প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিএনপি’র তালিকায় ১৩ সংস্কারপন্থী থাকায় নেতিবাচক প্রভাব

সাজিয়া আক্তার : এক এগার পরবর্তী সময়ে সংস্কারপন্থী হিসেবে পরিচিত ১৩ নেতাকে বিএনপি প্রাথমিক মনোনয়ন দেয়ায় নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে মনোনয়ন বঞ্চিতদের মধ্যে। তাদের মতে দীর্ঘদিন আন্দোলনে থাকা নেতারা বঞ্চিত হওয়ায় ভোটের মাঠে এর বড় প্রভাব পড়বে। এদিকে মনোনয়ন পাওয়া নেতাদের দাবি, ভোটের সমীকরণ বুঝেই তাদের ওপর আস্থা রেখেছে দল। সূত্র : ডিবিসি টেলিভিশন

এক এগার পরবর্তী সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময়ে বিএনপি’র তখনকার মহাসচিব আব্দুল মান্নান ভূঁইয়ার নেতৃত্বে বেশ ক’জন নেতা দলে সংস্কার আনার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। যাতে দলীয় প্রধান খালেদা জিয়াকে বাদ দেয়ার কথা ছিল। পরে তাদের দল থেকেই বহিষ্কার করা হয়। কিন্তু একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে, একযুগ পর তাদের অনেকের বহিস্কারাদেশ প্রত্যাহার করে দেয়া হয়েছে দলীয় মনোনয়ন।

সংস্কারপন্থীদের মধ্যে মনোনয়ন পেয়েছেন, বরিশাল-১ আসনে মনোনয়নপ্রাপ্ত জহিরউদ্দিন স্বপন, নরসিংদী-৪ আসনে মনোনয়নপ্রাপ্ত সরদার সাখাওয়াত হোসেন বকুল, রাজশাহী-৪ আসনে আবু হেনা, নওগাঁ-৬ আসনে আলমগীর কবির, বরিশাল-২ আসনে শহীদুল জামাল হক, পটুয়াখালী-২ আসনে শহিদুল হক তালুকদার, নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে আতাউর রহমান আঙুর, ঝালকাঠি-২ এ ইলেন ভুট্টো, সুনামগঞ্জ-১ এ নাজির হোসেন, বগুড়া-৪ এ জিয়াউল হক মোল্লা, বগুড়া-৫ আসনে জিএম সিরাজ, যশোর-১ এ মফিকুল হাসান তৃপ্তি ও জয়পুরহাট-২ এ আবু ইউসুফ খলিলুর রহমান।

দলের এই সিদ্ধান্ত মেনে নিলেও, মনোনয়নবঞ্চিতরা বলছেন, এতে তৃণমূল নেতাকর্মীরা হতাশ।

বিএনপি’র মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক কর্নেল (অব) জয়নাল আবেদিন বলেছেন, সংস্কারপন্থীদের মনোনয়ন দেয়ার ফলে নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ। ভোটারদের আস্থা অর্জনে গ্রহণযোগ্য প্রার্থী বাছাই করতে না পারলে ভোটযুদ্ধে জয়ী হওয়া সম্ভব নয়।

বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, যারা দলের জন্য কাজ করেছে এবং ত্যাগ স্বীকার করেছে, দশ থেকে বার বছর অত্যাচার নির্যাতন সহ্য করেছে তাদেরকে অবশ্যই অগ্রাধিকার দিতে হবে।

দলের দুঃসময়ে যারা পাশে ছিলেন, চূড়ান্ত পছন্দের তালিকায় তারাই থাকবেন বলেও জানান ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ