প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আল্লামা শফীর নামে প্রচারিত মামলা করার নির্দেশনাটি বানোয়াট

ডেস্ক রিপোর্ট : টঙ্গী মাঠে সংগঠিত তাবলীগের বিবাদমান পরিস্থিতি নিয়ে হেফাজতের আমির আল্লামা শফীর নামে একটি বিজ্ঞপ্তি ঘুরে বেড়াচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। কওমী মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড আল হাইয়াতুল উলয়ার অফিসিয়াল প্যাডের কপি ব্যাবহার করে আল্লামা শফীর স্বাক্ষর সম্বলিত এই নির্দেশনাটি প্রচার করা হচ্ছে। যেখানে লেখা আছে,

আল্লামা শাহ আহমদ শফী [দা.বা.] এর নির্দেশক্রমে জানানো যাচ্ছে যে, প্রতিটি জেলা উপজেলায় ওলামায়ে কেরাম এবং তাবলীগী সাথী ও মুরুব্বীদের সাথে পরামর্শ করে টঙ্গী মাঠে সা’দ পন্থীদের হামলায় নিহত আহতদের পক্ষে ইঞ্জিনিয়ার ওয়াসিফুল ইসলাম, নাসিম, মাও. মোশাররফ, মাওঃ আশরাফ আলী, আঃ রশিদ চাঁদপুর গংদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করতে হবে। এছাড়া স্থানীয়ভাবে সামর্থ অনুযায়ী বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভার আয়োজন করতে হবে।

বি.দ্র. পরামর্শক্রমে একজন বাদী হয়ে উকিলের মাধ্যমে মামলা করবেন।

পাবলিক ভয়েস টিমের অনুসন্ধানে দেখা গেছে এই নির্দেশনাটি সঠিক নয় এমনকি এ ব্যাপারে আল্লামা শফী এবং হাইয়াতুল উলয়ার অফিসও কিছু জানে না।

সত্যতা জানার জন্য প্রথমে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হয় হাইয়াতুল উলয়ার অফিসে। কিন্তু তাদের অফিসে মেইল করে, ফোন করে কোন সাড়া না পাওয়ায় যোগাযোগ করা হয় আল্লামা শফী পুত্র মাও. আনাসের সাথে। তিনি খোজ নিয়ে জানাচ্ছেন বলার পর পুনরায় ফোন করা হয় আল্লামা শফীর খাদেম মাও. শফীর কাছে। মাও. শফী বলেন, “এমন কিছু আমার জানা নেই। আমি এখন ছুটিতে আছি”

কিছুক্ষণ পর রাত আটটার দিকে মাও. আনাস মাদানী পাবলিক ভয়েস অফিসে ফোন করে সত্যতা জানিয়ে বলেন, এমন কোন নির্দেশনা আল্লামা শফী এবং হাইয়াতুল উলয়ার পক্ষ থেকে যায়নি। হাইয়াতুল উলয়ার দফতর সম্পাদকের সাথে কথা বলেছেন বলেও তিনি জানান। সাথে সাথে তিনি বলেন, তাবলীগের এই ঘটনায় আমরা দুঃখ প্রকাশ করছি এবং এর পরিপ্রেক্ষিতে কি করা যায় তা পরামর্শ করছি কিন্তু এমন কোন নির্দেশনা আমাদের পক্ষ থেকে যায়নি তাই এটা প্রচার করা থেকে সবাইকে বিরত থাকার আহবান করছি।
সূত্র : পাবলিক ভায়েস

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ