Skip to main content

কালকিনিতে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন

এইচ এম মিলন,কালকিনি: মাদারীপুরের কালকিনিতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মোঃ গিয়াসউদ্দিন ওরফে কুতুবউদ্দিন বেপারী নামের এক আ.লীগ নেতাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির প্রতিবাদে বিক্ষোভ-সমাবেশ ও মানববন্ধন করা হয়েছে। আজ শনিবার সকালে ভুক্তভোগী পরিবার ও পৌর এলাকার ৬নং ওয়ার্ডবাসীর উদ্যোগে চড়লক্ষি স্টান্ডে তিন শতাধিক বিভিন্ন শ্রেণীর লোকজনের অংশগ্রহণে এ কর্মসুচি অনুষ্ঠিত হয়। ভুক্তভোগীর অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে, পৌর এলাকার চড়লক্ষি গ্রামের ৬নং ওয়ার্ড আ.লীগের কর্মী মোঃ গিয়াসউদ্দিন ওরফে কুতুবউদ্দিন বেপারীর সঙ্গে একই এলাকার মালেক বেপারীর দীর্ঘদিন ধরে ১০২ নং দড়িচড় লক্ষিপুর মৌজার ২২২৫ ও ২১৭২সহ কয়েকটি দাগের জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এ বিরোধপূর্ণ জমি প্রতিপক্ষ দখল করার পায়তারা চালালে গিয়াসউদ্দিন বেপারী বাদী হয়ে মাদারীপুর আদালতে একটি ১৪৪ধারায় মামলা দায়ের করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রতিপক্ষ মালেক বেপারী তার শ্যালিকা তাজনেহার বেগমকে দিয়ে গিয়াসউদ্দিন ওরফে কুতুবউদ্দিনকে আসামী করে মাদরীপুর কোর্টে একটি চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করা হয়। এ মামলা দিয়ে হয়রানির প্রতিবাদে বিক্ষোভ-সমাবেশ এবং মানবন্ধন করেছে ভুক্তভোগীর পরিবার ও এলাকাবাসী। এসময় বক্তব্য রাখেন আ.লীগ নেতা গিয়াসউদ্দিন ওরফে কুতুবউদ্দিন, আশ্রাফ আলী মাষ্টার, সুমন, আসাদ ও ইউনুস বেপারী প্রমুখ। ভুক্তভোগী গিয়াসউদ্দিন বলেন, আমি আমার জমি রক্ষার্থে আদালতে ১৪৪ ধারা জারি করলে এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে একটি মিথ্যা চাঁদাবাজী মামলা দিয়ে হয়রানি করছে প্রতিপক্ষ তাজনেহার বেগম। আমি এ মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাই। অভিযুক্ত তাজনেহারের ভগ্নিপতি মালেক বেপারী বলেন, গিয়াসউদ্দিন ওরফে কুতুবউদ্দিন এলাকা ঘুষ বাণিজ্য করে এবং জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে আমাদের কাছে চাদা দাবি করায় আমরা মামলা করেছি। এ ব্যাপারে কালকিনি থানার এসআই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সনজিব জোয়াদ্দার বলেন, থানার পক্ষ থেকে চুড়ান্ত প্রতিবেদন দিয়ে দেওয়া হয়েছে। মামলাটি কোর্টে এখন বিচারাধীন।

অন্যান্য সংবাদ