প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রার্থীর জনপ্রিয়তায় নির্বাচন কমিশন নমনীয় হয় না : হেলাল উদ্দীন আহমেদ

মারুফুল আলম : নির্বাচন কমিশন সচিব হেলাল উদ্দীন আহমেদ বলেছেন, প্রার্থীর জনপ্রিয়তা বা গুরুত্বের কথা ভেবে নির্বাচন কমিশনের নমনীয় হওয়ার সুযোগ নেই। আইনগতভাবে কোন প্রার্থীর প্রার্থীতা বাতিল হলে নির্বাচন কমিশনের নমনীয় হওয়ার কোনো সুযোগ থাকে না। রোববার বিবিসি বাংলাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি আরো বলেন, প্রার্থীর বিরুদ্ধে যদি ফৌজদারি মামলা থাকে বা উনি যদি তথ্যগোপন করে থাকেন অথবা প্রার্থী কনভিক্টেড পারসন হলে বা প্রার্থী যদি ঋণখেলাপী-বিলখেলাপী হোন, এমনকি উনি স্বাক্ষরও যদি না করে থাকেন, একজন প্রার্থীর চূড়ান্ত প্রার্থীতা বাতিল হতে পারে। তবে আমরা বলে দিয়েছি, সিলি মেটার যেমন নামের ভুল-ত্রুটি ইত্যাদি ব্যাপারে বাতিল না করতে। বড়রকম সমস্যা থাকলে কোনোভাবে নমনীয় হওয়ার সুযোগ নেই।

তিনি বলেন, মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করেন রিটার্নিং অফিসাররা। জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনার পরীক্ষা-নীরিক্ষা করে দেখবেন যে, প্রার্থী নমিনেশন পেপারে যে তথ্যগুলো দিয়েছে তা ঠিকমতো দিয়েছে কী না এবং স্বাক্ষর করেছে কী না। হলফনামা যথাযথ পূরণ করা হয়েছে কী না, তাও দেখা হয়। মনোনয়ন-প্রত্যাশীর বিরুদ্ধে কোনো ফৌজদারী মামলা আছে কী না এবং স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তির বিবরণ ফরমেট অনুযায়ী যথাযথভাবে পূরণ করা হয়েছে কী না দেখা হয়।

মনোনয়ন-প্রত্যাশীদের সম্পদের হিসেব-নিকাশের স্বচ্ছতা কতটা বিবেচনায় রাখা হয় জানতে চাইলে তিনি বলেন, বেসিক্যালি মনোনয়ন প্রত্যাশীরা হলফনামার মাধ্যমে এফিডেবিট করে স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের হিসেব-নিকাশটা দিয়ে থাকেন এবং উনার প্রতিবছরের আয়কর মিলিয়ে দেখা হয়। প্রার্থীর এসব তথ্য আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে আপলোড দিয়ে থাকি।

প্রকৃত সম্পদের বাস্তব প্রতিফলন হলফনামায় দেখা যায় কি না? জবাবে তিনি বলেন, আমরা শুধু হলফনামাটি গ্রহণ করি। কেউ যদি হলফনামাটা মিলিয়ে দেখতে চান দেখতে পারেন, ইনকাম ট্যাক্স ডিপার্টমেন্টও এটা মিলিয়ে দেখতে পারেন।

ঋণখেলাপীর মনোনয়নও পাশ হতে দেখা যায় কেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, হাইকোর্ট এলাউ করলে সম্ভব হয়। রিটার্নিং অফিসার বাতিল করে দিলে একজন প্রার্থীর নির্বাচন কমিশনে আপিল করার সুযোগ থাকে। এক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশন যদি রিটার্নিং অফিসারের আদেশটি বহাল রাখে, উনি হাইকোর্টে গিয়ে একটি রিট পিটিশন করতে পারেন। হাইকোর্ট যদি উনাকে এলাউ করে তাহলে উনি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারেন।

প্রসঙ্গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে প্রার্থীদের দাখিল করা মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শুরু হচ্ছে আজ। সব হিসেব-নিকাশ শেষে চূড়ান্ত প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হবে মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন ৯ ডিসেম্বর। ১০ ডিসেম্বর থেকে চূড়ান্ত প্রার্থীরাই মাঠে থাকবেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ