প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

তাবলীগ জামাতের মুসল্লিদের ওপর হামলাকারীদের শাস্তির দাবি

ইসমাঈল ইমু : টঙ্গীর ইজতেমা ময়দানে তাবলীগ জামাতের মুসল্লিদের ওপর হামলাকারীদের বিষয়ে তদন্ত করে তাদের শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানিয়েছে মাওলানা সাদ কান্ধলভী পন্থী তাবলীগ জামাতের আলেমরা।

সোমবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি সাগর-রুনি মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে মাওলানা আশরাফ আলী তাবলীগ জামাতের ইতিহাস তুলে ধরে বলেন, গত ২২ বছর ধরে মাওলানা সাদ বিশ্ব ইজতেমায় বয়ান করে আসছেন। তার হিন্দি ভাষায় বয়ান মাওলানা যোবায়ের আহমেদ এর মুরব্বিরা বাংলায় তরজমা করে দিতেন।

কিন্তু গত দু’বছর ধরে তারা বিশ্ব ইজতেমায় মাওলানা সাদের বিরোধিতা করছেন। কাকলাইল মসজিদে অবস্থান নিয়ে তাদের বিরোধীতার পর দু’পক্ষকে আলাদা সময় নির্ধারণ করে দেয়া হয়। পূর্বঘোষিত তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমার আগে পাঁচদিনের জোড়ে উপস্থিত হতে গিয়ে গত শনিবার সাদ পন্থীদের বাঁধা দেয়া হয়। এক পর্যায়ে দু’পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে ইসমাইল নামের এক মুসল্লি নিহত হন।

মাওলানা আশরাফ আলী সরকারের প্রতি বিভিন্ন দাবি তুলে ধরে বলেন, তাবলীগে বিদ্যমান দুটি পক্ষ সংশ্লিষ্ট স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা করে ভিন্ন ভিন্ন দিনে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করবে। এছাড়া তাবলীগের আদর্শ ও চিরাচরিত নিয়ম অনুযায়ী কোন পক্ষ অপর পক্ষের বিরুদ্ধে মৌখিক বা লিখিত অপপ্রচার চালাতে পারবেনা। দেশের সকল মসজিদে আগের মত দাওয়াতি কার্যক্রম পরিচালিত হবে। এতে উভয় পক্ষের জামাতই যেতে পারবে। তবে একই সময়ে দুই পক্ষের দেশি বিদেশি জামাত মসজিদে অবস্থান করা যুক্তিসংগত হবেনা। উভয় পক্ষ তাদের ইজতেমা বা জোড়ে দেশি বিদেশি মুরব্বিদের আমন্ত্রণ জানাতে পারবে। দুই পক্ষের বিরোধে কোনভাবেই মাদ্রাসা ছাত্রদের ব্যবহার করা যাবেনা। সংবাদ সম্মেলনে মাওলানা আব্দুল্লাহ, মাওলানা মুনির বিন ইউসুফ, মাওলানা সাইফুল্লাহ প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ