প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নেপালে যৌথ উদ্যোগে বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে স্টিয়ারিং কমিটি গঠন

শাহীন চৌধুরী: নেপালে দুই দেশের বিদ্যুৎ সহযোগিতার জন্য বাংলাদেশ-নেপাল যৌথ দুটি স্টিয়ারিং কমিটি গঠন করা হয়েছে। এরমধ্যে প্রথম কমিটি কারিগরি বিষয়গুলো নিয়ে পর্যালোচনা করবে, অন্য কমিটি নেপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের বিষয়টি খতিয়ে দেখবে। খবর বিপিডিবি সূত্রের।

সূত্র জানায়, স্টিয়ারিং কমিটির রিপোর্ট পাওয়ার পর নেপালে বিনিয়োগের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে দুই দেশের সরকার। বাংলাদেশ-নেপালের জলবিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের সম্ভাব্যতা নির্ণয়ে যৌথ কমিটি গঠন করেছে দুই দেশ। ৩ এবং ৪ ডিসেম্বর বাংলাদেশ-নেপাল স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠকে কমিটি গঠন করা হয়। এখন এই কমিটির প্রতিবেদনের ওপর নেপালে বাংলাদেশের বিনিয়োগ নির্ভর করছে।

পিডিবি জানায়, এখন ভারত থেকে বাংলাদেশ এক হাজার ২৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি করছে। এর বাইরেও প্রতিবেশী অন্য দেশের সঙ্গে বিদ্যুৎখাতের সহায়তা সম্প্রসারণের চেষ্টা করা হচ্ছে। এরমধ্যে যেসব দেশে জল বিদ্যুৎ উৎপাদনের সম্ভাবনা রয়েছে ওই দেশগুলোকেই বেছে নেওয়া হচ্ছে।

বিদ্যুৎ বিভাগ সূত্রমতে, সার্ক ফ্রেমওয়ার্ক এগ্রিমেন্টেও বিদ্যুৎখাতে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর এক সঙ্গে কাজ করার কথা উল্লেখ রয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, পারস্পরিক সম্পর্ক বৃষ্টি করে আন্তঃসীমান্ত বিদ্যুৎ বাণিজ্যের মাধ্যমে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলো নিজেদের বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সংকট সমাধান করতে পারে। দক্ষিণ এশিয়ায় এক লাখ মেগাওয়াটের বেশি জলবিদ্যুৎ উৎপাদনের সম্ভাবনা রয়েছে। যদিও দেশগুলো নিজেদের সম্পর্ক উন্নয়ন করে এই সুবিধাকে এখনও কাজে লাগাতে পারছে না। বাংলাদেশ এক্ষেত্রে প্রথম প্রতিবেশীদের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে।

বাংলাদেশ-নেপাল দুই দিনের বৈঠকে দুই দেশের বিদ্যুৎ সচিব নেতৃত্ব দেন। এজন্য বিদ্যুৎ সচিব ড. আহমদ কায়কাউসের নেতৃত্বে ২ ডিসেম্বর একটি প্রতিনিধি দল নেপালে যান। ওই কমিটিতে মন্ত্রণালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিব, একজন যুগ্ম সচিব, একজন উপসচি ছাড়াও পিডিবি চেয়ারম্যান, পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক রয়েছেন।
বৈঠক সূত্র জানায়, দুই দিনের বৈঠকে মূলত বাংলাদেশ ও নেপাল কোন কোন ক্ষেত্রে যৌথভাবে কাজ করতে পারে, সেই আলোচনা হয়েছে। উভয় দেশ বিদ্যুৎ উৎপাদন এবং উৎপাদিত বিদ্যুৎ সঞ্চালন নিয়ে আলোচনা করে। এছাড়া যৌথ বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের আগেই ভারতের জিএমআর থেকে ৫০০ মেগাওয়াট ও এছাড়া ভারতের রাষ্ট্রীয় কোম্পানি এনভিভিএন নেপাল থেকে ৫০০ হতে ৯০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ বাংলাদেশে বিক্রি করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এ জন্য বাংলাদেশ সরকার অথবা বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি)-এর সঙ্গে দীর্ঘ মেয়াদি বিদ্যুৎ বিক্রয় চুক্তি সইয়ের প্রস্তাব দিয়েছে। বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের আগেই এই বিদ্যুৎ বাংলাদেশ আমদানি করতে পারে।

প্রসঙ্গত, নেপালে ৩০ হাজার মেগাওয়াট জলবিদ্যুৎ উৎপাদনের সম্ভাবনা থাকলেও দেশটি বর্তমানে সামান্য পরিমাণ বিদ্যুৎ উৎপাদন করছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ