প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিএনপির গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে জামায়াতের সঙ্গ ত্যাগ করা দরকার : ড. মেজবাহ কামাল

হ্যাপি আক্তার : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. মেজবাহ কামাল বলেছেন, আওয়ামী লীগ তার চেতনার জায়গা থেকে সরে আসেনি। কিন্তু গণতন্ত্রের কথা বললেও মূল স্লোগান দিচ্ছে তাদের মূল পার্টনার হচ্ছে জামায়াত ইসলাম এবং একাত্তরের পরাজিত শক্তি। এই বিরোধী শক্তিকে সাথে নিয়ে তারা গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠা করবে এটা কী সম্ভব, বিশ্বাস যোগ্য। চ্যানেল ২৪ এর ‘মুক্তবাক’ টকশোতে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. মেজবাহ কামাল বলেন, বিএনপির যে ক্রেডেনশিয়াল (পরিচয়পত্র), সেটা কী গণতান্ত্রিক। বিএনপির সামনে সুযোগ ছিলো, অন্তত বিরোধী দল হিসেবে জনগণের কাছে একটি গ্রহণযোগ্যতা পাওয়ার সুযোগ হতে যাচ্ছিলো। কিন্তু তার জন্য আগে দরকার নিজের গণতন্ত্রের ক্রেডিনশিয়াল তৈরি করা। জামায়াতের সঙ্গ ত্যাগ করা।

তিনি আরো বলেন, আজ আওয়ামী লীগ যে নির্বাচনী কার্যক্রম সামনে নিয়ে এসেছে, তার মধ্যে প্রাধান্য পাচ্ছে উন্নয়ন। আর বিএনপি যে বক্তব্য দিচ্ছে তার মধ্যে প্রাধান্য পাচ্ছে গণতন্ত্র। কিন্তু মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় যে পরিসরে আওয়ামী লীগের দিক থেকে উত্থাপিত হওয়ার উচিত ছিলো, তা সেভাবে দেখা যাচ্ছে না। যদিও মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বে মূল চেতনায় আওয়ামী লীগ নিঃসন্দেহে।

নির্বাচন এলেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নিয়ে আলোচনা করা মূল বিষয় হয়ে ওঠে উল্লেখ করে ড. মেজবাহ কামাল বলেন, যুদ্ধের ৪৭ বছর পরেও মুক্তিযুদ্ধের যে মূল চেতনা তা অমীমাংসিত রয়েগেছে। কারণ মুক্তিযুদ্ধের সাথে সাথে রাজনৈতিকভাবে মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী শক্তিকে নির্মূল করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পারিনি। আমরা মনে করেছিলাম মুক্তিযুদ্ধের সাথে সাথে এই শক্তি নির্মূল হয়ে যাবে। কিন্তু নির্মূল যে হবে না তা আমরা বুঝতে পারিনি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত