Skip to main content

ফুলবাড়ীতে যত্রতত্রভাবে চলছে অবৈধ বালু উত্তোলন!

মো. রজব আলী, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে অবৈধ বালু উত্তোলনের ফলে হুমকিতে পড়েছে ফসরি মাঠ। ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে রাস্তা-ঘাট। উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নে গিয়ে দেখা যায়, রাজারামপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সন্নিকটে ছোট যমুনা নদি থেকে বালু উত্তোলন করছে, শিবনগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ চৌধুরী বিপ্লব এর ছোট ভাই রিপোন চৌধুরী। এই বিষয়ে শিবনগর ইউপি চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, উপর মহলের অনুমতি নিয়ে নাকি, তিনি বালু উত্তোলন করছেন। একইভাবে দৌলতপুর কুসলপুর ঘাট থেকে বালু উত্তোলন করছে দৌলতপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজের ছোট ভাই মতিয়ার রহমান, এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে অবৈধভাবে চলছে বালু উত্তোলন। বালু উত্তোলনকারীরা সকলে বলছে তারা নাকি উপর মহলের নির্দ্দেশে বালু উত্তোলন করছে, সেই উপর মহলটি কে, জিজ্ঞেস করলে একেক সময় একক জনের নাম বলেন কিন্তু তাদের সেই দাবির কোন সত্যতা মিলেনি। এদিকে যত্রতত্রভাবে বালু উত্তোলন করায় হুমকিতে পড়েছে ফসলি মাঠ, বালু উত্তোলনের কারণে আগামী বর্ষায় নদি গর্ভে ভেঙ্গে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে নদি পড়ের আবাদি জমি। এছাড়া বালু বহন করায় ভেঙ্গে যাচ্ছে গ্রামের রাস্তা-ঘাটও। এই বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সালামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন অবৈধভাবে যেই বালু উত্তোলন করবে, তার বিরুদ্ধেই আনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। উপজেলা প্রশাসনে খোজ নিয়ে জানাগেছে, বর্তমানে দীর্ঘদিন থেকে সহকারী কমিশনারের পদটি শূণ্য রয়েছে, এই উপজেলায় একজন মাত্র নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট, উপজেলা নির্বাহী অফিসার। উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভিন্ন দাপ্তরিক কাজে ব্যস্থ থাকার কারনে সময় মত বালু খেকোদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করতে পারছেনা । এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে অবৈধ বালু উত্তোলনকারীরা উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন শুরু করেছে। উপজেলার যত্রতত্রভাবে বালু উত্তোলন করায় সেই বালু পরিবহন হচ্ছে উপজেলার বিভিন্ন রাস্তা-ঘাট দিয়ে এতে গ্রামের রাস্তা-ঘাট গুলোর ব্যাহাল দশায় পরিনত হয়ে পড়ছে। অপরদিকে বালু বহনকারী ট্রক্টরের কারনে রাস্তায় সড়ক দুর্ঘটনায় বৃদ্ধি পেয়েছে।