প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঐক্যফ্রন্টের মোড়কে বিএনপি আসায় নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে : মনজুরুল ইসলাম

সাজিয়া আক্তার : ভোটের মাঠে সব দল সক্রিয় থাকলে এবার নিয়ন্ত্রিত নির্বাচন কঠিন হবে বলে মনে করেন শিক্ষাবিদ সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম। এবারের নির্বাচনে ইসির পাশাপাশি মাঠ প্রশাসন, আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর ভূমিকাও গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন তিনি। তবে দলগুলোর প্রার্থী তালিকা দেখে হতাশ সৈয়দ মনজুরুল। সূত্র : যমুনা টেলিভিশন

মনজুরুল ইসলামের মতে, রাজনীতির নানা বাঁকবদল রেখেছেন, পরখ করেছেন নিয়ন্ত্রিত ও অবাধ নির্বাচনে। সেই পথে বিগত ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে ভোটাররা বঞ্চিত হয়েছে বলে মনে করেন শিক্ষাবিদ সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম। তবে এবার নিয়ন্ত্রিত নির্বাচন করা কঠিন। ভোটের মাঠে অংশগ্রহণকারী সব দল সক্রিয় থাকলে সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন সম্ভব বলে মনে করেন তিনি।

শিক্ষাবিদ সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম বলেছেন, যদি বিরোধী দল সক্রিয় থাকে তাহলে তাদের পক্ষে অন্যায় অবিচার মোকাবেলা করা সম্ভব। তারেক জিয়া যখনই নির্বাচন দৃশ্যপটে প্রবেশ করলেন তখন বিএনপি আবার আগের অবস্থানে ফিরে গেছে। এদিকে জামায়াতের অবস্থান শক্তিশালী হচ্ছে, তাতে করে বিএনপি তার পুরানো রূপে ফিরে এসেছে। এর ফলে যারা ঐক্যফ্রন্টে আছেন তারা এ সময়টাকে মানিয়ে নিয়ে তাদের প্রতিষ্ঠিত করবেন কিনা এটিই এখন দেখার বিষয়। ঐক্যফ্রন্টের ১০-১২ জন নেতা মন্ত্রী হবেন বলেই কী ঐক্যফ্রন্ট হয়েছে? ২০১৮ সালে নির্বাচনে যে ইভিএম ব্যবহার করা যাবে সেটা ২০১৪ সালে ব্যবহার করা যাবে না। এর মধ্যে পৃথিবী অনেক বদলে যাবে। অথচ কয়েক হাজার কোটি টাকা দিয়ে ইভিএম কেনা হচ্ছে। পর্যবেক্ষকদের মূর্তির মতো দাঁড়িয়ে থাকতে হবে, নির্বাচন কমিশনের এই চিন্তা কোথা থেকে আসে? তাদের মনে রাখা উচিত মানুষ তাদের দিকে তাকিয়ে আছে।

শিক্ষাবিদ মনজুরুল মনে করেন, ঐক্যফ্রন্টের মোড়কে বিএনপি নির্বাচনে আসায় প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন হবে। তবে প্রার্থীদের তালিকা দেখে রাজনীতির গুণগত পরিবর্তনে ফ্রন্টের লক্ষ অঙ্কুরেই বিনষ্ট হয়েছে বলে ধারণা তার। সব দলের জন্য সমান সুযোগ নিশ্চিতসহ বিভিন্ন ইস্যুতে নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্নও আছে আছে এই অধ্যাপকের।

শিক্ষাবিদ মনজুরুল ইসলাম মনে করেন এবার নির্বাচনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হলেও সংঘাতের আশঙ্কা কম।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত