প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আতঙ্কের জন্য সিএমএইচে এরশাদ : রাঙা

মো. ইউসুফ আলী বাচ্চু : আতঙ্কের কারণে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ সিএমএইচে থাকেন বলে জানিয়েছেন পার্টির নতুন মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙা।

নিজ বাসায় একা থাকতে ভয় পান এরশাদ উল্লেখ করেন জাপা মহাসচিব বলেন, এ জন্য হাসপাতালে নার্সসহ চিকিৎসার সার্বিক সুবিধা পেতে সিএমএইচে থাকছেন এরশাদ।

মঙ্গলবার জাপা চেয়ারম্যানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে রাঙা বলেন, বাসায় তার নিকটতম কোনো আত্মীয়-স্বজন নেই। এ কারণে একটু অসুবিধে হলে আম্বুল্যেন্স নিয়ে সিএমএইচে চলে যান।

নির্বাচনের কয়েক মাস আগেও এরশাদের সিএমএইচে যাওয়ার কোন খবর শোনা যায়নি। তবে ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের সময় এবং একাদশ জাতীয় নির্বাচনের আগে জাপা চেয়ারম্যানের সিএমএইচ যাওয়া নিয়ে রাজনৈতিক মহলে সমালোচনা হচ্ছে।

এরশাদের শারীরক অবস্থার কথা একবার খারাপ উচ্চারণ করে, আবার একই বক্তব্যে ভালো উচ্চারণ করার মধ্যে দিয়ে মহাসচিব রাঙা বলেন, ‘এখন থেকে এক ঘণ্টা আগে আমি তার সাথে কথা বলে এসেছি। উনি রংপুরের কোল্ড স্টোরেজের বেতন তালিকায় স্বাক্ষর করেছেন। তিনি আমার সাথে কথা বললেন, তার ছেলে স্বাদের সাথে কথা বললেন। জি এম কাদের সাবেহ তার সাথে কথা বলেছেন। সুতরাং শতভাগ সুস্থ্য আছেন।’

তিনি সুস্থ্য আছেন হেটে আমার কাছে এসেছেন। সব স্বাভাবিক আছে। গতকাল রাত ১টার দিকে তিনি (এরশাদ) সিএমএইচে গেছেন। তার আগে বাসায় ছিলেন জানান রাঙা।

এমন কথার কিছু পরে রাঙা আবার বলেন, যদিও তার দেশের বাইরে যাওয়া জরুরি। আমরা মনে করছি এতোটা জরুরি নয়। জাপার ৩০০ আসনে প্রার্থী দেয়ার প্রচারণার কারণে তৃণমূলের প্রস্তুতিতে ব্যাঘাত ঘটে জোটের রাজনীতির কাছে। এ কারণে মনোনয়নপত্র প্রত্যাশীদের চাপ সামলাতে প্রথমে এরশাদ সিএমএইচে গেছিলেন। দলীয় প্রার্থীদের এমন অভিযোগ জাপার নীতিনির্ধারকেরা আমলে নেন নাই।

তবে নতুন মহাসচিব এ বিষয়টি স্পষ্ট করে বলেছেন, সবাই নমিনেশন চায়। এগুলো নিয়ে সে (এরশাদ) বিব্রতকর অবস্থায় আছেন। এছাড়া তার শরীরে ইনফেকশন আছে। এসব কিছু এড়িয়ে চলতে হাসপাতালে থাকছেন।

এদিকে ৯ ডিসেম্বরের মধ্যে মহাজোটের প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করার কথা জানান রাঙা। জাপার প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত হলে দেশের বাইরে যাবেন এরশাদ। ১০ ডিসেম্বর যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ