প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শ্রীপুরে শিশু ছাত্রকে বলৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসা ভাংচুর

আফজাল হোসেন, (শ্রীপুর)গাজীপুর : গাজীপুরের শ্রীপুরে কেওয়া পশ্চিম খন্ড গ্রামের মদিনাতুল উলুম হাফিজিয়া ও কওমী মাদ্রাসায় ৭ বছর বয়সী এক ছাত্রকে বলাৎকারের ঘটনায় মাদ্রাসা ভাংচুর করেছে স্থানীয় এলাকাবাসী। রবিবার সকাল ১০টার দিকে স্থানীয় এক মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকারের ঘঠনায় এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে মাদ্রাসায় হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে এবং সাথে থাকা একটি মসজিদেও হামলা চালিয়ে ভাংচুর করা হয়।

জানা গেছে, অভিযুক্ত মাওলানা নুরুল হক কেওয়া পশ্চিম খন্ড গ্রামের আবেদ আলীর ছেলে।গত ২ বছর ধরে নিজ জমিতে এই মাদ্রাসা স্থাপন করে তিনি তা পরিচালনা করে আসছেন। স্থানীয়দের ভাষ্যমতে, নুরুল হকের বিরুদ্বে এর আগেও একাধিকবার ছাত্রদের যৌন নিপীড়নের অভিযোগ ছিল।

গত শুক্রবার রাতে মাদ্রাসার সকল শিক্ষার্থী ঘুমিয়ে গেলে সাত বছর বয়সী এক শিশুকে ঘুম থেকে তুলে নিয়ে বলাৎকার করে।পড়ে সকালে শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়লে বাড়িতে গিয়ে সকলের নিকট ঘটনাটি খুলে বলে।ঘঠনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে চরম উত্তেজনা তৈরী হয়।পরে এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে মাদ্রাসায় এবং মসজিদে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে।ঘটনার পর থেকে মাদ্রাসার পরিচালক অভিযুক্ত মাওলানা নুরুল ইসলাম পলাতক রয়েছেন।

শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (মাওনা ফাঁড়ি)রফিকুল ইসলাম জানান,এ ঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে তবে অভিযুক্ত নুরুল ইসলাম পলাতক থাকায় তাকে আটক করা যায়নি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ