এসব কিছুই ফিনল্যান্ডের শিক্ষা ব্যবস্থাকে পৃথিবী শ্রেষ্ঠ করে তুলেছে। যার ছোঁয়া লেগেছে অন্য সব ক্ষেত্রেও। আর নিজেদের দেশকে এমন সর্বোচ্চ ও সর্বাধুনিক করতে মাত্র ৫০ বছর সময় নিয়েছে ফিনল্যান্ডবাসী। ফলে আমরা বলতে পারি, শিক্ষা পদ্ধতির সমতা ও উচ্চ-মান সম্পন্ন শিক্ষক একটি দেশের উন্নয়নে সুনির্দিষ্ট প্রভাব ফেলতে পারে।

অথচ আমরা এখনও বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার পরিবর্তনগুলো দেখেও না দেখার ভান করছি, সেগুলো ধারণ করা তো দূরের কথা। এখনও আদি যুগেই পড়ে আছি। আর ভালো ফলাফল প্রত্যাশা করছি। যদি আমরা আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থাকে এখনই পরির্তন না করি, তাহলে অরিত্রীর মতো আরো অনেক বহুমূল্য জীবন আমরা হারাবো। তাই এ ধরনের ঘটনা বন্ধ করতে আমাদের এখনই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে এগিয়ে আসতে হবে।

লেখক : সুপ্রিম কোর্টের এডভোকেট। (তার মূল ইংরেজি লেখা থেকে অনূদিত ও ঈষৎ সংক্ষেপিত) সম্পাদনা : ইকবাল খান

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ