প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কলাপাড়ায় সোনালী ব্যাংক থেকে শিক্ষকের টাকা গায়েব

উত্তম কুমার হাওলাদার, কলাপাড়া(পটুয়াখালী) : পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় সোনালী ব্যাংক স্থানীয় শাখায় টিটি করতে এসে এক শিক্ষকের ৯৫ হাজার টাকা গায়েব হয়েছে। মঙ্গলবার (৪ ডিসেম্বর) ব্যাংক কাউন্টারের কাছে টিটি ফরম পুরন করার সময় প্রতারক চক্র শিক্ষকের টাকার ব্যাগটি নিয়ে চম্পট দেয়। তবে ঘটনাটি ব্যাংকের সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়লেও প্রতারকদের সন্ধান পাওয়া যায়নি। তবে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

জানা গেছে, উপজেলার চাকামইয়া ইউনিয়নের কাছিমখালী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো.মোয়াজ্জেম হোসেন মংগলবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে জনতা ব্যাংক কলাপাড়া শাখার তার একাউন্ট থেকে ১ লাখ ৫ হাজার টাকা তোলেন। সাথে সাথে তিনি ওই টাকা থেকে ৯৫ হাজার টাকা তার এক আত্মীয়’র কাছে অনলাইনে পাঠানোর জন্য সোনালী ব্যাংক কলাপাড়া শাখায় আসে। সেখানে একটি টেবিলে বসে টিটি ফরম লেখার সময় প্রতারক চক্রের সদস্যরা তার পাশে দু’টি এক’শ টাকার নোট এবং কয়েকটি ২০ টাকা ও কয়েকটি ১০ টাকার নোট ফেলে রাখে। সাথে সাথে প্রতারক চক্রের একজন সদস্য শিক্ষকের পেছন থেকে টোক্কা মেরে তাকে বলেন, আপনার টাকা পড়েছে। শিক্ষক ওই টাকা ওঠানোর সময় টেবিলে রাখা টাকার ব্যাগটি নিয়ে চম্পট দেয় প্রতারক চক্রের সদস্যরা ।

সোনালী ব্যাংক ব্যবস্থাপক মো.আবুল কালাম আজাদ জানান, শিক্ষকের টাকা গায়েব হওয়ার বিষয়টি জানানোর সাথে সাথে প্রতারকচক্র পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

শিক্ষক মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, তিনি জনতা ব্যাংক থেকে টাকা তোলার সময় প্রতারক চক্র তাকে টার্গেট করেছে । তবে তারা অন্ততঃ তিনজন ব্যাংকের মধ্যে অবস্থান করছিল বলে তিনি জানান।

কলাপাড়া থানার পুলিশ উপ-পরিদর্শক বিপ্লব চন্দ্র মিস্ত্রি জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর চেষ্টা চালানো হচ্ছে, তবে প্রাথমিক ভাবে ব্যাংকের ভিডিও ফুটেজ দেখে প্রতারকদের চেনা যায়নি বলে তিনি জানান। তবে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ