প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নির্বাচনের প্রভাবে দেশে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথের ব্যবহার বেড়েছে

বাংলা ট্রিবিউন : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্রে করে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথের ব্যবহার অন্তত ১৫ ভাগ বেড়ে গেছে। বিভিন্ন ধরনের যোগাযোগভিত্তিক অ্যাপের ব্যবহার বেড়েছে ২০ভাগ। নির্বাচন অনুষ্ঠানের কাছাকাছি সময়ে ব্যান্ডউইথের ব্যবহার দ্বিগুণ হয়ে যেতে পারে বলে মনে করছেন ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো।

দেশে বর্তমানে ৮৫০ জিবিপিএস (গিগাবাইট পার সেকেন্ড) ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ ব্যবহার হচ্ছে। সম্প্রতি ব্যান্ডউইথের ব্যবহারের পরিমাণ ১২৮ জিবিপিএসের মতো বেড়েছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সামনে নির্বাচন। মানুষের মধ্যে যোগাযোগের হার দিন দিন বাড়ছে। স্মার্টফোনের কারণে সহজ যোগাযোগ মাধ্যম হয়ে দাঁড়িয়েছে ইন্টারনেট। এসবের ফলেই ইন্টারনেটের ব্যবহার বেড়েছে।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ ২০০৬ সালে সাবমেরিন ক্যাবল সি-মি-ইউ-৪-এ যুক্ত হয়। এটি দিয়ে দেশে আসছে ২৫০ জিবিপিএস’র ব্যান্ডউইথ। আর দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল সি-মি-ইউ-৫ দিয়ে আসছে ৪৫০ জিবিপিএস। যদিও দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবলের সক্ষমতা এক হাজার ৫০০ জিবিপিএস। অন্যদিকে, ছয়টি আইটিসি—সামিট কমিউনিকেশন লিমিটেড, ফাইবার অ্যাট হোম, নভোকম লিমিটেড, ওয়ান এশিয়া, বিডি লিংক কমিউনিকেশন লিমিটেড ও ম্যাংগো টেলিসার্ভিসেস লিমিটেডের মাধ্যমে ভারত থেকে বর্তমানে দেশে আসছে ১০০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ।

জানতে চাইলে দেশে ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন আইএসপিএবির সাধারণ সম্পাদক ইমদাদুল হক বলেন, ‘সম্প্রতি মানুষের ডাটার (ইন্টারনেট) ব্যবহার বেড়েছে। আমরা বুঝতে পারছি ব্যান্ডউইথের ব্যবহার দেখে। সামনে নির্বাচন। প্রার্থী, দলীয় কর্মীসহ এলাকার মানুষদের মধ্যে যোগাযোগের হারও বেড়েছে।’ তিনি উল্লেখ করেন, ‘আমরা তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে দেখেছি, মানুষের মধ্যে সম্প্রতি বিভিন্ন ধরনের যোগাযোগ অ্যাপসের ব্যবহারও বেড়েছে। অন্যান্য সময়ের তুলনায় যা ২০ শতাংশ বেশি।’ ইমদাদুল হক আশাবাদ ব্যক্ত করেন, এইভাবে চলতে থাকলে নির্বাচনের মুখে ব্যান্ডউইথের ব্যবহার এখনের চেয়ে দ্বিগুণ হয়ে যেতে পারে।

মোবাইল ইন্টারনেটেও নির্বাচনি প্রভাব লক্ষ করা গেছে। অপারেটরের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা বলছেন, গ্রাহকের ডাটার ব্যবহার সম্প্রতি বেড়েছে। কিন্তু এটা নির্বাচন উপলক্ষে কিনা, তা তারা নিশ্চিত নন।

নাম পরিচয় প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি অপারেটরের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা লক্ষ করেছি, আমাদের ডাটা ব্যবহার বেড়েছে। গ্রাহক বেশি বেশি ডাটা ব্যবহার করছে। কিন্তু সেটা নির্বাচনের কারণেই যে এটা আসলে বলা মুশকিল।’ তিনি জানান, ‘ফোরজি চালুর পর থেকে মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারের হার বাড়ছেই। সম্প্রতি দেখা যাচ্ছে ইন্টারনেট ব্যবহারের হার লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। এটা ফোরজি কাভারেজ বৃদ্ধি পাওয়ার কারণেও হতে পারে।’ তবে তিনি মনে করেন, ‘ব্যান্ডউইথ ব্যবহারের হার বাড়ার পেছনে নির্বাচন একটা কারণ হলেও হতে পারে।’

একাধিক আইআইজির (ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়ে) কাছে জানতে চাইলে সংশ্লিষ্টরা জানান, অতি সম্প্রতি ব্যান্ডউইথের ব্যবহার বেশি বোঝা যাচ্ছে। স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় বর্তমানে ১৫-২০ ভাগ বেড়েছে ব্যান্ডউইথের ব্যবহার।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ