প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অ্যাসাঞ্জ চাইলে দূতাবাস ত্যাগ করতে পারেন: ইকুয়েডর

আব্দুর রাজ্জাক : লন্ডনস্থ ইকুয়েডর দূতাবাসে অবস্থান দীর্ঘদিন ধরে করছেন উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ। এখন তিনি যদি চান, তাহলে দূতাবাস ত্যাগ করার একটি উপায় আছে বলে জানিয়েছেন ইকুয়েডর প্রেসিডেন্ট লেনিন মরেনো। এতে তিনি প্রায় ৬ বছরের স্বেচ্ছা বন্দী জীবনের অবসান হতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে। আল-জাজিরা

লেনিন মরেনো বৃহস্পতিবার বলেন, অ্যাসাঞ্জ ইতোমধ্যেই ব্রিটেনে জামিনের শর্ত ভঙ্গ করায় ৬ মাসের কারাদ- ভোগের অপেক্ষায় আছেন। তিনি বাহিরে আসলে ৬ মাসের বেশি কারাদ- ভোগ করতে হবে না এবং মৃত্যুদ- হতে পারে এমন কোন রাষ্ট্রে তাকে হস্তান্তর করা হবে না বলে ব্রিটেন জানিয়েছে। তাই তিনি শরণার্থী আশ্রয় ত্যাগ করে ব্রিটেনের কাছে আত্মসমর্পণ করলে মুক্ত হয়ে যেতে পারেন। তবে শরণার্থী আশ্রয়ের সীমা শেষ করে ইকুয়েডর তাকে যুক্তরাষ্ট্রে হস্তান্তরের চেষ্টা করছে বলে অ্যাসাঞ্জ অভিযোগ করেছেন।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালে রাজনৈতিক আশ্রয় নিতে ব্রিটেনে ইকুয়েডর দূতাবাসে প্রবেশ করেন অ্যাসাঞ্জ। তাকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে সুইডেনে প্রত্যাবাসন করে আটক করা হতে পারে, এমন আশঙ্কায় তিনি এখন পর্যন্ত সেখানেই অবস্থান করছেন। পরে তাকে মার্কিন কিছু স্পর্শকাতর নথি ফাঁস করার অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রে হস্তান্তর করা হতে পারে, এমন ভয়ে তিনি সর্বদা ভীত।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ