প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

লক্ষ্মীপুর-৩ সদর আসনে শাহজাহান কামালের জয় দেখছে আওয়ামী লীগ

জহিরুল ইসলাম শিবলু, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে লক্ষ্মীপুর সদর-৩ আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হন এ কে এম শাহজাহান কামাল। বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে ৪৭ বছর আর এই দীর্ঘ সময়ে লক্ষ্মীপুর সদর-৩ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে দু’বার এমপি নির্বাচিত হয়েছেন বর্তমান বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল। জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক এই সভাপতি দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে আরো বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি তার জীবনের বেশির ভাগ সময় রাজনীতি ও সাধারণ মানুষের কল্যাণে ব্যয় করেছেন। এমপি ও সর্বশেষ মন্ত্রী থাকাকালে তিনি দলের নেতা-কর্মী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করে গেছেন। তার সময় এলাকায় ব্যাপক উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন তিনি। রাস্তাঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বিদ্যুৎসহ কোন কিছুই তার উন্নয়ন থেকে বাদ পড়েনি। আসছে একাদশ সংসদ নির্বাচন হবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ, আর এই নির্বাচনে ভোটের মাঠে লড়াই করে বিজয় ছিনিয়ে আনতে হবে। তাই লক্ষ্মীপুর-৩ সদর আসনটি ভোটের মাধ্যমে আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করতে হলে তাদের প্রার্থী হতে হবে ইমেজ সম্পর্ণ। জিনি রয়েছেন ভোটের মাঠে, যার রয়েছে ভোট ব্যাংক। দলের অবস্থান, বর্তমান সরকারের উন্নয়ন ও ব্যক্তি ইমেজকে কাজে লাগিয়ে এই আসন নিজেদের ঘরে তুলতে হলে মন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামালের বিকল্প নেই বলে জানিয়েছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও কৃষকলীগসহ দলীয় নেতাকর্মীরা।

সদর উপজেলার ১২ টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা নিয়ে গঠিত লক্ষ্মীপুর-৩ সদর সংসদীয় আসন। গত ৫ বছরে এ আসনে উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে প্রায় দেড় হাজার কোটি টাকার। যার কারণে উপজেলার গ্রামীণ অবকাঠামোর উন্নয়ন দৃষ্টিনন্দন হয়েছে। লক্ষ্মীপুর-৩ সদর আসনের সংসদ সদস্য ও বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামালের প্রচেষ্টায় এসব উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন এবং বাস্তবায়িত হচ্ছে। তিনি তার প্রচেষ্টায় এই অঞ্চলে বিপুল অঙ্কের বরাদ্দ এনেছেন, তাতে এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। এছাড়া এক সময়ের সন্ত্রাসের জনপদ হিসেবে খ্যাত লক্ষ্মীপুর এখন শান্ত। এখন আর এখানে সন্ত্রাসী বাহিনী নেই। অস্ত্রের ঝনঝনানিতে এখন আর মানুষের ঘুম ভাঙে না। মানুষ নির্বিঘ্নে চলাচল করতে পারে। নিরাপদে ঘুমাতে পারে। এটি সম্ভব হয়েছে বর্তমান সরকার ও মন্ত্রী শাহজাহান কামালের সন্ত্রাস বিরোধী নীতির কারণে। তাই সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী লক্ষ্মীপুর গড়তে হলে ও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে পুনরায় নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগ থেকে এ কে এম শাহজাহান কামালকে নির্বাচিত করতে হবে বলে তৃণমূলের আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মী ও সাধারণ জনগণের মত।

জানা যায়, ২০০৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সরকার ২য় বারের মতো সরকার গঠন করেন, আর লক্ষ্মীপুর-৩ সদর আসনে এমপি নির্বাচিত হন শাহজাহান কামাল। মূলত তখন থেকে এই এলাকার উন্নয়ন শুরু হয়। তার সময়ে গত ৫ বছরের দৃশ্যমান উন্নয়নের মধ্যে লক্ষ্মীপুর-চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে সড়কের উন্নয়ন কাজ, চীপ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন, নির্বাচন কমিশন অফিস, ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালের নির্মাণ কাজ, সদর উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়াম, প্রশাসন ভবন ও নাবিক নিবাস-কোস্ট গার্ড, পুলিশ অফিসার্স মেস, লক্ষ্মীপুর সদর পুলিশ ফাঁড়ি, আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস ভবন, লক্ষ্মীপুর খাদ্যগুদামে ৫০০ মেট্রিক টন ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন নতুন গুদাম নির্মাণ, পিয়ারাপুর সেতু, রহমতখালী সেতু, লক্ষ্মীপুর পৌর আধুনিক বিপণী বিতান, যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজ একাডেমিক ভবন-কাম-পরীক্ষাকেন্দ্র, লক্ষ্মীপুর পুলিশ লাইন্স মহিলা ব্যারাক নির্মাণ, লক্ষ্মীপুর শহর সংযোগ সড়কে পিসি গার্ডার সেতু নির্মাণ, চর উভূতিতে মেঘনা ব্রিজ, পৌর আইডিয়াল কলেজ ভবন, দত্তপাড়া কলেজসহ হাজারটিরও বেশি উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে। প্রক্রিয়াধীন রয়েছে, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, শেখ রাসেল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নৌ-বন্দর, ঢাকা টু লক্ষ্মীপুর লঞ্চ সার্ভিস, রেল লাইন প্রকল্পের কাজ। এ ছাড়া অভ্যন্তরীণ যোগাযোগ, ভৌত অবকাঠামো নির্মাণ, পানি সরবরাহ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন এবং ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক বিকাশ খাতে ব্যাপক উন্নয়ন করা হয়েছে।
বর্তমানে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে জেলা জুড়ে নেতা-কর্মীদের সংগঠিত করতে কাজ করছেন মন্ত্রী শাহজাহান কামাল। প্রায় প্রতিদিনই ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন পর্যায়ে গিয়ে কর্মী সমাবেশ ও সম্মেলনসহ নৌকার পক্ষে ব্যাপক গণসংযোগ করে যাচ্ছেন। তার গণসংযোগে হাজার হাজার নেতা-কর্মীসহ সাধারণ মানুষের উপস্থিতি লক্ষনীয়। সর্বদাই পাশে থাকছেন দলীয় নেতা-কর্মীদের। এতে করে ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে দলের শক্তি ও সমর্থন।

দলের তৃণমূলের মাঠ পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা জানান, একমাত্র মন্ত্রী শাহজাহান কামালকে লক্ষ্মীপুর-৩ সদর আসনে মনোনয়ন দিলে ভোটের মাধ্যমে নৌকার বিজয় ছিনিয়ে আনতে সক্ষম হবে আওয়ামী লীগ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ