Skip to main content

বছরের প্রথম দিনে বই উৎসবের অনিশ্চয়তা

তরিকুল ইসলাম সুমন : বছরের প্রথমদিন সারাদেশে বই উৎসব পলনের রেওয়াজ থাকলেও আগামী বছরের এ উৎসব পালন নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ত্রিশ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। এর একদিন পরেই বই উৎসব করা সম্ভব হবে কিনা এবিষয়ে এখনো কোনো নির্দেশনা জারি করেনি শিক্ষা এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নির্বাচনের পরদিন স্কুল বন্ধ থাকবে। এছাড়াও নির্বাচন পরবর্তী পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে এখনও দিনক্ষণ ঠিক করা সম্ভব হচ্ছে না। এছাড়াও দু-মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীদের নিয়ে বই উৎসবের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। নির্বাচনের পরে কোনো মন্ত্রী থাকবে না। কে উদ্বোধন করবেন। এ নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। এ বিষয়ে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) চেয়ারম্যান প্রফেসর নারায়ণ চন্দ্র সাহা এই প্রতিবেদককে বলেন, দেশে বই উৎসব কবে হবে তা এখনও ঠিক হয়নি। এ বিষয়ে আমরা এখনো এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা পাইনি। আমরা আগামী ১৪ ডিসেম্বরের আগেই সব বই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সকল বই পৌঁছে যাবে। সরকার যেদিনই বই উৎসব করুক না কেনো বইয়ের কোনো সমস্যা হবে না। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০১৯ শিক্ষাবর্ষের সারাদেশের চার কোটি ২৬ লাখ ১৯ হাজার ৮৬৫ জন শিক্ষার্থীর জন্য ৩৫ কোটি ২২ লাখ কপি বিনামূল্যের পাঠ্যবই ছাপার কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে। আগামী ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে ৯৯ শতাংশ বই ছাপার কাজ শেষ হবে। আগামী বছরের জন্য প্রাক-প্রাথমিকে ৬৮ লাখ ৫৬ হাজার ২০ কপি, প্রাথমিকে ৯ কোটি ৮৮ লাখ ৮২ হাজার ৮৯৯ কপি, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ভাষায় ২ লাখ ৭৬ হাজার ৭৮৪ কপি, ইবতেদায়ির ২কোটি ২৫ লাখ ৩১ হাজার ২৮৩ কপি, দাখিলে ৩ কোটি ৭৯ লাখ ৫৮ হাজার ৫৩৪ কপি, মাধ্যমিক (বাংলা ভার্সন) ১৮ কোটি ৫৩ হাজার ১২২ কপি ও ইংরেজি ভার্সনের ১২ লাখ ৪৭ হাজার ৮২৬ কপি, কারিগরিতে ১২ লাখ ৩৫ হাজার ৯৪৮ কপি, এসএসসি ভোকেশনালে ১ লাখ ৪৩ হাজার ৮৭৫ কপি, ব্রেইল ৫ হাজার ৮৫৭ কপি, সম্পূরক কৃষিতে (৬ষ্ঠ-৯ম) ১ লাখ ২৪ হাজার ২৬১ কপি বই ছাপা হচ্ছে।

অন্যান্য সংবাদ