প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চালকের আসনে বাংলাদেশ

রাকিব উদ্দীন : সিরিজ জয়ের আশা নিয়ে মিরপুরে শেষ টেস্টের দ্বিতীয় দিনে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ। সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন টাইগার দলনায়ক সাকিব আল হাসান। টাইগারদের দেওয়া ৫০৮ রানের বিপক্ষে ব্যাট করতে মাঠে নামলো উইন্ডিজরা।

ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম ওভারের শেষ বলেই সাকিব বোল্ড করে ফিরিয়ে দেন ক্যারিবীয়ান ওপেনার কার্লোস ব্রাথওয়েইটকে। এরপর মিরাজ বোল্ড করে ফিরিয়ে দেন আরেক ওপেনার কাইরন পাওয়েলকে (৪)। দলীয় ৬ রানে ক্যারিবীয়ানরা দুই ওপেনারকে হারায়। দলীয় ১৭ রানের মাথায় ইনিংসের নবম ওভারের শেষ বলে সাকিব বোল্ড করেন সুনীল অ্যামবিসকে (৭)। এরপর শিকারে আবারো যোগ দেন মিরাজ। ফিরিয়ে দেন রোস্টন চেজকে। দলীয় ২৯ রানে মিরাজ নিজের তৃতীয় উইকেট নিতে ফিরিয়ে দেন ১০ রান করা শাই হোপকে। টপঅর্ডারের পাঁচ ব্যাটসম্যানই বোল্ড হন। নাঈম হাসান নিজের প্রথম ওভারে এলবির ফাঁদে ফেলেন শিমরন হেটমেয়ারকে। আম্পায়ার আলিম দার আউট ঘোষণা করলেও রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান হেটমেয়ার।

দ্বিতীয় দিন শেষে উইন্ডিজদের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৭৫ রান। উইকেটে অপরাজিত আছেন হেটমেয়ার ৩২ এবং ডরউইচ ১৭ রান নিয়ে।

এর আগে দিনের শুরুতেই অপরাজিত থেকে ব্যাটিংয়ে নামেন সাকিব আল হাসান এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এই জুটিতে আসে ১১১ রান। দলীয় ৩০১ রানের মাথায় বাংলাদেশ ষষ্ঠ উইকেট হারায়। কেমার রোচের বলে শাই হোপের তালুবন্দি হন সাকিব। টাইগার দলপতি সাজঘরে ফেরার আগে করেন ৮০ রান (২৪তম ফিফটি)। ১৩৯ বলে সাজানো সাকিবের ইনিংসে ছিল ৬টি বাউন্ডারি। এরপর জুটি গড়েন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ এবং দলে ফেরা লিটন দাস। টেস্ট ক্যারিয়ারের ১৬তম ফিফটি পান রিয়াদ আর চতুর্থ ফিফটি পান লিটন। দ্বিতীয় দিন প্রথম সেশন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৩৮৭/৬। দ্বিতীয় সেশনের কিছু পরেই বিদায় নেন লিটন দাস (৫৪)। মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে তার জুটিতে আসে ৯২ রান। ক্রেইগ ব্রাথওয়েইটের বলে বোল্ড হওয়ার আগে লিটন ৬২ বলে আটটি চার আর একটি ছক্কা হাঁকান। দলীয় ৩৯৩ রানের মাথায় বাংলাদেশ সপ্তম উইকেট হারায়। এরপর ২৬ বলে ১৮ রান করে বিদায় নেন মেহেদি হাসান মিরাজ। ১৬তম ফিফটিকে তৃতীয় সেঞ্চুরিতে রূপ দেন মাহমুদউল্লাহ। দ্বিতীয় সেশন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৪৭১/৮।

তৃতীয় বা শেষ সেশনে ব্যাটিংয়ে নেমে নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে বিদায় নেন তাইজুল ইসলাম (২৬)। ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (১৩৬) সবশেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন। নাঈম হাসান (১২) অপরাজিত থাকেন। সাদা পোশাকে তৃতীয় সেঞ্চুরি করা রিয়াদ ২৪২ বলে ১০টি বাউন্ডারি হাঁকান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে দুটি করে উইকেট পান কেমার রোচ, দেবেন্দ্র বিশু, কার্লোস ব্রাথওয়েইট এবং জোমেল ওয়ারিকান। একটি করে উইকেট পান শিরমন লুইস এবং রোস্টন চেজ। ৫০৮ রানেই অল আউট হয় টাইগাররা।

বাংলাদেশ দল : সৌম্য সরকার, সাদমান ইসলাম, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, মোহাম্মদ মিঠুন,লিটন দাস, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদি মিরাজ, তাইজুল ইসলাম ও নাঈম হাসান।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ একাদশ : কিয়েরন পাওয়েল, ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট,শাই হোপ, শিমরন হেটমেয়ার, সুনীল আমব্রিস, রস্টোন চেজ, শন ডারউইচ, বেদেন্দ্র বিশু, কেমার রোচ, জেরোমি ওয়ারিক্যান ও শ্যামরন লুইস।