প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দর্শকের চাপ সামলাতে বোকা-রিভারপ্লেটের ম্যাচের জন্য ‘দুই বার্নাব্যু’ লাগবে!

স্পাের্টস ডেস্ক : একই ফ্রেমে দুটি স্টেডিয়ামের ছবি। দুটো স্টেডিয়ামকে এভাবে একসঙ্গে জুড়ে দেয়ার রহস্য কি? রহস্য তেমন কিছু না। বোকা জুনিয়র্স ও রিভারপ্লেটের মধ্যকার আগুন-তপ্ত ম্যাচটিই এই ছবির জন্ম দিয়েছে! এই দুই আর্জেন্টাইন ক্লাবের মধ্যকার কোপা লিবার্তোদোরেসের ফাইনালের পণ্ড হওয়া দ্বিতীয় লেগ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে রিয়াল মাদ্রিদের মাঠ এস্তাদিও সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে। চরম উত্তেজনাকর এই ম্যাচটি দেখার জন্য দর্শকদের টিকিট চাহিদা এতো বেশি যে, টিকিট বিক্রয় কমিটি দিশেহারা। দর্শকদের টিকিট চাহিদা স্পষ্ট করেই বলে দিচ্ছে, ম্যাচটি আয়োজন করতে অন্তত দুটি বার্নাব্যু লাগবে!

উপরের ছবিটি তারই প্রতীকী ছবি। দুটো স্টেডিয়াম দেখানো হলেও তা আলাদা দুটি স্টেডিয়াম নয়। জোড়া দেয়া দুটো ছবিই রিয়ালের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুর। দর্শক চাহিদা যেহেতু স্পষ্ট করে বলে দিচ্ছে ম্যাচটির জন্য দুটি বার্নাব্যু লাগবে, তাই দুটো ছবিকে এভাবে জুড়ে দেয়া।

বিশ্বসেরা রিয়ালের এই স্টেডিয়ামের দর্শক ধারণ ক্ষমতা ৮১ হাজার ৪৪ জন। কিন্তু বোকা জুনিয়র্স ও রিভারপ্লেটের মধ্যকার ম্যাচটির টিকিট ছাড়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই টিকিটের আবেদন পড়েছে ১ লাখ ৫০ হাজার। ধারণা করা হচ্ছে টিকিটের আবেদন আরও অনেক বাড়বে। আর যদি আবেদন না পড়ে, তারপরও যে আবেদন পড়েছে, তাদের সবাইকে টিকিট দিয়ে জায়গা দিতে হলে দুটি বার্নাব্যু লাগবে!

ম্যাচটি নিয়ে দর্শকদের এমন হুমড়ি খেয়ে পড়ার কারণটাও স্পষ্ট। দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের ক্লাব শ্রেষ্ঠত্বের টুর্নামেন্ট কোপা লিবার্তোদোরেসের ফাইনালের এই দ্বিতীয় লেগ ম্যাচটি হওয়ার কথা ছিল রিভারপ্লেটের মাঠ এস্তাদিও মনুমেন্টাল স্টেডিয়ামে। কিন্তু গত ২৪ নভেম্বর ম্যাচ শুরুর আগে বোকা জুনিয়র্সের খেলোয়াড়দের বহনকারী গাড়িতে ভয়ঙ্কর হামলা চালায় রিভারপ্লেটের উগ্র সমর্থকেরা। হামলায় আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয় বোকা জুনিয়র্সের বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়কে।

ওই হামলার কারণে রিভারপ্লেটের মাঠে পুনরায় ম্যাচ খেলতে রাজি হয়নি বোকা জুনিয়র্স। তাদের অনুরোধেই দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা কনমেবল ম্যাচটা আর্জেন্টিনা থেকে সরিয়ে নিয়ে এসেছে স্পেনের মাদ্রিদে! ফলে দক্ষিণ আমেরিকার দর্শকেরা তো বটেই; ম্যাচটি দেখার জন্য বাড়তি আগ্রহ সৃষ্টি হয়েছে ইউরোপিয়ানদের মধ্যেও। বিশেষ করে ইউরোপে যেসব আর্জেন্টাইন বাস করেন, তাদের সবাই হুমড়ি খেয়ে পড়েছে।

টিকিট বিক্রয় কমিটি জানিয়েছে, এর মধ্যে যে ১ লাখ ৫০ হাজার আবেদন পড়েছে, তার মধ্যে ৭১ হাজার আবেদনই করেছেন আর্জেন্টাইনরা। এর মধ্যে ৯ হাজার আবেদন করেছেন মাদ্রিদেই বসবাসকারী আর্জেন্টাইনরা। শুধু ম্যাচ টিকিট নিয়ে কাড়াকাড়ি নয়, হুলুস্থুল পড়েছে বিমানের টিকিট নিয়েও। টিকিটের চাহিদা দেখে বিভিন্ন ট্রাভেলস এজেন্সির গলদগর্ম অবস্থা।

ম্যাচের দুটি দলই আর্জেন্টিনা থেকে উড়ে আসবে স্পেনে। পাশাপাশি রয়েছে বিশাল সংখ্যার দর্শক। বিভিন্ন দেশের নেতা-নেত্রী, উচ্চপদস্থ কর্মকর্মা, ফুটবল সংগঠকরাও রয়েছেন। সব মিলে বিমানের টিকিটের চাহিদা ব্যাপক। চাহিদা তুঙ্গে দেখে ট্রিাভেলস এজেন্সিগুলো টিকিটের মূল্যও খানিকটা বাড়িয়ে ফেলেছে! আর্জেন্টিনা থেকে মাদ্রিদ-যাত্রার টিকিটের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৬০০ থেকে ২৪০০ ইউরো! পোয়াবারো মাদ্রিদের আবাসিক হোটেলগুলোরও। তবে চাহিদা তুঙ্গে হলেও আয়োজক রিয়াল ম্যাচ টিকিটের মূল্য সাধ্যের মধ্যেই রেখেছে বলে খবর।

উল্লেখ্য, বার্নাব্যুতে ম্যাচটা অনুষ্ঠিত হবে ৯ ডিসেম্বর রোববার রাতে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ