Skip to main content

বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় এলে দেশ ধ্বংসস্তুপে পরিণত হবে : শাহরিয়ার কবির

লিয়ন মীর : বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় এলে দেশ ম্যসাকার বা ধ্বংস্তুপে পরিণত হবে মনে করেন ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহরিয়ার কবির। এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় এলে গোটা দেশের মানুষের ওপর হত্যা-নির্যাতনের খড়গ নেমে আসবে। বিশেষ করে সংখ্যালঘুদের নির্মমভাবে অত্যাচার করবে বিএনপি-জামায়াত সরকার। ২০০১ সালের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এবং নির্বাচন পরবর্তী সময়ে বিএনপি-জামায়াত দেশে যে সহিংসতা-সন্ত্রাসী ঘটনা ঘটিয়েছিলো, মুক্তিযুদ্ধের পরে স্বাধীন বাংলাদেশে এমন নিষ্ঠুরতা আর কখনো দেখিনি। তিনি আরও বলেন, ভোলার একটা ইউনিয়নে দেড় হাজার মেয়েকে রেপ করা হয়েছিলো। পত্রপত্রিকায় সে খবর প্রকাশিত হয়েছিলো এবং মানবাধিকার সংগঠনগুলো সেখানে গিয়ে কাজ করেছিলো। যে সব সাংবাদিক সেই ঘটনা নিয়ে কাজ করেছিলেন তাদেরকে জেলে ভরে রাখা হয়েছিলো। কাউকে কাউকে হত্যা করা হয়েছিলো। সেই হত্যাকা-ের ঘটনা আমরা ভুলে যাইনি। বিএনপি-জামায়াত ২০০১-২০০৫ পর্যন্ত কী নির্মমভাবে দেশ পরিচালনা করেছিলো সেটা হয়তো এখন যারা একেবারে তরুণ বা এবারের প্রথম ভোটার হয়েছে তখন তারা একেবারেই ছোট ছিলো। কিন্তু আমার সেই নির্মমতা দেখেছি এবং নির্যাতনের শিকার হয়েছি। তাই ভুলতে পারিনি। সন্ত্রাস আর দুর্নীতির অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছিলো বাংলাদেশ। পত্রিকায় পাতায় ফিরে গেলেই সেই খবর কিন্তু এখনো সবাই দেখতে পাবে। এক প্রশ্নের জবাবে শাহরিয়ার কবির বলেন, বিএনপি-জামায়াত এখন আর আলাদা আলাদা কোনো দল নয়। তারা একই সাথে মিশে গেছে। আবার বলা যায় বিএনপিকে জামায়াতে ইসলামী দখল করে নিয়েছে। যুদ্ধাপরাধের দায়ে জামায়াতের শীর্ষ নেতাদের ফাঁসি হয়েছে। বিএনপি-জামায়াত প্রতিশোধ নেওয়ার অপেক্ষায় আছে। ক্ষমতায় এলে তারা প্রতিশোধ নেবে। আর এই আঘাত গিয়ে পড়বে মুক্তিযুদ্ধের শক্তির ওপর। খালেদা জিয়া বলেছিলেন, যারা আন্তর্জাতিক আপরাধ ট্রাইবুনাল বানিয়েছে, আমারা ক্ষমতায় গেলে তাদের বিচার করবো। প্রতিহিংসার কথা তারা আগেই বলে দিয়েছে। খালেদা জিয়া যাদের বিচার করার ঘোষণা দিয়েছে তারা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি। তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াত বিরোধী রাজনৈতিক দলের ওপর নির্যাতনের কোনো সীমা থাকবে না। বিশেষ করে বিএনপি-জামায়াত দেশে হিন্দু রাখতে চায় না। বিএনপি মুক্তিযুদ্ধের শক্তির বদলে রাজাকারদের মন্ত্রী-এমপি বানিয়ে ক্ষমতায় থাকতে চায়। অতীতে আমরা সেটাই দেখেছি। আর এবার তো জামায়াত ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচনে যাচ্ছে। তাই এই পরিস্থিতিতে দেশের মানুষ বিবেচনা করেই নির্বাচনে ভোট দেবে। মানুষ ভোট দিয়ে রাজাকারদের ক্ষমতায় আনতে চায়, নাকি নিজেরা ক্ষমতায় থাকবে? এটা নির্ভর করছে মানুষের রুচি এবং পচ্ছন্দের ওপর।

অন্যান্য সংবাদ