Skip to main content

অন্যায়ভাবে কোনো প্রার্থীকে বাদ দেয়া ঠিক হবে না : গোলাম মোর্তোজা

খায়রুল আলম : সাধারণত নির্বাচনের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ প্রার্থী যারা, দলের যারা গুরুত্বপূর্ণ নেতা, যাদের জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা থাকে, তারা যদি নির্বাচন করতে না পারেন, সাধারণত সে দলটি নির্বাচনের ক্ষেত্রে এক ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হয় বা হতে পারে। এ প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে এমনটি মন্তব্য করেন সাপ্তাহিক সম্পাদক গোলাম মোর্তোজা। তিনি বলেন, এবারের নির্বাচন বা নির্বাচনের প্রেক্ষাপট অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে একটু আলাদা। এদেশের মানুষ সর্বশেষ ভোট দিয়েছে ২০০৮ সালে। তারপর থেকে যতো নির্বাচন হয়েছে, নারায়ণগঞ্জ, কুমিল্লা এবং রংপুর এ তিনটি সিটি করপোরেশন নির্বাচন ও বর্তমান সরকারের আগের মেয়াদের পাঁচটি সিটি করপোরেশন নির্বাচন ছাড়া মানুষ সুষ্ঠুভাবে ভোট দিতে পারেনি। সুষ্ঠুভাবে ভোট দিতে না পারার কারণে মানুষ এবার ভোট দিতে চায়। সে ভোট দিতে চাওয়ার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ প্রার্থী যারা বাদ পড়েছেন, আমার মনে হয় না তাদের বাদ পড়ার কারণে দল হিসেবে বিএনপি বা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট কোনো সমস্যার মুখে পড়বে। সমস্যা হচ্ছে এবারের নির্বাচনে ভোটটি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে কি-না। ভোটার তার নিজের ভোট নিজেই দিতে পারবেন কি-না। সে রকম একটি পরিবেশ নির্বাচন কমিশন তৈরি করতে পারবেন কি-না। যদি ভোটার তার নিজের ভোট নিজেই দিতে পারেন, যদি নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠু ভোটের পরিবেশ তৈরি করতে পারেন, যদি সংখ্যালঘু সম্প্রদায় ভোটের দিন বা ভোটের আগে বা পড়ে কোনো সমস্যার মুখে না পড়েন, তাহলে মানুষ ভোট দিতে আসবে। ভোটও সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষভাবে হবে। সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট হলে, কে প্রার্থী আর কে প্রার্থী না, কে সমস্যায় পড়লেন আর কে পড়লেন না, তার চেয়ে বড় ব্যাপার হবে সুষ্ঠু ভোটের মাধ্যমে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াটা এগিয়ে যাবে। সে ক্ষেত্রে নির্বাচিত সরকারই দায়িত্ব নেবেন। এখন আমাদের আলোচনার বিষয় হওয়া দরকার কোন গুরুত্বপূর্ণ প্রার্থী বাদ পড়লেন সেটা নয়, কাউকে যদি অন্যায়ভাবে বাদ দেয়া হয়ে থাকে সেটা দেখার দরকার নির্বাচন কমিশনের এবং সক্রিয় ভূমিকা রাখা দরকার। কিন্তু বাদ পড়া প্রার্থী যদি যৌক্তিক কারণে, সেটা ঋণ খেলাপি হোক বা দুর্নীতির কারণে হোক, তাহলে তার বাদ পড়াই উচিত। যদি অযৌক্তিক কারণে কাউকে বাদ দেয়া হয়, তাহলে সেটা ঠিক হবে না। সেটা অন্যায় হবে। আমি বিশ্বাস করি নির্বাচন কমিশন সে রকম কিছু করবেন না। নির্বাচন কমিশন তার প্রধান দায়িত্বটি পালন করবেন। গুরুত্বপূর্ণ প্রার্থী বাছাই না করে নির্বাচন কমিশন দায়িত্ব পালন করবেন যাতে নির্বাচনটি সুষ্ঠু, গ্রহণযোগ্য এবং নিরপেক্ষ হয়।  

অন্যান্য সংবাদ