প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রবীণবান্ধব ইশতেহার চাই

মাহমুদ হোসেন : জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল নির্বাচনী ইশতেহার প্রণয়ন করছে। ইশতেহারে বাংলাদেশের প্রবীণ নাগরিকদের জন্য বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার অঙ্গীকার অন্তর্ভুক্ত করার জন্য রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছি।

২০১৮ সালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী বাংলাদেশে প্রায় এক কোটি চল্লিশ লাখ প্রবীণ নাগরিক রয়েছেন। ভারত, জাপান, সুইডেন, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়াসহ বিভিন্ন উন্নত দেশে সিনিয়র সিটিজেনদের জন্য অনেক সুযোগ-সুবিধা বিদ্যমান। ভারত ২০০৭ সালে আইন প্রণয়ন করে সিনিয়র সিটিজেনদের বিভিন্নরকম সুযোগ-সুবিধা প্রদান করে আসছে।

এর মধ্যে রয়েছে- সিনিয়র সিটিজেনদের জীবন ও সম্পদ সংরক্ষণ, জীবনযাপনের মূল চাহিদা পূরণ, সন্তান কর্তৃক পিতা-মাতার অবহেলায় শাস্তির বিধান, গণপরিবহন তথা রেল, বিমান, বাস, লঞ্চ ইত্যাদিতে আসন সংরক্ষণ ও হ্রাসকৃত মূল্যে সেবা প্রদান, ব্যাংক, হাসপাতালসহ বিভিন্ন সেবামূলক প্রতিষ্ঠানে অগ্রাধিকার ও হ্রাসকৃত মূল্যে সেবা প্রদান এবং বিভিন্ন জেলায় প্রবীণদের জন্য পৃথক হাসপাতাল ও প্রবীণ নিবাস স্থাপন।

বাংলাদেশ সরকার ১৯৯৮ সালে অসচ্ছল প্রবীণদের জন্য বয়স্ক ভাতা চালু করেছে। বর্তমানে প্রতি মাসে প্রায় ৪০-৫০ লাখ প্রবীণ ব্যক্তি মাসিক ৫০০ টাকা হারে বয়স্ক ভাতা পাচ্ছেন। ভারত ও উন্নত দেশগুলোর মতো বাংলাদেশ সরকার দেশের ক্রমবর্ধমান প্রবীণ জনগোষ্ঠীর কল্যাণে নিুবর্ণিত সুযোগ-সুবিধা প্রদানের বিষয়ে বিবেচনা করতে পারে। এ লক্ষ্যে রাজনৈতিক দলগুলো তাদের নির্বাচনী ইশতেহারে এগুলো অন্তর্ভুক্ত করতে পারে।

প্রবীণদের কল্যাণার্থে পৃথক মন্ত্রণালয় অথবা অধিদফতর গঠন, মাতা-পিতার ভরণপোষণ নিশ্চিতকল্পে ২০১৩ সালের প্রবীণ আইন ও নীতিমালা সংস্কার করে সময়োপযোগী করা। এছাড়া নতুন আইন প্রণয়ন করে প্রবীণদের কল্যাণে বিভিন্ন সেবামূলক সংস্থায় ন্যূনতম সুযোগ-সুবিধা প্রদানের ব্যবস্থা, গণপরিবহনে (ট্রেন, বাস, বিমান, লঞ্চ, স্টিমার) প্রবীণদের জন্য আসন সংরক্ষণ এবং হ্রাসকৃত মূল্যে সেবা প্রদান।

হাসপাতাল, ক্লিনিক, ফার্মেসি ও সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানে প্রবীণদের অগ্রাধিকার প্রদান এবং হ্রাসকৃত মূল্যে সেবা প্রদান, প্রবীণদের জন্য স্বাস্থ্য বীমা চালু করার ব্যবস্থা, জাতীয় সঞ্চয় প্রকল্পসমূহে প্রবীণদের জন্য অপেক্ষাকৃত উচ্চহারে লাভ প্রদান, সরকারি-বেসরকারি ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও অন্যান্য সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের সেবা প্রদানে প্রবীণদের অগ্রাধিকার প্রদান তথা পৃথক কাউন্টার স্থাপন, প্রবীণ কল্যাণ ব্যাংক ও হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা, রাজধানী ও বিভাগীয় শহরে পর্যায়ক্রমে প্রবীণ নিবাস প্রতিষ্ঠা, প্রবীণদের পরিচিতিমূলক পৃথক জাতীয় পরিচয়পত্র (সিনিয়র সিটিজেন কার্ড) প্রদান।

আশা করি, রাজনৈতিক দলগুলো উপরোক্ত সুপারিশের আলোকে প্রবীণদের সুযোগ-সুবিধা প্রদানের বিষয়গুলো অন্তর্ভুক্ত করে তাদের নির্বাচনী ইশতেহার তৈরি করবে।

মাহমুদ হোসেন : প্রবীণ কৃষিবিদ ও অবসরপ্রাপ্ত মহাব্যবস্থাপক, বিএডিসি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ