প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিএনপি প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিলের পরেও লড়তে হবে প্রধানমন্ত্রীকে

সাব্বির আহমেদ : বিএনপি মনোনীত প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল হওয়ার পরও গোপালগঞ্জ-৩ আসনে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় সুযোগ নেই। কেন না ওই আসনে আওয়ামী লীগ-বিএনপিসহ মোট ৭ জন স্ব-স্ব দলের মনোনয়ন পান। যার মধ্যে ৫ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে। বাতিল হয়েছে বিএনপির প্রার্থী এস এম জিলানী ও জাতীয় পার্টির এজেডএম অপু শেখের মনোনয়নপত্র। তাই নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জিলানীর মনোনয়ন বাতিল হলেও শেষ পর্যন্ত লড়তে হবে প্রধানমন্ত্রীকে।

রোববার যথাযথ কাগজপত্র ও স্বাক্ষর না থাকায় জিলানী ও অপু শেখের মনোনয়নপত্র বাতিল করেন স্থানীয় নির্বাচন কমিশন। অনেক আসনে একাধিক প্রার্থী দিলেও প্রধানমন্ত্রী আসনে বিএনপি একজন প্রার্থী দিয়েছিল। কিন্তু সেটিও বাতিল হয়ে যায়। যদিও এই আসনে বিকল্প ভাবছে বিএনপি। আসতে পারে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী।

আওয়ামী লীগের ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত গোপালগঞ্জ-৩ আসন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মস্থান টুঙ্গিপাড়া। এ আসনে আওয়ামী লীগের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা বরাবরই জামানত হারান। স্বাধীনতা পরবর্তী প্রায় সব ক’টি জাতীয় নির্বাচনে জয় পেয়েছে দলটি।

কোটালীপাড়া ও টুঙ্গিপাড়া উপজেলা নিয়ে গঠিত গোপালগঞ্জ-৩ আসন। টুঙ্গিপাড়া উপজেলার ৫টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা এবং কোটালীপাড়া উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা নিয়ে গঠিত গোপালগঞ্জ-৩ আসন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ