Skip to main content

ভূমিদস্যুদের কবল থেকে পার্লামেন্টকে মুক্ত রাখার সংগ্রামে আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ : রাণা দাসগুপ্ত

মোঃ ইউসুফ আলী বাচ্চু : জাতীয় সংসদকে রাজাকার ও সাম্প্রদায়িক মুক্ত রাখার সংগ্রামে আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রাণা দাশগুপ্ত। রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবের সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন। লিখিত বক্তব্যে রাণা দাশগুপ্ত বলেন, 'আমরা আপামর দেশবাসীর সামনে দৃঢ়ভাবে উল্লেখ করতে চাই, এবারের সংসদ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সরকার ও পার্লামেন্ট গঠনের দাবিতে আমরা যেমনিভাবে সোচ্চার, একইভাবে রাজাকার, সাম্প্রদায়িক, স্বাধীনতাবিরোধী, সংখ্যালঘু নির্যাতনকারী ও ভূমিদস্যুদের কবল থেকে পার্লামেন্টকে মুক্ত রাখার সংগ্রামে আমরা আপামর গণতন্ত্রকামী, মুক্তিকামী জনগণের মতোই অবিচল ও প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।’ সংবাদ সম্মেলন তিনি উল্লেখ করেন, ১৯৯১ সালের পর থেকে এ পর্যন্ত জনপ্রতিনিধি হয়ে ও থেকে যারা সংখ্যালঘু স্বার্থবিরোধী সাম্প্রদায়িক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত ছিল, আমরা আশা করছিলাম দল নির্বিশেষে সব বিতর্কিত ব্যক্তিরা এবারে দল ও জোটের মনোনয়ন থেকে বাদ পড়বে। কেউ কেউ বাদ পড়লেও বিতর্কিত ব্যক্তিদের বেশির ভাগই আবার প্রার্থী হিসেবে নানা দল ও জোট থেকে অবতীর্ণ হয়েছে। ইতোমধ্যে নানান দল ও জোট নির্বাচনী ইশতেহার প্রণয়ন করেছেন। তাদের সবার কাছে আমাদের দাবি—সংখ্যালঘুদের জন্য নিদিষ্ট মন্ত্রনালয় করতে হবে এবং জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠন করতে হবে, অর্পিত সম্পত্বি আইন দ্রুত বাস্তবায়ন করতে হবে ও পার্বত্য চুক্তি শীঘ্রই বাস্তবায়ন করতে হবে। নির্বাচনকালীন সময়ে সরকারের প্রতি কেমন দাবি রয়েছে ?এমন এক প্রশ্নের জবাবে রানা দাস গুপ্ত বলেন, নির্বাচনের পূর্বে সরকারের প্রতি আমাদের তিনটা দাবি রয়েছে। নাগরিক হিসেবে সকলকে সমান সুযোগ প্রদান, সংখ্যালঘুদের নির্যাতন ও দেশ ত্যাগে বাধ্য কারিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা, সংখ্যালঘুদের ক্ষমতায়ন ও অংশীদারিত্ব বাস্তবায়ন। সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের অন্যান্য সদস্যরা এবং উপস্থিত ছিলেন।

অন্যান্য সংবাদ