প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিজেপি’র হয়ে পুনে থেকে ভোটে দাঁড়াচ্ছেন মাধুরী?

মুসফিরাহ হাবীব: বলিউডের সঙ্গে রাজনীতির মেলবন্ধনের লম্বা তালিকায় এবার মাধুরী দীক্ষিতের নাম লেখানোরই আভাস পাওয়া যাচ্ছে। ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) হয়ে ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে তার লড়ার সম্ভাবনা প্রবল। পুনে লোকসভা কেন্দ্র থেকে এ লড়াইয়ে নামতে পারেন তিনি।

বিজেপিরই এক নেতা জানিয়েছেন, দল মাধুরীকে পুনে লোকসভা আসন থেকে দাঁড় করানোর কথা ভাবছে। তার নামও এরই মধ্যে রাখা হয়েছে বাছাই তালিকায়। দলীয় সভাপতি অমিত শাহ কথাও বলেছেন তার সঙ্গে।

এবছর জুনেই অমিত শাহ মুম্বাইয়ে দেখা করেছিলেন মাধুরীর সঙ্গে। তার বাড়িতে বসেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সরকারের উন্নয়নমূলক কাজের কথা তাকে বলেন অমিত। আগামী লোকসভা ভোটে প্রার্থীতালিকা নিয়ে যে বাছাইপর্ব চলছে সেখানে মাধুরীর নাম ভাবা হয়েছে পুনে কেন্দ্র থেকে।

এক বিজেপি নেতা জানান, বেশ কয়েকটি লোকসভা আসনে প্রার্থীদের নাম এখন থেকেই চূড়ান্ত করে ফেলতে চান তারা। সেদিক থেকে পুনেই মাধুরীর জন্য উপযুক্ত বলে তারা মনে করছেন।

২০১৪ সালে ভারতের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি ৩ লাখের বেশি ভোটের ব্যবধানে কংগ্রেসের কাছ থেকে পুনে আসন ছিনিয়ে নিয়েছিল। আর এখন বলিউড তারকাদেরকে ভোটে দাঁড় করানোর এ পরিকল্পনা কি মনে করে?

এ ব্যাপারে এক ঊর্ধ্বতন বিজেপি নেতা বলেছেন, মোদী প্রথমবার গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী হয়েই প্রথম এপথে এগিয়েছিলেন। আঞ্চলিক ভোটে সব পুরোনো প্রার্থী বদলে সম্পূর্ণ নতুন মুখ এনে ভোট বাক্সে সাফল্য পেয়েছিলেন তিনি। কারণ, নতুন প্রার্থীদের প্রতি ভোটারদের ক্ষোভ থাকে না। ফলে ভোটও পড়ে প্রচুর। তাই বিপুল ভোট পাওয়ার চমৎকার কৌশল এটি।

মাধুরী অবশ্য ভোটে দাঁড়ানো নিয়ে এখনো কোনো মন্তব্য করেননি। ২০১৪ সালে সৌমিক সেন পরিচালিত ‘গুলাব গ্যাং’ ছবিতে ‘রাজ্জো’র ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন মাধুরী।

ওই চরিত্রে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিলেন নারীদের হয়ে একটি গোটা গ্রামের লড়াইয়ে, নারীশিক্ষার অধিকার প্রতিষ্ঠায়। এছাড়াও, প্রকাশ ঝার ছবি ‘মৃত্যুদণ্ড’তেও তাঁকে দেখা গেছে একটি প্রতিবাদী আন্দোলনের মুখ হিসাবে। তখন যদিও মাধুরী বলেছিলেন, রাজনীতিতে আসার ইচ্ছে তার নেই। তবে পরবর্তীতে যে তিনি মত বদলেছেন, বিজেপির খবরে রয়েছে সে ইঙ্গিতই।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ