প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রাজনীতিতে এতো অনৈতিকতা অতীতে কখনো ঘটে নাই : রুহিন হোসেন প্রিন্স

উল্লাস মূর্তজা : সিপিবি সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স বলেছেন, রাজনীতিতে এতো অনৈতিকতা অতীতে কখনো ঘটে নাই। আর এসব ঘটার প্রধান কারণ ক্ষমতা। কারো কারো ক্ষেত্রে যে কোনোভাবে এমপি থাকতে হবে। এটা হচ্ছে সবচেয়ে ভালো ব্যবসা। এদের উপর ভিত্তি করে যে ক্ষমতা, সেটা আরো উপড়ের জায়গা। ফলে জোট-মহাজোটে যা ঘটছে সব জায়গায় একই অবস্থা। বুধবার ‘চ্যানেল ২৪’ এর ‘মুক্তবাক’ টকশোতে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, একদিকে চলছে ক্ষমতা কেন্দ্রীক খেলা। আমার বিবেচনায় এটা হচ্ছে উপরের খেলা। এর মধ্যে সাধারণ মানুষের সম্পৃক্ততা নেই। সাধারণ মানুষকে আমরা এমন একটা জায়গায় আমরা রেখেছি, তাদের যে দ্বায়বদ্ধতা আছে এবং এটার বিরুদ্ধে তাদেরকেই সোচ্চার হতে হবে। তাদেরকে বুঝতে হবে বোঝাতে হবে।

নতুন প্রজন্ম প্রায় ৩ কোটি ভোটার, তাদের রাজনীতিবিদদের সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণা তৈরি হচ্ছে। এখন প্রত্যেকটা দলের নির্বাচনী ইশতেহারে একটা শব্দ ব্যবহার করা প্রয়োজন ছিলো রাজনীতি বাঁচাও। রাজনীতির কোনো নীতি নেই যাও বা ছিলো এবারের নির্বাচনের সব ধুয়ে মুছে গেছে।

ড. কামাল হোসেন নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন না প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সেটা মুখ্য ব্যাপার নয়। এখানে বিএনপি, জামায়াতে ইসলামীসহ যে জোট রয়েছে সেই অনৈতিকতার জায়গার নেতৃত্ব ড. কামাল হোসেনই দিচ্ছেন। অনৈতিকতার সাথে মিলিয়েই সুবিধাবাদ নতুন একটা ফেনোমেনা হয়ে বাংলাদেশে আবির্ভুত হয়েছে।

রুহিন হোসেন প্রিন্স বলেন, লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড এর ব্যাপারে বামপন্থী এবং অন্যান্য দলগুলোর অনেকটা পার্থক্য রয়েছে। আওয়ামী লীগ বা বিএনপি সমানভাবে মাঠে থাকতে পারলেই যেন লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড হয়ে গেলো। লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড বলতে আমি বুঝি, টাকার খেলা বন্ধ করতে হবে, পেশীশক্তি ব্যবহার বন্ধ করা, সাম্প্রদায়িক আঞ্চলিক প্রচার প্রচারণা বন্ধ করা, প্রশাসনিক কারসাজি হবে না এর নিশ্চয়তা দেয়া। যদি সেটা না হয় তাহলে কখনো লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড হবে না।

আচরণ বিধি লঙ্ঘনের ব্যাপারে বড় দলগুলোর কাছ থেকে যা দেখছি, সে ব্যপারে নির্বাচন কমিশন সম্পূর্ণ নির্বিকার। এ ধরনের ঘটনা ঘটতেই পারে কিন্তু নির্বাচন কমিশনের উচিৎ সেই জায়গাগুলোতে লক্ষ রাখা।

মনোনয়ন বাতিলের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ছোট খাটো ত্রুটি নির্বাচন কমিশনের উচিৎ ছিলো সংশোধন করে দেয়া। তাহলে এতো মনোনয়ন বাতিল হতো না। আর প্রার্থীদের এতো ঝামেলাও পোহাতে হতো না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত