প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মানিক মিয়া এভিনিউ তিন ঘণ্টা শিশুদের

অনলাইন ডেস্ক : গণপরিবহন ব্যবস্থাপনা উন্নয়ন ও রাজধানীকে যানজট মুক্ত রাখতে সড়কে ৩ ঘণ্টা ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচল বন্ধ রেখে বিনোদনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। খবর সংবাদের। গতকাল সকালে রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউয়ের সামনের অর্ধেক সড়ক বন্ধ করে এই বিনোদনের আয়োজন করে ‘ওয়ার্ক ফর বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্ট’ নামের একটি সংগঠন। প্রতি মাসের প্রথম শুক্রবার এই আয়োজন করা হয়। গত বছর ২২ সেপ্টেম্বর ওই সড়কে ‘ব্যক্তিগত গাড়িমুক্ত দিবসের’ উদ্বোধন করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের মাসে অন্তত একটি দিন একটি সড়কে ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচল বন্ধ রাখার ঘোষণা দেন।

\গতকাল সকাল ৮-১১টা পর্যন্ত রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউয়ে ঠিক আয়োজনে অংশ নেন শহরের খেলাপ্রেমী মানুষগুলো। তবে এতে শিশুদের অংশগ্রহণই ছিল বেশি। এ সময় তারা ছবি আঁকা প্রতিযোগিতা, ফুটবল, ক্রিকেট, ব্যাডমিন্টন, লুডো, দাবা, ক্যারাম, সাইকেল রেসিং, হ্যান্ডবল, ঘুড়ি ওড়ানোসহ মেতে উঠে বিভিন্ন খেলাধুলায়। আয়োজনে আগত দর্শনার্থীদের মধ্যে ছড়িয়ে দেয়া হয় বিভিন্ন সচেতনতামূলক বার্তা। এর মধ্যে ছিল যানজট হ্রাসে পাবলিক পরিবহনের উন্নয়ন করুন, পথচারীর রাস্তা পারাপারে জেব্রা ক্রসিংয়ের আগে গাড়ি থামান, শিশুদের বিকাশের জন্য প্রতিদিন অন্তত এক ঘণ্টা খেলাধুলা করা উচিত, যানজট ও দূষণমুক্ত নগরায়নে প্রয়োজন গণপরিবহন ব্যবস্থাপনা উন্নয়ন ও ব্যক্তিগত গাড়ির ব্যবহার নিয়ন্ত্রণসহ অন্যান্য। ‘ওয়ার্ক ফর বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্ট’র এ আয়োজনে গতকাল সকাল থেকেই উপস্থিতি ছিল সাধারণ মানুষ আর বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের।

এ বিষয়ে ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী হাদিয়া মুবাশশারা বলেন, শহরে গাড়ি কমলে যানজট ও দূষণ কমবে। অনেক বিনোদনের জায়গা তৈরি হবে এবং আরও বেশি মানুষ এই বিনোদনের সুবিধা ভোগ করতে পারবে। একটু হলেও বাইরের আলো বাতাসে খেলা করার সুযোগ পাবে শহরের ঘরবন্দী শিশুরা। ধানমন্ডি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আহনাফ হাবিব বলেন, আমাদের মতো শহুরে শিক্ষার্থীরা তো রাস্তা ছাড়া আর অন্য কোথাও খেলার জায়গা পায় না। তাই আমরা চাই, শহরে গাড়ি কমুক। এতে করে যেমন যানজট কমবে, তেমনি রাস্তাগুলোও বিনোদনের স্থান হিসেবে ব্যবহার করা যাবে।

এ আয়োজনে সরকারি ও বেসরকারি ৫৮টি সংস্থাসহ বিভিন্ন ইউনিভার্সিটি সহযোগিতা করে। এছাড়া সম্প্রতি যুক্ত হয়েছে ইউনিলিভার বাংলাদেশ। নগরবাসীকে একটি উন্নত নগরীর জন্য বার্তা পৌঁছে দেয়াই এ টুর্নামেন্টের মূল উদ্দেশ্য বলে জানিয়েছে আয়োজক সংস্থা। এ বিষয়ে প্রতিষ্ঠানের সিনিয়র প্রজেক্ট অফিসার জিয়াউর রহমান বলেন, আমরা সবসময়ই একটি সুন্দর শহর চাই। তবে আমাদের প্রাইভেটকারগুলোর সংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি আমাদের শহরে যানজট বাড়ছে। কিন্তু আমরা এর পরিবর্তে বাস ও মেট্রোরেল অনায়াসেই ব্যবহার করতে পারি। আমরা চাই আমাদের প্রজন্ম একটু খেলাধুলার জায়গা পাক। সেগুলো যেন আমাদের নগরজীবনের ভিড়ে হারিয়ে না যায়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত