প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিশ্বের শক্তিশালী পাসপোর্ট এখন আমিরাতের

প্রথম আলো : জার্মানিকে হটিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্ট হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) পাসপোর্ট। দেশটির পাসপোর্টধারীরা প্রাক-ভিসা ছাড়াই বিশ্বের ১৬৭টি দেশে ভ্রমণ করতে পারবেন। ৪৭তম জাতীয় দিবস উদযাপনের আগে গত শনিবার এ খবর পেয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের মানুষ। ‘আরব নিউজ’ ও ‘গালফ নিউজ’-এর খবরে এসব কথা বলা হয়েছে।

পাসপোর্ট ইনডেক্সের ডিসেম্বর ২০১৮-এর প্রতিবেদন অনুসারে, আন্তর্জাতিক আর্থিক উপদেষ্টা প্রতিষ্ঠান আর্টন ক্যাপিটাল প্রতিবছর পাসপোর্ট ইনডেক্স প্রকাশ করে থাকে। সূচকটিতে একজন পাসপোর্টধারী কতগুলো দেশে বিনা ভিসায় প্রবেশ বা প্রবেশের সময় ভিসার সুবিধা পেয়ে থাকেন, তার ওপর ভিত্তি করে দেশগুলোর পাসপোর্টের অবস্থানের তালিকা করা হয়।

শনিবার প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শীর্ষ তালিকার দ্বিতীয় স্থানে আছে সিঙ্গাপুর। গত বছরের শীর্ষস্থানধারী জার্মানি নেমে গেছে তৃতীয় স্থানে। এরপর তালিকার শীর্ষ দশে আছে যথাক্রমে ডেনমার্ক, সুইডেন, ফিনল্যান্ড, লুক্সেমবার্গ, ফ্রান্স, ইতালি ও নেদারল্যান্ডস। সংযুক্ত আরব আমিরাতের পাসপোর্টধারীরা একই সঙ্গে বিশ্বের ৫৪টি দেশে অন অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধাও পেয়ে থাকে। বিশ্বের মাত্র ৩১টি দেশে ভ্রমণের জন্য ভিসার প্রয়োজন পড়ে দেশটির পাসপোর্টধারীদের।

আরব আমিরাতের পর থাকা দুই দেশ সিঙ্গাপুর ও জার্মানির পাসপোর্টধারীরা বিশ্বের ১৬৫ দেশে প্রাক-ভিসা ছাড়াই ভ্রমণ করতে পারেন।

২০১৬ সালের ডিসেম্বরে আরব আমিরাতের পাসপোর্টের র‌্যাঙ্কিং বিশ্বে ছিল ২৭ নম্বরে। এ বছরের অক্টোবরেও ছিল সেরা ৪-এ, নভেম্বরে পৌঁছায় ৩-এ। আর ডিসেম্বরের প্রথম দিনে জার্মানিকে হটিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্টে জায়গা করে নেয় আরব আমিরাতের (ইউএই) পাসপোর্ট।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের সরকার নতুন পাসপোর্ট ইনডেক্স র‌্যাঙ্কিংকে অসাধারণ সাফল্য হিসেবে অভিহিত করেছে। আরব আমিরাতে ‘জায়েদ বর্ষ’ ও ৪৭তম জাতীয় দিবস পালনের সময় এ সাফল্য অর্জন করল দেশটি। সংযুক্ত আরব আমিরাত রাষ্ট্রের জনক শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ২০১৮ সালকে ‘জায়েদ বর্ষ’ ঘোষণা করেছে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভাইস প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বিন রশীদ আল মাকতুম টুইট বার্তায় দেশটির জনগণকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। টুইটে তিনি বলেন, ‘জাতীয় দিবসে আমাদের আনন্দ আরও বেড়ে গেল। আমাদের অর্জন দ্বিগুণ হয়ে গেল।’ এ অর্জনের জন্য দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ আব্দুল্লাহ বিন জায়েদকে ধন্যবাদ জানান শেখ মোহাম্মদ বিন রশীদ আল মাকতুম।

এর আগে এ বছরের অক্টোবরে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্ট হয়েছিল জাপানি পাসপোর্ট। নাগরিকত্ব ও বিশ্বে বসবাসকারী নাগরিকদের নিয়ে কাজ করা প্রতিষ্ঠান হেনলি অ্যান্ড পার্টনার্স পাসপোর্ট ইনডেক্স এ তথ্য জানায়। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, ১৯০টি দেশে ভিসা ছাড়াই যাতায়াত করতে পারবেন জাপানি নাগরিকেরা। শক্তিশালী পাসপোর্টের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে আছে সিঙ্গাপুর। জাপানের চেয়ে মাত্র একটি দেশে পিছিয়ে আছে। সিঙ্গাপুরের পাসপোর্টধারীরা ১৮৯দেশে ভিসা ছাড়াই যাতায়াত করতে পারেন।

এ বছরের শুরুতে শক্তিশালী পাসপোর্ট তালিকার শীর্ষে ছিল জার্মানি। ভিসা ছাড়া ১৮৮টি দেশে প্রবেশাধিকার ছিল তাদের। অক্টোবরে দেশটির অবস্থান তৃতীয়। জার্মানির সঙ্গে একই অবস্থানে থেকে তৃতীয় স্থানে ফ্রান্স ও দক্ষিণ কোরিয়া।