প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ক্রিকেটের যে রেকর্ডে সব দলকে ছাড়িয়ে শীর্ষে আফগানিস্তান

আক্তারুজ্জামান : আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বয়স প্রায় দুশো বছর হতে চললো। এই সময়ের মাঝে এসেছে অনেক বিবর্তন। সময়, খেলার সরঞ্জাম, খেলার নিয়ম, খেলার ফরম্যাট সব মিলিয়ে নানান পরিবর্তন হয়েছে ক্রিকেটে। স্বীকৃতি পেয়েছে অনেক দল। আবার স্বীকৃতির চেষ্টায় করছে অনেকে। আন্তর্জাতিক টেস্ট ক্রিকেটের সবচেয়ে নবীনতম দল হলো আফগানিস্তান। সেই নবীন দলই ক্রিকেটের সব দলকে ছাড়িয়ে শীর্ষস্থানে অবস্থান করছে। শুধু তাই নয়, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে টানা এগারো ম্যাচ জয়ের রেকর্ডও আফগানদের।

জায়গাটা হলো টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে জয়ের শতাংশ। অন্যসব দলের চেয়ে জয়ের ক্ষেত্রে সবচে এগিয়ে আছে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত এ ফরম্যাটে এ পর্যন্ত ২২টি দেশ খেলেছে। আর দশ হিসেবে আরো একটির নাম আসবে- বিশ্ব একাদশ। এই ২৩ দলের মধ্যে জয়ের শীর্ষে আছে রশিদ খান-মো. নবিরা।

আফগানিস্তান এ পর্যন্ত ৬৮টি ম্যাচ খেলেছে। যেখানে জয় পেয়েছে ৪৬টি ম্যাচে। শতকরা হিসেবে প্রায় ৬৮ শতাংশ! ক্রিকেটের অন্যতম পরাশক্তির দলগুলোকে পিছনে ফেলে এই জায়গাটাতে অতি অল্প সময়ে উপরে উঠে এসেছে আফগানিস্তান। এই তালিকতার দ্বিতীয় স্থানে আছে পাকিস্তান। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলা পাকিস্তান ১৩৯ ম্যাচ খেলে জয় পেয়েছে ৮৯ বার। যা শতকরা হিসেবে ৬৫.১০ শতাংশ। এরপরই আছে ভারতের স্থান। ১১০ ম্যাচ খেলে ৬৪.৯০ শতাংশ ম্যাচে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে টিম ইন্ডিয়া।

দক্ষিণ আফ্রিকার অবস্থানটা ঠিক এর পরেই। ১১০ বার প্রতিপক্ষের সামনে দাঁড়িয়ে ৬৩ বার জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে প্রোটিয়রা। শতকরা হিসেবে আসে ৫৯.৪৩ শতাংশ। পুচকে দেশ নেদারল্যান্ডকে পাবেন তালিকার পঞ্চম স্থানে। ৫০ ম্যাচে ৫৫.৩১ শতাংশে মোট ২৬ ম্যাচে জয় পেয়েছে ডাচরা।

পরাশক্তিদের মধ্যে অস্ট্রেলিয়া ১১৪ ম্যাচে ৫২.৬৭ শতকরায় জয় পেয়েছে ৫৮টি ম্যাচে। ১০৫ টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে ইংল্যান্ড। জয়-পরাজয়ের হার দাঁড়িয়েছে ৫০-৫০। নিউজিল্যান্ড ১১৪ ম্যাচ মাঠে নেমে জয় পেয়েছে ৫৪ ম্যাচে। শতকরা হারে আসে প্রায় ৫১ শতাংশ। শ্রীলঙ্কার জয়-পরাজয়ের হারও ফিফটি ফিফটি। টি-টোয়েন্টির রাজা হিসেবে খ্যাত ওয়েস্ট ইন্ডিজ অবশ্য জয়ের চেয়ে ম্যাচ হেরেছেই বেশি। ১০৪ ম্যাচে ৪৭ জয়ের বিপরীতে হেরেছে ৫০ বার।

টি-টোয়েন্টির জয়-পরাজয় হারে বেশ পিছিয়ে আছে বাংলাদেশ। এ পর্যন্ত মোট ৮২টি ম্যাচে খেললেও জয় পেয়েছে মাত্র ২৫ বার। হারতে হয়েছে ৫৫টি ম্যাচে। দুটি ম্যাচের কোনো ফলাফল বের হয়নি। জয়ের হার মাত্র ৩১.২৫ শতাংশ। টাইগারদের চেয়ে এগিয়ে আছে হংকং, আয়ারল্যান্ড, কেনিয়া, পপুয়া নিউগিনি ও স্কটল্যান্ড।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত