প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আওয়ামী লীগ বিএনপিকে গালি দিতে দিতেই নির্বাচনে যাবে: আফসান চৌধুরী

উল্লাস মূর্তজা : লেখক ও গবেষক আফসান চৌধুরী বলেছেন, বিএনপি শেষ পর্যন্ত অভিযোগ করতে করতেই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। আওয়ামী লীগ বিএনপিকে গালি দিতে দিতেই নির্বাচনে যাবে। আমরা সাধারণ জনগণ, আমরা চাই নির্বাচন। সহনশীল মাত্রার ভালো নির্বাচন হলেই আমরা খুশি। বৃহস্পতিবার ‘ডিবিসি নিউজ’ এর টকশোতে তিনি বলেন, জনগণ রাজনৈতিক হলফনামা নিয়ে হাসাহাসি করে। আসলে হলফনামা যে, একটা নির্দিষ্ট ডকুমেন্ট জনগণ কিন্তু এটা মনে করে না। তারা মনেই করে না যে, সংসদ সদস্যদের তাদের উপর দ্বায়বদ্ধতা আছে। এই বাস্তবতা যদি আমরা বুঝে যাই, তাহলে আমাদের রাজনীতি বুঝতে অনেক সুবিধা হবে।

তিনি বলেন, দু-দলের জন্যই নির্বাচনটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বড়দলের বড় নেতারাই শেষ সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন। উদাহরণ দিতে গিয়ে তিনি বলেন, ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, ‘কোনো সংলাপ হবে না’। পরের দিনই শেখ হাসিনার উদ্যোগে সংলাপের আয়োজন করা হয়।

তিনি আরও বলেন, রাজনীতির বাংলাদেশ রাজনৈতিক দলের মধ্যেই সীমাবদ্ধ। জনগণের সাথে তাদের সম্পৃক্ততা তুলনামুলক অনেক কম। আমাদের দেশের ক্ষমতার যে কাঠামো, তাতে শুধুমাত্র হলফনামার জবাবদিহিতা করতে হয় বিরোধীদলকে। সরকারিদলকে জবাবদিহি করতে হয়না। হলফনামায় সাধারণত উভয়দলের প্রার্থীর হিসেবের গণ্ড গোল থাকায় কেউ কাউকে চ্যালেঞ্জ করে না। আমাদের দেশেরমতো দেশে একজন মানুষের এতো সম্পদ সঠিক পথে অর্জন করা কখনো সম্ভব নয়।

নির্বাচন কমিশনকে চাপ সৃষ্টির জন্য রাজনৈতিক দলগুলো চাপপ্রয়োগ করে আসছে। এক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশনের সাবলীল অনুভূতি কিন্তু পরিলক্ষিত হচ্ছে না। মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, বিএনপিতো সারাক্ষণই নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে আসছে, তারপরো বিএনপি মনে হয় আগেই আন্দাজ করেছিলো, তাদেরকে এই সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে।

খালেদা জিয়ার মনোনয়ন বৈধতা পাবে এমন আশা করছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ প্রসঙ্গে আফসান চৌধুরী বলেন, সেটা অনেক বড় আইনী ব্যাপার। হলফনামা যাচাই বাছাই হলে অধিকাংশ প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল হয়ে যেতো। তবে সেটা অনেক সময় সাপেক্ষ্য ব্যাপার বলে মনে করেন তিনি। দুর্নীতি বাংলাদেশে আলাদা একটা সেক্টর ধরে নিতে পারেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ